ঢাকা, রবিবার, ৮ বৈশাখ ১৪২৬, ২১ এপ্রিল ২০১৯
bangla news

বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক উৎসবে ৭১’র কালো রাতকে স্মরণ

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৩-২৫ ৮:৩৩:৫৮ পিএম
শহীদদের স্মরণে মোমবাতি প্রজ্জ্বলন করছেন সিটি মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটনসহ অন্যরা। ছবি: বাংলানিউজ

শহীদদের স্মরণে মোমবাতি প্রজ্জ্বলন করছেন সিটি মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটনসহ অন্যরা। ছবি: বাংলানিউজ

রাজশাহী: বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক উৎসবে ৭১’র কালো রাতকে স্মরণ করা হয়েছে। সোমবার (২৫ মার্চ) রাজশাহী নগর ভবনের গ্রিনপ্লাজায় শহীদ পরিবারের সদস্যরা তাদের ৭১’র স্মৃতি তুলে ধরেন। এসময় সেখানকার পরিবেশ ভারী হয়ে ওঠে।

এসময় মঞ্চে শহীদ পরিবারের সদস্যদের মধ্যে অধ্যাপিকা মাসতুরা খানম, চম্পা সমাদ্দার, শাহীনা বেগম ও সঞ্জীব কুমার হালদার উপস্থিত ছিলেন। 

আলোচনা শেষে তাদের উত্তরীয় পরিয়ে দেন এবং ফুল দিয়ে সংবর্ধিত করেন মুক্তিযোদ্ধা ও রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভপাতি নওশের আলী। 

এর আগে বিকেল ৫টায় বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক উৎসবের নবম দিনের আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয়। অনুষ্ঠানের শুরুতেই ২৫ মার্চের সেই ভয়াবহতাকে স্মরণ করে বিকেলে সংগীত পরিবেশন করেন রাজশাহী পঞ্চম সংগীত বিদ্যালয়ের শিল্পীরা।  

এরপর ২৫ মার্চ কালরাতে শহীদদের স্মরণে মোমবাতি প্রজ্জ্বলন করা হয়। মোমবাতি প্রজ্জ্বলন করেন উৎসবের প্রধান পৃষ্ঠপোষক সিটি মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন। এসময় মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মালেক চৌধুরীসহ অনেকে উপস্থিত ছিলেন।

এরপর স্বরচিত কবিতা পাঠ করেন আহাকামউল্লাহ ও মাসকুর-ই-সাত্তার কল্লোল। শেষে গম্ভীরা পরিবেশন করা হয়। আর গীতি নৃত্যনাট্য উপস্থাপন করে চিন্তক থিয়েটার।  

রাজশাহী সিটি করপোরেশনের মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটনের পৃষ্ঠপোষকতায় গত ১৭ মার্চ থেকে শুরু হয়েছে এ উৎসব। উৎসবের জন্য নগর ভবনের গ্রিনপ্লাজায় মূল মঞ্চ করা হলেও মহানগরের বিভিন্ন স্থানে চলছে এর আনুষ্ঠানিকতা। ফলে পুরো মহানগরেই লেগেছে সাংস্কৃতিক উৎসবের ছোঁয়া।

তাই ৭ মার্চের পর থেকেই রাজশাহীতে সাংস্কৃতির উৎসবে যোগ হয়েছে নতুন মাত্রা। সন্ধ্যা নামলেই মানুষ দল বেঁধে আসছেন নগর ভবনের গ্রিনপ্লাজায়। 

সাংস্কৃতিক উৎসবের নানা আয়োজনের মধ্যে থাকছে শিশুদের বিভিন্ন প্রতিযোগিতা, বইমেলা, গুণীজন সংবর্ধনা, কবিতা উৎসব, সেমিনার ও সাংস্কৃতিক উৎসব।

বাংলাদেশ সময়: ২০৩১ ঘণ্টা, মার্চ ২৫, ২০১৯
এসএস/আরবি/

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14