ঢাকা, শুক্রবার, ৮ ভাদ্র ১৪২৬, ২৩ আগস্ট ২০১৯
bangla news

চিঠি চালাচালিতেই থমকে আছে আবরার ফুট ওভারব্রিজের কাজ

শাওন সোলায়মান, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৪-২০ ৯:০৯:১২ এএম
আবরার আহমেদ চৌধুরী ফুট ওভারব্রিজ স্মৃতিফলক। ছবি: বাংলানিউজ

আবরার আহমেদ চৌধুরী ফুট ওভারব্রিজ স্মৃতিফলক। ছবি: বাংলানিউজ

ঢাকা: পরিকল্পনা আর চিঠি চালাচালিতেই থমকে আছে আবরার ফুট ওভারব্রিজের নির্মাণ কাজ। রাজধানীর কুড়িলের প্রগতি সরণিতে দুই মাসের মধ্যে ফুট ওভারব্রিজ নির্মাণের ঘোষণা দিয়েছিলেন মেয়র আতিকুল ইসলাম। তবে ঘোষণার এক মাসেও নির্মাণ কাজ শুরু হয়নি ফুট ওভার ব্রিজটির।

গত ১৯ এপ্রিল নদ্দা প্রগতি সরণির এয়ারপোর্ট-উত্তরাগামী সড়কে বসুন্ধরা সড়কে চলন্ত বাসচাপায় নিহত হন বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালস (বিইউপি) এর শিক্ষার্থী আবরার আহমেদ চৌধুরী। সেদিনই ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র আতিকুল ইসলাম সড়কটিতে দুই মাসের মধ্যে একটি ফুট ওভারব্রিজ নির্মাণের ঘোষণা দেন। তবে ঘোষণার ঠিক এক মাস পেরিয়ে গেলেও ডিএনসিসি ও সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, এখনও নকশা অনুমোদনের কাজই শেষ হয়নি।

আর আবরার আহমেদ চৌধুরী ফুট ওভারব্রিজ স্মৃতিফলকের সামনে দেখা যায়, ফুটপাথ দখল করে দোকান বসিয়েছেন হকাররা।

ডিএনসিসি সূত্রে জানা যায়, সম্পূর্ণ নিজস্ব অর্থায়নে আবরারের নামে ফুট ওভারব্রিজটি বানিয়ে দেবে পিইবি স্টিল অ্যালায়েন্স লিমিটেড নামে একটি প্রাইভেট প্রতিষ্ঠান। প্রাথমিকভাবে এর ব্যয় নির্ধারিত হয়েছে প্রায় ৭০ লাখ টাকা। প্রতিষ্ঠানটির পক্ষ থেকে খসড়া একটি নকশাও তৈরি করা হয়েছে।

তবে সিটি করপোরেশন এখনও চূড়ান্তভাবে অনুমোদন দেয়নি সেই নকশার। উপরন্তু ব্রিজের নকশা, ডিজাইন ও প্ল্যানিং কেমন হবে সেটি নিয়েও কোনো চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হয়নি বলে বাংলানিউজকে জানিয়েছেন ডিএনসিসির কয়েকজন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা। আর এর জন্য বরাবরের মতো একে-ওকে দায়ী করতে দেখা যায় সংশ্লিষ্টদের। তবে তাদের দাবি, ব্রিজটিকে আধুনিক সুযোগ-সুবিধা সম্বলিত ও দৃষ্টিনন্দন করে গড়ে তোলার পরিকল্পনা নিয়ে কাজ করা হচ্ছে।

যে স্থানটিতে ফুট ওভারব্রিজ নির্মাণ হবে সেটির ‘সয়েল টেস্ট’ ফলাফল ‘সন্তোষজনক’ আসেনি বলে বাংলানিউজকে জানিয়েছেন ডিএনসিসির তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী ড. আরিফুর রহমান।

তিনি বলেন, সেখানকার মাটি আমরা কিছুটা নরম পেয়েছি। তাই নকশায় পরিবর্তন আনার কথা ভাবছি আমরা। আরও কিছু ডিজাইন ও প্ল্যানিংয়ের কারণে কাজ কিছুটা দেরি হয়েছে। সেখানে একটি ট্রান্সফরমার আছে ডেসার। আমরা সেটিকে সরিয়ে নেওয়ার জন্য বারবার চিঠি দিয়েছি তাদের। কিন্তু তারা এখনও সেটিকে সরিয়ে নেয়নি। ফলে সরেজমিনে কাজ করতেও আমাদের কিছু অসুবিধা হচ্ছে। এছাড়াও প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা আছে ফুট ওভারব্রিজে চলন্ত সিঁড়ি যোগ করার। সেটি নিয়েও কাজ করছি আমরা। একটি সুন্দর দৃষ্টিনন্দন ফুট ওভারব্রিজ তৈরির পরিকল্পনা আছে আমাদের। তাই কিছুটা দেরি হচ্ছে। তবে আগামী এক মাসের মধ্যে কাজ শেষ হয়ে যাবে।    

তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী এক মাস সময়ের কথা বললেও এ নিয়ে সন্দেহ আছে খোদ সিটি করপোরেশনের অন্য কর্মকর্তাদের। পরিচয় গোপন রাখার শর্তে, ডিএনসিসির প্রকৌশল বিভাগের কয়েকজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা বাংলানিউজকে জানান, আরও অন্তত তিন মাস সময় লাগবে ফুট ওভারব্রিজটির সম্পূর্ণ কাজ শেষ হতে।

প্রায়ই একইরকম তথ্য পাওয়া গেছে পিইবি স্টিল অ্যালায়েন্স লিমিটেডের পক্ষ থেকে। প্রতিষ্ঠানটির সহকারী ব্যবস্থাপক প্রকৌশলী ইফাত জাহান বাংলানিউজকে বলেন, কাজ শুরু হওয়ার পরেও অন্তত একমাস সময় লাগবে এর নির্মাণ কাজ শেষ হতে। তবে আমরা কখন কাজ শুরু করতে পারবো তা এখনও নিশ্চিত না। আমরা একটি খসড়া নকশা ডিএনসিসিকে দিয়েছিলাম। তারা সেখানে কিছু সংশোধনী দিয়েছেন। একইসঙ্গে তাদের নিজস্ব কিছু চাহিদাও আমাদের জানিয়েছেন। সেগুলো সমন্বয় করে আমরা আরেকটি নকশার প্ল্যান রোববার (২১ এপ্রিল) নাগাদ জমা দেবো। সেখানকার মাটি নরম। তাই নতুন করে আবার পরিকল্পনা করে প্রযুক্তির ব্যবহার করতে হবে। সব আনুষ্ঠানিকতা শেষে তারা আমাদের অনুমোদন দিলেই আমরা কাজ শুরু করবো।

এ বিষয়ে মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেন, ব্রিজটির পাইলিংয়ের কাজ শেষ। কিছু পরিবর্তন এসেছে প্ল্যানে। যেমন প্রাথমিক নকশায় ওঠানামার একমুখী পথ ছিল। আমরা সেটির সঙ্গে স্কেলেটর যোগ করেছি। মূলত এসব কারণেই একটু দেরি হচ্ছে। আমি ঘোষণা দিয়েছিলাম দুই থেকে তিন মাসের মধ্যে এখানে ফুট ওভারব্রিজ হবে। ব্যক্তিগতভাবে এটা ফলো আপ করছি। গতকালও এটার ফাইল দেখেছি। ইনশাআল্লাহ এই সময়ের মধ্যেই দ্রুত সুন্দর ও টেকসই একটি ফুট ওভারব্রিজ এখানে আমরা বানাবো।

বাংলাদেশ সময়: ০৯০২ ঘণ্টা, এপ্রিল ২০, ২০১৯
এসএইচএস/এএ

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-04-20 09:09:12