ঢাকা, সোমবার, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ২০ মে ২০১৯
bangla news

সাবমেরিন ক্যাবলের কল্যাণে বিচ্ছিন্ন চরে যাচ্ছে বিদ্যুৎ

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৪-২২ ৮:০১:২২ পিএম
বিদ্যুৎ সংযোগ কার্যক্রম ও বিদ্যুৎ উপকেন্দ্র উদ্বোধন

বিদ্যুৎ সংযোগ কার্যক্রম ও বিদ্যুৎ উপকেন্দ্র উদ্বোধন

পিছিয়ে পড়া জনপদ শরীয়তপুর জেলার সার্বিক উন্নয়নে ৬০০ কোটা টাকার প্রকল্প নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন পানি সম্পদ উপমন্ত্রী একে এম এনামুল হক শামীম।

তিনি বলেন, এ জেলার উন্নয়নে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অত্যন্ত আন্তরিক। তাই তিনি মূল ভূখণ্ড হতে বিচ্ছিন্ন নড়িয়া ও ভেদরগঞ্জ উপজেলার তিন ইউনিয়ন- চরআত্রা, নওপাড়া ও কাঁচিকাটাকে আধুনিক প্রযুক্তির আশীর্বাদ, সাবমেরিন ক্যাবলের মাধ্যমে বিদ্যুৎ পৌঁছে দেওয়ার উদ্যোগে এ অঞ্চলের মানুষের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে সহযোগিতার  হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন।

উন্নয়নের এ ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখতে জেলার জন্য ৬০০ কোটি টাকার বিভিন্ন প্রকল্প বাস্তবায়নের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, এর মাধ্যমে আমরা শরীয়তপুরকে একটি মডেল জেলায় রূপান্তরিত করবো। 

আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও পানি সম্পদ উপমন্ত্রী এনামুল হক শামীম সোমবার (২২ এপ্রিল) দুপুরে জেলার চরআত্রায় সাবমেরিন ক্যাবলের মাধ্যমে বিদ্যুৎ সংযোগ কার্যক্রম ও বিদ্যুৎ উপকেন্দ্র উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথা বলেন।

এনামুল হক শামীম আরও বলেন, ‘গত নির্বাচনে আমি যখন ওই চরে গণসংযোগে এসেছিলাম, তখন আপনাদের অন্যতম দাবি ছিল বিদ্যুৎ সংযোগ। আমি প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলাম, ভোটে জিতলে তিন মাসের মধ্যেই বিদ্যুতের আলো পৌঁছাবো। আমি সেই প্রতিশ্রুতি আজ রক্ষা করতে পেরেছি।

শরীয়তপুর জেলা শহর বা উপজেলা থেকে বিচ্ছিন্ন হওয়ায় পার্শ্ববর্তী মুন্সীগঞ্জ জেলা থেকে পদ্মা নদীর তলদেশ দিয়ে অপটিক্যাল ফাইবার ক্যাবলের (সাবমেরিন ক্যাবল) মাধ্যমে নদীর ৮০০ মিটার অংশে বিদ্যুৎ সংযোগ লাইন নেওয়া হচ্ছে। ২০ কেভিএ সংযোগের ফলে বিদ্যুতের আলোয় আলোকিত হবে ওই চরগুলোতে বসবাসকারী প্রায় ৭০ হাজার পরিবার। পদ্মা ও মেঘনা নদীর পাড় ঘেঁষে গড়ে ওঠা চরে প্রায় ৭০ বছর আগ থেকে মানুষের বসবাস শুরু। ওই চরের নওপাড়া ও চরআত্রা ইউনিয়ন পড়েছে শরীয়তপুরের নড়িয়া উপজেলায় ও কাঁচিকাটা ইউনিয়ন ভেদরগঞ্জ উপজেলার অন্তর্গত।

বাংলাদেশ বিদ্যুতায়ন বোর্ডের সদস্য মো. আব্দুস ছালাম, জেলা প্রশাসক কাজী আবু তাহের, পুলিশ সুপার আব্দুল মোমেন, শরিয়তপুর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বাবু অনল কুমার দে, শরিয়তপুর জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আব্দুল ওহাব ব্যাপারী, নড়িয়া উপজেলা চেয়ারম্যান এ কে এম ইসমাইল হক, ভেদরগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান মো. হুমায়ন কবির মোল্লা প্রমুখ এসময় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন। 

বাংলাদেশ সময়: ১৯৫৭ ঘণ্টা, এপ্রিল ২২, ২০১৯
আরএম/জেডএস

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14