ঢাকা, শনিবার, ৩ আশ্বিন ১৪২৭, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০০ সফর ১৪৪২

জাতীয়

রাজশাহীতে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ২

জেলা প্রতিনিধি | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০১০২ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ১, ২০১০

রাজশাহী: রাজশাহীর বায়াবাজারে মঙ্গলবার রাতে বাসের ধাক্কায় নিহত হয়েছেন ভটভটি আরোহী দুই ব্যক্তি। এ ঘটনায় বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী রাত সাড়ে ১২টা পর্যন্ত রাজশাহী-নওগাঁ মহাসড়ক অবরোধ করে রাখে।



দুর্ঘটনায় নিহতরা হলেন পবা উপজেলার বাকশইল গ্রামের আব্দুল মজিদের পুত্র এন্তাজ আলী (৪০) এবং অপরজন একই গ্রামের ছফু উদ্দিনের পুত্র এন্তাজ (৩০)।
 
প্রত্যদর্শী সরকার দুলাল নামে একজন বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম.বিডিকে জানান, রাত সাড়ে ১০টার দিকে বায়াবাজারের পাশের রাস্তা থেকে একটি ভটভটি মহাসড়কে ওঠার সময় রাজশাহীর উদ্দেশে নওগাঁ থেকে আসা হৃদয় পরিবহনের (রাজ-মেট্রো-জ-১১-০০৮২) যাত্রীবাহী বাস সেটিকে ধাক্কা দিলে ঘটনাস্থলেই এন্তাজ আলী মারা যান।

গুরুতর আহত এন্তাজ নামের অপরজনকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হলে একটু পরেই তারও মৃত্যু হয় বলে জানান তিনি।

দুর্ঘটনার পর স্থানীয়রা বায়াবাজারের সড়ক অবরোধ করলে রাত সাড়ে ১২টা পর্যন্ত নওগাঁ-রাজশাহী মহাসড়কে যান চলাচল বন্ধ থাকে। পরে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।
 
দুর্ঘটনার পর পালিয়ে গেলেও ঘাতক বাস ও চালককে পুঠিয়ার বেলপুকুর চেকপোস্ট থেকে আটক করে মতিহার থানা পুলিশ।

এদিকে, চালক আটক এবং পুলিশ তাকে মারধরের খবর ছড়িয়ে পড়লে বিুব্ধ শ্রমিকরা বাস টার্মিনালে বিােভ প্রদর্শন করে।

এর প্রতিবাদে রাতেই সব কাউন্টার বন্ধ করে দিয়ে বুধবার থেকে রাজশাহী জেলা মোটর শ্রমিক ইউনিয়ন ধর্মঘটের ডাক দেয়।

পরে পুলিশ প্রশাসনের সঙ্গে বৈঠক করে রাত ২টায় ধর্মঘটের সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করে নেওয়া হয় বলে বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম.বিডিকে জানান রাজশাহী জেলা মোটর শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি কামাল হোসেন রবি।

শাহ মখদুম থানার ওসি ফজলুল হক বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম.বিডিকে জানান, ‘বিষয়টি নিয়ে শ্রমিক নেতাদের সঙ্গে সমঝোতা হয়েছে। ’

নিহতদের লাশ রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে রয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ১২৪৫ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ০১, ২০১০

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa