ঢাকা, মঙ্গলবার, ৭ আশ্বিন ১৪২৭, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৩ সফর ১৪৪২

জাতীয়

গভীর সমুদ্রের দু’টি ব্লক পাচ্ছে মার্কিন কোম্পানি কনোকো

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৮২৫ ঘণ্টা, আগস্ট ৩১, ২০১০
গভীর সমুদ্রের দু’টি ব্লক পাচ্ছে মার্কিন কোম্পানি কনোকো

ঢাকা: গভীর সমুদ্রে তেল-গ্যাস অনুসন্ধানে বিরোধপূর্ণ অঞ্চলসহ দু’টি ব্লক যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক বহুজাতিক কোম্পানি কনোকো ফিলিপসকে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। তবে দেশ ভারত ও মিয়ানমারের সঙ্গে বিরোধপূর্ণ এলাকা নিয়ে মিমাংসা না হওয়া পর্যন্ত ওই এলাকায় কনোকো কোনো কাজ করতে পারবে না।

গভীর সমুদ্রের এই ব্লক দু’টি হল ১০ ও ১১।

শিগগিরই সরকারের এই সিদ্ধান্ত আনুষ্ঠানিকভাবে কনোকোকে জানানো হবে বলে জানিয়েছেন জ্বালানি মন্ত্রণালয়ের নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ঊর্ধ্বতন এক কর্মকর্তা।

বিদ্যুৎ ও জ্বালানি মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে মঙ্গলবার প্রতিমন্ত্রী এনামুল হকের সভাপতিত্বে গভীর সমুদ্রে তেল-গ্যাস অনুসন্ধান ও কনোকোর বিষয়ে এক সভা অনুষ্ঠিত হয়। প্রধানমন্ত্রীর জ্বালানি বিষয়ক উপদেষ্টা ড. তৌফিক-ই-ইলাহী, জ্বালানি সচিব মোহাম্মদ মেজবাহউদ্দিনসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা সভায় উপস্থিত ছিলেন।

প্রসঙ্গত, ২০০৮ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে বিগত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সময় গভীর সমুদ্রে তেল-গ্যাস অনুসন্ধানের জন্য তৃতীয় দফা আর্ন্তজাতিক দরপত্র আহ্বান করা হয়। এতে মোট আটটি ব্লকের জন্য যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক কনোকো ফিলিপসকে নির্বাচিত হয়। ব্লকগুলো হল  ১০, ১১, ১২, ১৫, ১৬, ১৭, ২০ ও ২১ নম্বর।

পরে বর্তমান সরকার ক্ষমতায় এসে তৃতীয় দফা আর্ন্তজাতিক দরপত্রের বিপরীতে নির্বাচিত কোম্পানিগুলোকে যে ব্লকগুলো দেওয়া হয়েছে তা পুনর্বিবেচনা করে। পুনর্বিবেচনা করে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে কনোকো ফিলিপসকে দু’টি ব্লক দেওয়া হয়।

এ ব্যাপারে পেট্রোবাংলার চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. হোসেন মনসুর বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম.বিডি’কে জানান, গভীর সমুদ্রে তেল-গ্যাস অনুসন্ধান বিষয়ে গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

এর বেশি তিনি কোনো কথা বলতে চাননি।

বাংলাদেশ সময়: ২০০৭, ৩১ আগস্ট, ২০১০

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa