ঢাকা, মঙ্গলবার, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ২১ মে ২০১৯
bangla news

বাগেরহাটে মাদরাসা ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার ১

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৪-১৯ ৭:৪৮:১১ পিএম
ছবি: প্রতীকী

ছবি: প্রতীকী

বাগেরহাট: বাগেরহাটের রামপালে ১০ বছর বয়সী এক মাদরাসা ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে ফেরদৌস শেখ (১৮) নামে এক মুদি দোকানিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

শুক্রবার (১৯ এপ্রিল) দুপুরের দিকে তাকে গ্রফতার করা হয়। নির্যাতিতা উপজেলার একটি মাদরাসার দ্বিতীয় শ্রেণির ছাত্রী। গ্রেফতার ফেরদৌস রামপাল উপজেলার শরাফপুর গ্রামের লুৎফর শেখের ছেলে।

ঘটনার পর থেকে মাদরাসা কর্তৃপক্ষ বিষয়টি ধামা চাপা দেওয়ার চেষ্টা চালায় বলে জানা যায়। তবে এ বিষয়ে মাদরাসা ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি গাজী বোরহান উদ্দিন বাংলানিউজকে বলেন, ঘটনাটি শোনার পর, কে ঘটনা ঘটিয়েছে তা জানার জন্য অপেক্ষা করছিলাম। পরে তিনি এ ঘটনায় দোষীদের শাস্তির দাবি করেন।

মাদরাসার কয়েকজন শিক্ষার্থী জানায়, হোস্টেলের যে কক্ষে মেয়েটি ছিল, ঘটনা জানার পরে ওই কক্ষের অন্য মেয়েদের তাদের পরিবারের লোকজন বাড়ি নিয়ে গেছে। তারা এ ঘটনায় দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানায়।

বাগেরহাটের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মাহফুজ আফজাল বাংলানিউজকে বলেন, মেয়েটির বাড়ি নওগাঁ জেলায়। ফকিরহাটে নানা বাড়িতে থেকে রামপাল উপজেলার একটি মাদরাসার ছাত্রী নিবাসে থেকে পড়াশোনা করে। মাদরাসার সামনের মুদি দোকানি ফেরদৌসের সঙ্গে মেয়েটির পরিচয় হয়। সেই পরিচয়ের সূত্র ধরে গত ১১ এপ্রিল রাতে মুদি দোকানি কৌশলে মেয়েটিকে একটি ঘরে নিয়ে ধর্ষণ করে। 

বৃহস্পতিবার (১৯ এপ্রিল) মেয়েটি ফকিরহাটে গিয়ে তার মামাকে বিষয়টি জানালে পরদিন তারা পুলিশের কাছে অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগ পেয়ে ফেরদৌসকে গ্রেফতার করা হয়।

মেয়েটিকে পুলিশি হেফাজতে নেওয়া হয়েছে। শনিবার (২০ এপ্রিল) বাগেরহাট সদর হাসপাতালে ভিকটিমের ডাক্তারি পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হবে বলে জানান পুলিশের এ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা।

বাংলাদেশ সময়: ১৯৪৮ ঘণ্টা, এপিল ১৯, ২০১৯
জিপি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   ধর্ষণ বাগেরহাট
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14