ঢাকা, মঙ্গলবার, ১ আশ্বিন ১৪২৬, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯
bangla news

মাদকের ব্যাপারে কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না: আরএমপি কমিশনার 

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৪-২০ ৫:৫৭:০২ পিএম
মতবিনিময় সভায় আরএমপি কমিশনার হুমায়ূন কবির। ছবি: বাংলানিউজ

মতবিনিময় সভায় আরএমপি কমিশনার হুমায়ূন কবির। ছবি: বাংলানিউজ

রাজশাহী: রাজশাহী মহানগর পুলিশের (আরএমপি) কমিশনার হুমায়ূন কবির বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে পুলিশ মাদক নির্মূলকে সর্বাধিক গুরুত্ব দিয়ে কাজ করছে। মাদকের সঙ্গে যে ব্যক্তিই জড়িত থাকুক তাকে প্রশ্রয় দেওয়া হবে না। এমনকি প্রশাসনের বা রাজনৈতিক পদাধিকারী ব্যক্তি হলেও তাকে কোনোভাবে ছাড় দেওয়া হবে না।

শনিবার (২০ এপ্রিল) দুপুরে নগরের শাহ মখদুম থানা ভবনে সদ্য স্থানান্তরিত আরএমপির অস্থায়ী সদর দফতরে রাজশাহী সিটি করপোরেশনের (আরসিসি) ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও নারী ওয়ার্ড কাউন্সিলরদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় তিনি এসব কথা বলেন। 

হুমায়ূন কবির বলেন, মাদক ও বাল্যবিয়ের মতো সমস্যা নিরসনে সামাজিক আন্দোলনের কোনো বিকল্প নাই। নগরের সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এবং ওয়ার্ডে মাদক এবং বাল্যবিয়ের বিষয়ে সচেতনতা বাড়াতে সভা আয়োজনের পরিকল্পনার আহ্বান জানান তিনি। 

নগরের অপরাধ সংক্রান্ত তথ্য দিয়ে পুলিশকে সহায়তা করার জন্যও ওয়ার্ড কাউন্সিলরদের আহ্বান জানান আরএমপি কমিশনার হুমায়ূন কবির।

তিনি বলেন, ওয়ার্ড কাউন্সিলরদের সব ভালো উদ্যোগে আরএমপি আপনাদের পাশে রয়েছে। আপনারা জনগণকে সঙ্গে নিয়ে মাদক ও অন্যান্য সব সামাজিক সমস্যার বিরুদ্ধে সচেতনতা ও প্রতিরোধ তৈরি করুন। কারণ জনগণের শক্তির বিরুদ্ধে কোনো অপশক্তি কখনো দাঁড়াতে পারবে না। 

নগরের যানজট নিরসনের বিষয়ে আরএমপি কমিশনার বলেন, এ বিষয়ে মহানগর পুলিশ ও স্থানীয় প্রশাসন পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে এবং তা শিগগিরই বাস্তবায়ন শুরু হবে। এছাড়া নগরের ছিনতাই, জুয়াসহ অন্যান্য অপরাধ দমনে আরএমপির সংশ্লিষ্ট ক্রাইম ডিভিশনের ডিসিদের আরও কার্যকরী ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দেন আরএমপি পুলিশ কমিশনার। 

এর আগে মতবিনিময় সভায় সম্মিলিতভাবে বাল্যবিয়ে, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্লাকমেইলিং, ছিনতাই, ব্যাটারিচালিত অটোরিকশার সংখ্যাধিক্যে নগরের যানজট, জুয়াসহ নানা সমস্যার ব্যাপারে পুলিশ কমিশনারকে জানান সভায় উপস্থিত আরসিসির কাউন্সিলররা। 

এ সময় আরএমপি পুলিশ কমিশনার গুরুত্বের সঙ্গে সবার বক্তব্য শোনেন এবং স্থানীয় প্রশাসনকে সঙ্গে নিয়ে মাদক সেবন ও মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্সের নীতির কথা পুনর্ব্যক্ত করেন।

মতবিনিময়কালে উপস্থিত ছিলেন আরএমপির অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার সুজায়েতুল ইসলাম, উপ-কমিশনার (সদর) তানভীর হায়দার চৌধুরী ও বোয়ালিয়া জোনের উপ-কমিশনার আমীর জাফর ও অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (সদর) মো. গোলাম রুহুল কুদ্দুস প্রমুখ।

বাংলাদেশ সময়: ১৭৫৬ ঘণ্টা, এপ্রিল ২০, ২০১৯
এসএস/আরআইএস/

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-04-20 17:57:02