ঢাকা, শনিবার, ৩ আশ্বিন ১৪২৭, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০০ সফর ১৪৪২

জাতীয়

‘আদরই ফেনসিডিল খাওয়া শেখাল আদরকে’

সানি সরকার, জেলা প্রতিনিধি | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭০৫ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ১, ২০১০
‘আদরই ফেনসিডিল খাওয়া শেখাল আদরকে’

দিনাজপুর: তিন বছরের শিশু আদর। মিষ্টি চেহারার নাদুস-নুদুস স্বাস্থ্যের এই শিশুটিকে দেখে যে কারোরই আদর করার ইচ্ছে জাগবে।

অথচ আদরের জন্য এই আদরই কাল হয়ে দাঁড়িয়েছে। এখন সে ফেনসিডিল আসক্ত। প্রতিদিন অর্ধেক বোতল না হলে শুরু হয় তার ছটফট, কান্নাকাটি।

গল্পের মতো শোনালেও এটি সত্যি ঘটনা। দিনাজপুরের হিলি সীমান্তের চুড়িপট্টি এলাকায় আদরদের বসতভিটা। তার বাবা মো. আবির আলী নিষিদ্ধ নেশাদ্রব্য ফেনসিডিল বিক্রির সঙ্গে যুক্ত। প্রতিদিন সন্ধ্যার পর খদ্দেররা ভিড় জমান তাদের বাড়িতে। এ সময় অনেক খদ্দেরই আদর করতে কাছে ডেকে নিয়ে এক ফোটা-দু’ফোটা ফেনসিডিল খেতে দিতেন আদরকে। আর এতেই ধীরে ধীরে নেশাগ্রস্ত হয়ে পড়ে সে।

মো. আবির আলী বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম.বিডিকে বলেন, ‘আগস্ট মাসে আদরের বয়স ৩ বছর ২ মাস পূর্ণ হয়েছে। আমার অগোচরেই খদ্দেররা আদরকে একটু একটু করে ফেনসিডিলে আসক্ত করে ফেলেছে। আমি এই আসক্তি থেকে মুক্ত করতে ডাক্তারের পরামর্শ নিয়েছি। ’

হাকিমপুর পৌরসভার কাউন্সিলর ওয়াহেদ মুরাদ বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম.বিডির কাছে এর সত্যতা স্বীকার করেছেন।

এ ব্যাপারে দিনাজপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ডা. এসএম শামসুল আলম বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম.বিডিকে জানান, কোনো শিশু ফেনসিডিলে আসক্ত হলে ভবিষ্যতে তার অনেক ধরনের সমস্যা হতে পারে। সময়মতো পদক্ষেপ না নিলে বিভিন্ন পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা দেবে।

হাকিমপুর থানার অফিসার ইন চার্জ (ওসি) হেলাল উদ্দিন বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম.বিডিকে বলেন, ‘ব্যাপারটি আমি জানি না। এ ব্যাপারে খোঁজ খবর নেওয়া হবে। এমন ঘটনা ঘটলে শিশু ও মহিলা বিষয়ক কমর্কতার মাধ্যমে শিশুটির চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হবে। ’

বাংলাদেশ সময়: ১৭০০ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ০১, ২০১০

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa