bangla news

বকশীগঞ্জে লোহার রড দিয়ে গৃহবধূকে নির্যাতন

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৫-১৮ ৯:৪৯:৪০ পিএম
নির্যাতিতা গৃহবধূ। ছবি: বাংলানিউজ

নির্যাতিতা গৃহবধূ। ছবি: বাংলানিউজ

জামালপুর: যৌতুকের টাকা না পেয়ে জামালপুরের বকশীগঞ্জে শারমিন নামে এক গৃহবধূকে লোহার রড দিয়ে পিটিয়ে গুরুতর আহত করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে স্বামী আব্দুল মামিনের বিরুদ্ধে। শুক্রবার (১৭ মে) রাতে এ মারধরের ঘটনা ঘটে। 

আব্দুল মামিন স্থানীয় অ্যাডভ্যান্স কিন্ডার গার্ডেনের সহকারী শিক্ষক ও নির্যাতিত গৃহবধূ হযরত শাহাজামাল (রা.) বিদ্যা নিকেতনের সহকারী শিক্ষিকা।

নির্যাতিত গৃহবধূ বর্তমানে বকশীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন।

স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর হারুণ অর রশীদ জানান, ছয় বছর আগে চরকাউরিয়া মাস্টারবাড়ী এলাকার নুর ইসলামের মেয়ে ও শাহাজামাল (রা.) বিদ্যা নিকেতনের সহকারী শিক্ষিকা শারমিনের সঙ্গে মাঝপাড়া উত্তর এলাকার হোসেন আলীর ছেলে আব্দুল মমিনের বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই যৌতুক দাবি করে বিভিন্নভাবে নির্যাতন করে আসছে মমিন। তাসফিয়া নামে তাদের একটি মেয়ে রয়েছে।

যৌতুক না পেয়ে শুক্রবার রাতে ক্ষিপ্ত হয়ে লোহার রড দিয়ে শারমিনকে শ্বশুর হোসেন আলী ও স্বামী আব্দুল মমিন মিলে লোহার রড দিয়ে বেধড়ক পিটিয়ে আটকে রাখে। এসময় শিশু তাসফিয়াকেও মারধর করা হয়। 

পরে খবর পেয়ে শনিবার বিকেলে স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর হারুণ অর রশীদ ঘটনাস্থলে পৌঁছে অবরুদ্ধ অবস্থায় শারমিনকে উদ্ধার করে বকশীগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করায়।

বকশীগঞ্জ পৌরসভার মেয়র নজরুল ইসলাম সওদাগর ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, যৌতুকের জন্য গৃহবধূকে নির্যাতন কোনোভাবেই মেনে নেওয়া যায় না।

বাংলাদেশ সময়: ২১৪২ ঘণ্টা, মে ১৮, ২০১৯
আরএ

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   জামালপুর
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-05-18 21:49:40