ঢাকা, রবিবার, ১০ চৈত্র ১৪২৫, ২৪ মার্চ ২০১৯
bangla news

‘আসিফ নজরুলের পরিবার পা‌কিস্তানপ‌ন্থী বিহারী’

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৩-১৫ ৩:১৯:১০ পিএম
জাতীয় প্রেসক্লাবে গোলটেবিল বৈঠকে বক্তারা/ছবি: শাকিল

জাতীয় প্রেসক্লাবে গোলটেবিল বৈঠকে বক্তারা/ছবি: শাকিল

ঢাকা: ঢাকা বিশ্ব‌বিদ্যালয়ের অধ্যাপক আ‌সিফ নজরুলের পরিবার পাকিস্তানপন্থী বিহারী এবং তিনি একজন রাজাকার বলে মন্তব্য করেছেন অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি শামসুদ্দিন চৌধুরী মানিক।

শুক্রবার (১৫ মার্চ) জাতীয় প্রেসক্লাবের তোফাজ্জল হোসেন মানিক মিয়া হলে জাগো বাংলা ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে ‘বঙ্গবন্ধু: বাংলাদেশ ও স্বাধীনতা’ শীর্ষক গোলটেবিল বৈঠকে তিনি এসব মন্তব্য করেন।

তিনি বলেন, আসিফ নজরুল কিন্তু বিহারি বাবার সন্তান। অনেক বিহারী কিন্তু আমাদের সঙ্গে ছিলেন, আমাদের সঙ্গে যুদ্ধ করেছেন। কিন্তু আসিফ নজরুলের পরিবার কিন্তু সেই বিহারী নন। তার প‌রিবার পা‌কিস্তানপ‌ন্থী বিহারী।

অবসরপ্রাপ্ত এ বিচারপতি ব‌লেন, অধ্যাপক এরশাদুল বারী তিনি আর একজন রাজাকার। তার সহায়তায় আসিফ নজরুল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে পিএইচডি করেন এবং শিক্ষকতা করার সুযোগ পেয়েছে। আসিফ নজরুল একজন রাজাকার।

গোলটেবিলের আরেক আলোচক আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য মোজাফফর হোসেন পল্টু বলেন, বঙ্গবন্ধুর কঠিন সংগ্রামে এ দেশ স্বাধীন হয়েছে। কারো বাঁশির হুইসে‌লে এ দেশ স্বাধীন হয়নি। তারা সেই বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে যারা কটূক্তি করে। ত‌বে হাজার চেষ্টা করলেও তাদের এ কটূ‌ক্তি থেকে বিরত রাখতে পারবেন না। এদের থেকে আমাদের সবসময় দূরে থাকতে হবে।

ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটির ভিসি অধ্যাপক আব্দুল মান্নান চৌধুরী লিখিত বক্তব্যে বলেন, চুটিয়ে প্রচার করা হয়, জিয়াউর রহমানের ডাকে সাড়া দিয়ে জাতি যুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়ে। কিন্তু জিয়ার জীবদ্দশায় বিতর্কটি জমেনি। ইতিহাস ও জিয়ার লিখিত স্বীকারোক্তিকে অস্বীকার করা যায়নি বলে বাড়াবাড়িটা মাত্রা ছাড়ায়নি।

খালেদা জিয়ার প্রধানমন্ত্রীত্বের সময় ২৭ মার্চকে ২৬ মার্চ বানিয়ে বসে। অবস্থাদৃষ্টে মনে হচ্ছিল, আর একটা সুযোগ পেলেই জিয়া শুধু ঘোষকই নন, বাংলাদেশের জাতীয়তাবাদীদের পিতৃ-পুরুষে রূপান্তরিত হতেন।
 
বৈঠকে নিরাপত্তা বিশ্লেষক মেজর জেনারেল অবসরপ্রাপ্ত মোহাম্মদ আলী শিকদার, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব সৈয়দ হাসান ইমাম, সম্প্রতি বাংলাদেশের আহ্বায়ক পীযূষ বন্দ্যোপাধ্যায়, ডিইউজের সাধারণ সম্পাদক সোহেল হায়দার চৌধুরী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৫১৪ ঘণ্টা, মার্চ ১৫, ২০১৯
ইইউডি/এসএইচ

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14