ঢাকা, বুধবার, ১৩ আষাঢ় ১৪২৬, ২৬ জুন ২০১৯
bangla news

এক সন্তান প্রসবের ২৬ দিন পর ফের জমজ জন্মদান

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৩-২৬ ৫:৫৪:২৯ এএম
সুমন জানান, সৃষ্টিকর্তার দান হিসেবে তিন সন্তান পেয়ে তিনি খুশি। ছবি: বাংলানিউজ

সুমন জানান, সৃষ্টিকর্তার দান হিসেবে তিন সন্তান পেয়ে তিনি খুশি। ছবি: বাংলানিউজ

যশোর: যশোরে এক সন্তান জন্ম দেওয়ার ২৬ দিন পর ফের জমজ সন্তানের জন্ম দিয়েছেন আরিফা সুলতানা ইতি নামে এক মা।

গত ২৫ ফেব্রুয়ারি খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রথম ছেলে শিশুর জন্ম হওয়ার পর ২২ মার্চ যশোর আদ্-দ্বীন হাসপাতালে আরিফা ফের এক ছেলে ও এক মেয়ে শিশুর জন্ম দেন।

আরিফা জেলার শার্শা উপজেলার শ্যামলাগাছি গ্রামের সুমন বিশ্বাসের স্ত্রী।

তার দ্বিতীয় দফায় যমজ সন্তান জন্ম দেওয়ার পর বিষয়টি সোমবার (২৫ মার্চ) জানাজানি হয়। এ ঘটনায় গোটা এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, আরিফা অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার সাড়ে ৬ মাসের মাথায় প্রথম ছেলে শিশুটির জন্ম দেন। তার ২৬ দিন পর জন্ম দেন ওই যমজ শিশু। 

তার স্বামী সুমন বিশ্বাস বাংলানিউজকে জানান, গত ২৩ ফেব্রুয়ারি আরিফা অসুস্থতাবোধ করলে তাকে যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যান। প্রায় ঘণ্টাখানেক পর চিকিৎসকরা আরিফাকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পরামর্শ দেন। সেখানে গেলে প্রথম বাচ্চা হিসেবে ছেলে সন্তান জন্ম নেয়। ২৬ দিন পর গত শুক্রবার (২২ মার্চ) আরিফা আবারও অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে যশোর আদ্-দ্বীন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়, সেখানে পুনরায় ওই যমজ সন্তান জন্ম নেয়। 

সুমন জানান, সৃষ্টিকর্তার দান হিসেবে তিন সন্তান পেয়ে তিনি খুশি। সন্তান ও স্ত্রীর সুস্থতাও কামনা করেন তিনি।

এ বিষয়ে যশোর আদ্-দ্বীন হাসপাতালের গাইনী চিকিৎসক ডা. শীলা পোদ্দার বাংলানিউজকে বলেন, আমি নিজেও এ ধরনের ঘটনা প্রথম দেখলাম। আগে এমন ঘটনা শুনিওনি। 

তিনি বলেন, দ্বিতীয় দফায় প্রসূতির প্রসব বেদনা উঠলে আদ্-দ্বীন হাসপাতালে আনার পর আমরা বিষয়টি বুঝতে পারিনি। তবে অপারেশনের শেষ পর্যায়ে বুঝতে পারি, প্রসূতির জরায়ু দু’টো। যার একটিতে এক ছেলে সন্তান এবং অপরটিতে দু’টি সন্তান ছিল (একটি ছেলে ও একটি মেয়ে)। প্রথমে যে জরায়ুতে একটি বাচ্চা ছিল সেটি আগে ডেলিভারি হয়। পরে আমাদের কাছে আনলে তার আরও দু’টি বাচ্চা ডেলিভারি হয়।

বাংলাদেশ সময়: ০৫৪৭ ঘণ্টা, মার্চ ২৬, ২০১৯
ইউজি/এইচএ/

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-03-26 05:54:29