ঢাকা, বুধবার, ৮ শ্রাবণ ১৪২৬, ২৪ জুলাই ২০১৯
bangla news

কৃত্রিম পা পেলেন সেই রাসেল সরকার

সাভার করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৪-১৮ ১১:২২:৩৪ এএম
কৃত্রিম পা লাগানোর পর রাসেল সরকার। ছবি: বাংলানিউজ

কৃত্রিম পা লাগানোর পর রাসেল সরকার। ছবি: বাংলানিউজ

সাভার, (ঢাকা): রাজধানীর যাত্রাবাড়ীতে গ্রিন লাইন পরিবহনের বাসের চাপায় বাম পা হারানো সেই রাসেল সরকার সাভারের পক্ষাঘাতগ্রস্তদের পুনর্বাসন কেন্দ্র (সিআরপি) থেকে কৃত্রিম পা পেয়েছেন।

বৃহস্পতিবার (১৮ এপ্রিল) সকাল সাড়ে ১০টার দিকে সিআরপির কৃত্রিম অঙ্গ সংযোজন বিভাগের প্রধান মোহাম্মদ শফিক তার বা পা টি সংযুক্ত করেন।

এ বিষয়ে সিআরপির কৃত্রিম অঙ্গ সংযোজন বিভাগের প্রধান মোহাম্মদ শফিক বাংলানিউজকে জানান, রাসেলকে সিআরপির পক্ষ থেকে বিনামূল্যে সুইজারল্যান্ড ইন্টারন্যাশনাল টেকনোলজির পা লাগিয়ে দেওয়া হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, কয়েকদিন আগে তার পায়ের সম্পূর্ণ পরীক্ষা করে দেখা হয়েছে। পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর বৃহস্পতিবার রাসেলের নতুন পা সংযোজন করা হয়েছে। তার এ পা নিয়ে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসতে প্রায় চার সপ্তাহ সময় লেগে যাবে। আর এই সময়ের মধ্যে নতুন এই পা দিয়ে তার চলাফেরাসহ দৈনন্দিন কাজের বিষয়গুলোতেও অনুশীলন করানো হবে বলেও জানান তিনি।কৃত্রিম পা লাগানোর পর হাঁটছেন রাসেল সরকার। ছবি: বাংলানিউজরাসেলের সঙ্গে কথা হলে তিনি বাংলানিউজকে বলেন, পা লাগানোর পর আমার আগের জীবনের কথা মনে পরে গেলো। আজ থেকে এক বছর আগের কথা মনে পরলে আমার গা শিউরে উঠে। সেই সময় মনে হয়েছিলো যেনো মরে যাই। কিন্তু সিআরপিতে এসে আমার নতুন জীবন খুঁজে পেয়েছি৷ ধন্যবাদ সিআরপি ও এই সংস্থার সব কর্মকর্তা-কর্মচারীকে।

সিআরপির নির্বাহী পরিচালক শফিকুল ইসলাম বাংলানিউজকে বলেন, তার এ দুর্ঘটনার কারণে যেমন সবাই এগিয়ে এসেছেন আমরাও আমাদের থেকে তার জন্য কিছু করার চেষ্টা করছি। রাসেলকে আমাদের এখানে যে ধরনের সুবিধা দেওয়া সম্ভব আমরা তাকে সব ধরনের সুবিধা দেবো।

এর আগে গাইবান্ধার পলাশবাড়ীর বাসিন্দা রাসেল সরকার রাজধানীর আদাবর এলাকায় স্থানীয় একটি ‘রেন্ট-এ-কার’ প্রতিষ্ঠানের প্রাইভেটকার চালাতেন।  ২০১৮ সালের ২৮ এপ্রিল মেয়র মোহাম্মদ হানিফ ফ্লাইওভারে কথা কাটাকাটির জেরে গ্রিন লাইন পরিবহনের বাসের চালক ক্ষিপ্ত হয়ে রাসেলকে চাপা দেয়। এতে তার বাম পা বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়।

বাংলাদেশে সময়: ১১১৭ ঘণ্টা, এপ্রিল ১৮, ২০১৯
এএটি

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-04-18 11:22:34