ঢাকা, শুক্রবার, ৫ বৈশাখ ১৪২৬, ১৯ এপ্রিল ২০১৯
bangla news

মোংলা বন্দর উন্নয়ন পরিচালনায় পাওয়ার প্যাক ও সাইফ পোর্ট

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৪-১৬ ৪:৫৪:২৯ এএম
ওয়েস্টিনে আয়োজিত চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠান। ছবি: বাংলানিউজ

ওয়েস্টিনে আয়োজিত চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠান। ছবি: বাংলানিউজ

ঢাকা: সরকারী বেসরকারী অংশীদারিত্বের (পিপিপি) ভিত্তিতে বাগেরহাটের মোংলা বন্দর উন্নয়ন ও পরিচালনার কাজ করবে পাওয়ার প্যাক পোর্টস লিমিটেড ও সাইফ পোর্ট হোল্ডিংস লিমিটেড।

এ উপলক্ষে সোমবার (১৫ এপ্রিল) রাজধানীর হোটেল ওয়েস্টিনে প্রতিষ্ঠান দুটি’র মধ্যে চুক্তি স্বাক্ষর হয়। চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন পাওয়ার প্যাক পোর্টস লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক রন হক শিকদার ও সাইফ পোর্ট হোল্ডিংস লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক তরফদার মো. রুহুল আমিন।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. আবদুস সামাদ। আরও উপস্থিত ছিলেন পিপিপি কর্তৃপক্ষের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আল কামা সিদ্দিকী, মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান কমোডর ফারুক হাসান প্রমূখ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে আব্দুস সামাদ বলেন, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় দেশের মেগা প্রকল্পগুলো বাস্তাবায়নে কাজ করছে নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়। আমরা আশা করছি মোংলা বন্দরের সংস্কার ও উন্নয়ন পদ্মা সেতুর  নির্মাণ কাজ শেষ হওয়ার আগেই করা যাবে।

তিনি আরও বলেন, মোংলা বন্দর এখনই লাভজনক। উন্নয়ন কাজগুলো পুরোপুরি সম্পন্ন হলে যোগযোগ ব্যবস্থা আরো উন্নত এবং বন্দর ব্যবহার হবে বর্তমানের চেয়ে সাশ্রয়ী।

দেশের অবকাঠামো এবং বন্দর উন্নয়নের বিদেশীদের বিপুল সাড়া পাচেছন জানিয়ে তিনি বলেন, ইতিমধ্যে চীন, সিঙ্গাপুর, আবর-আমিরাতসহ বিভিন্ন দেশের বিনিয়োগকারীরা নৌপরিবহন দপ্তরে আসছেন।

অনুষ্ঠানে পাওয়ার প্যাক পোর্টস লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক রন হক শিকদার বলেন, বঙ্গবন্ধু’র স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়তে ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার রূপকল্প ২০২১ ও টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্য মাত্রা বাস্তবায়নে শিকদার গ্রুপ কাজ করে যাচেছ।

সাইফ পোর্ট হোল্ডিংস লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক তরফদার রুহুল আমিন বলেন, এই প্রথম কোন বেসরকারী প্রতিষ্ঠান বন্দর উন্নয়ন ও পরিচালনার দায়িত্ব পাচ্ছে। এতে বেসরকারী উদ্যেক্তা হিসেবে আমরা ভীষণ গর্বিত।

তিনি বলেন, সাইফ পোর্ট হোল্ডিং মোংলা বন্দরের দুটি জেটি নির্মানের কাজ করবে ও আগামী ৩০ বছর এই বন্দর পরিচালনা করবে। ইতিমধ্যে উন্নয়নের কাজ শুরু হয়েছে। ২০২০ সালের শেষ নাগাদ এর কার্যক্রম শুরু হবে বলে আমরা আশা করছি।

এর আগে ২০১৬ সালের ২১ আগস্ট মোংলা বন্দরের অসম্পুর্ণ ৩ ও ৪ নম্বর জেটি নির্মাণের কাজ পায় পাওয়ার প্যাক পোর্টস লিমিটেড। সেই কাজে সাইফ পোর্ট হোল্ডিংসকে যুক্ত করে নতুন চুক্তি স্বাক্ষর করা হয় সোমবার (১৫ এপ্রিল)।

বাংলাদেশ সময়: ০৪৫৪ ঘণ্টা, এপ্রিল ১৬, ২০১৯
এসই/এইচএমএস

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14