ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৭ শ্রাবণ ১৪২৭, ১১ আগস্ট ২০২০, ২০ জিলহজ ১৪৪১

জাতীয়

সরকারি পাটকল বন্ধ হলে একচেটিয়া সিন্ডিকেট হবে

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১১৭ ঘণ্টা, এপ্রিল ৩০, ২০১৯
সরকারি পাটকল বন্ধ হলে একচেটিয়া সিন্ডিকেট হবে

নরসিংদী: বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী বলেছেন, যখন প্রাইভেট পাটকল ছিল না, তখন বাংলাদেশ জুট মিলস করপোরেশনের (বিজিএমসি) পাটকলগুলোকে বাঁচিয়ে রেখেছে। এখন যদি পাটকলগুলোকে বন্ধ করে দেওয়া হয়, তাহলে একচেটিয়াভাবে সিন্ডিকেট তৈরি হবে। ফলে পাটের দাম কমিয়ে দেওয়ার ঝুঁকি থাকবে।

মঙ্গলবার (৩০ এপ্রিল) দুপুরে নরসিংদী ‘ইউএমসি জুট মিল’ পরিদর্শনকালে বস্ত্র ও পাট মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, সরকারি মিল না থাকলে পাট ও এর সঙ্গে সংশ্লিষ্ট শ্রমিকদের বাঁচিয়ে রাখার সম্ভব হবে না।

সরকারি পাটকলগুলো লোকসানের কারণ খুঁজে বের করতে হবে। তারপর সেসব ফাঁক-ফোকর বন্ধ করে এগুলোকে লাভজনক প্রতিষ্ঠান হিসেবে প্রতিষ্ঠা করতে হবে।

সরকারি পাটকলে লোকসানের অন্যতম কারণগুলোর মধ্যে ‘মজুরি কমিশন’ একটি উল্লেখ করে গোলাম দস্তগীর বলেন, প্রাইভেট মিলগুলোতে শ্রমিকদের যে মজুরি দেওয়া হয় তার তুলনায় সরকারি গুলোতে দ্বিগুণ মজুরি দেওয়া হয়। তাছাড়া প্রাইভেট সেক্টরে আধুনিক যন্ত্রের ব্যবহার বেড়েছে। আগে যেখানে চারজন শ্রমিক একটি মেশিন চালাত, সেখানে আধুনিকায়নের ফলে একজন শ্রমিকই একটি মেশিন চালাতে পারে। সেই হিসেবে লোকসান বাড়ছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।  

রমজানের আগেই শ্রমিকদের বকেয়া মজুরি দেওয়া হবে বলেও জানান বস্ত্র ও পাট মন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী।

এসময় পাট ও বস্ত্র মন্ত্রণালয়ের সচিব মিজানুর রহমান, বিজিএমসি’র চেয়ারম্যান শাহ মোহাম্মদ নাসিম, সংরক্ষিত মহিলা আসনের সংসদ সদস্য তামান্না নুসরাত বুবলি, পাট ও বস্ত্র মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব আবু বক্কর সিদ্দিক, জেলা প্রশাসন ও ইউএমসি জুট মিলের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৭১৭ ঘণ্টা, এপ্রিল ৩০, ২০১৯
জিপি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa