ঢাকা, মঙ্গলবার, ১১ আষাঢ় ১৪২৬, ২৫ জুন ২০১৯
bangla news

গাজীপুরে বেড়েছে চুরি-ছিনতাই 

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৩-১৬ ৬:৫০:৫৬ এএম
প্রতীকী ছবি

প্রতীকী ছবি

গাজীপুর: শিল্পাঞ্চল গাজীপুরের বিভিন্ন এলাকায় ব্যাপকহারে বেড়েছে চুরি, ছিনতাই ও চাঁদাবাজি। এসব ঘটনা প্রায় প্রতিদিনই ঘটছে গাজীপুরে। তবে এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট থানাগুলোতে নেই তেমন কোনো অভিযোগ।

স্থানীয় বাসিন্দা ও গার্মেন্টস শ্রমিকরা জানান, গাজীপুর সিটি করপোরেশনের কোণাবাড়ি, আমবাগ, জরুন, চান্দনা চৌরাস্তা, বোর্ড বাজার, টঙ্গী স্টেশন রোড, গাজীপুরা ও টঙ্গী বাজারসহ বিভিন্ন এলাকায় প্রায় প্রতিদিন ঘটছে চুরি, ছিনতাই, চাঁদাবাজির ঘটনা। 

বিশেষ করে গার্মেন্টস শ্রমিকরা যখন প্রতিমাসে ১ থেকে ১৫ তারিখের মধ্যে বেতন পান তখন ছিনতাইকারীদের উৎপাত বেড়ে যায়। অনেক শ্রমিক ছিনতাইকারীদের কবলে পড়ে মাস শেষে বেতনের টাকা বাড়ি নিয়ে যেতে পারেন না। ছিনিয়ে নেওয়া হয় মোবাইল, ঘড়ি ইত্যাদি। 

মেট্রোপলিটন থানা থেকে প্রায় আধা কিলোমিটার দূরের এলাকায় দিনে-দুপুরে চুরির ঘটনা ঘটছে অহরহ। গত ৬ মার্চ কোণাবাড়ি থানাধীন জরুন এলাকার আলাল মিয়ার ভাড়া বাড়িতে চারজন গার্মেন্টস শ্রমিকের কক্ষের তালা ভেঙে নগদ টাকা, চার্জার ফ্যান ও মোবাইলসহ প্রয়োজনীয় জিনিস চুরির ঘটনা ঘটে। এর কয়েকদিন আগে কোণাবাড়ি হাউজিং এলাকায় মো. রাজীবের ফ্ল্যাট বাসা থেকে দিনে দুপুরে গেটের তালা ভেঙে বৈদ্যুতিক তার, সুইস, সার্কিট বেকারসহ ইলেক্ট্রিক জিনিসপত্র চুরি হয়। 

গত ৭ মার্চ রাতে আমবাগ এলাকায় ছিনতাইয়ের প্রস্তুতিকালে ৩ ছিনতাইকারীকে আটক করে র‌্যাব-১ সদস্যরা। গত কয়েকদিন আগে কোণাবাড়ি এলাকায় সমীর নামে এক কাপড় ব্যবসায়ীর ২৪ হাজার টাকা দামের একটি মোবাইল চুরি হয়ে যায়। পরে তিনি কোণাবাড়ি থানায় একটি জিডি করেন। 

টঙ্গী বাজার এলাকার গার্মেন্টস শ্রমিক স্বপন আকবর জানান, বেশ কিছুদিন আগে কারখানা থেকে ফেরার পথে অল্প বয়সের কয়েকজন তরুণ চাকু হাতে তার গতিরোধ করে। পরে মেরে ফেলার ভয় দেখিয়ে তার কাছে থাকা নগদ ৬০০ টাকা ও একটি মোবাইল ছিনিয়ে নেয়। 

কোণাবাড়ি থানাধীন জরুন এলাকার গার্মেন্টস শ্রমিক মো. মমিন জানান, গত ৬ মার্চ সকালে তিনি কারখানায় চলে যান। সকাল সাড়ে ১০টার দিকে খবর পান তার ভাড়া বাসায় চুরি হয়েছে। পরে বাসায় গিয়ে তিনি দেখেন তার কক্ষের তালা ভেঙেএকটি চার্জার ফ্যান ও নগদ ৮শ টাকা চুরি হয়ে গেছে। 

জাহাঙ্গীর আলম নামে এক গার্মেন্টস শ্রমিক জানান, একই দিন তার বাসায় চুরি হয়। এ সময় তার তার ঘরের তালা ভেঙে একটি মোবাইল ও নগদ ৫শ টাকা চুরির ঘটনা ঘটে। এ নিয়ে থানায় কোনো অভিযোগ দেননি তিনি। 

আমবাগ এলাকার এক ব্যবসায়ী জানান, গত ৮ মার্চ সন্ধ্যায় তার মোটরসাইকেলের ডিজিটাল নম্বর প্লেট চুরি হয়ে যায়। পরে তিনি থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন। 

গাজীপুর মেট্রোপলিটনের উপ-পুলিশ কমিশনার (ক্রাইম) মো. শরিফুর রহমান জানান, বিষয়টি আমাদের জানা আছে। গাজীপুর মেট্রোপলিটনের বিভিন্ন থানা এলাকা থেকে প্রায় ৪শ জন ছিনতাইকারীকে আটক করা হয়েছে এবং তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। এ ব্যাপারে পুলিশ সতর্ক রয়েছে। 

বাংলাদেশ সময়: ০৬৪৮ ঘণ্টা, মার্চ ১৬, ২০১৯
আরএস/এএ

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-03-16 06:50:56