ঢাকা, সোমবার, ১১ চৈত্র ১৪২৫, ২৫ মার্চ ২০১৯
bangla news

সুপারিশের ৯ বছর পরেও স্থায়ী হয়নি চাকরি

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০২-২২ ৫:৫৪:৩৩ পিএম
বিশ্ববিদ্যালয়ের ভোজনালয় শ্রমিক

বিশ্ববিদ্যালয়ের ভোজনালয় শ্রমিক

রাজশাহী: রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ভোজনালয় শ্রমিকদের চাকরি স্থায়ীকরণের সুপারিশের ৯ বছর পেরিয়ে গেলেও স্থায়ী হয়নি চাকরি। ভোজনালয় শ্রমিকদের দীর্ঘদিনের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে ২০১৩ সালে বিশ্ববিদ্যালয়ের ৪৩০তম সিন্ডিকেট সভায় চাকরি স্থায়ীকরণে প্রচলিত বেতন স্কেলে চাকরিবিধি প্রণয়নসহ একাধিক সুপারিশ করা হয়। কিন্তু এর ৯ বছর পরেও তাদের চাকরি স্থায়ী হয়নি। 

সিন্ডিকেটের সুপারিশের পরেও চাকরি স্থায়ী না হওয়ায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ভোজনালয় শ্রমিকরা ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। তাদের অভিযোগ, ভোজনালয় শ্রমিকরা অস্থায়ী ভিত্তিতে অতি স্বল্প বেতনে চাকরি করছেন। দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতির কারণে এতো স্বল্প বেতনে তাদের মানবেতর জীবন অতিবাহিত করতে হচ্ছে। 

বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেটে সুপারিশের পরও তার বাস্তবায়ন না হওয়া অত্যন্ত হতাশাজনক। তবে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের দাবি, তাদের চাকরি স্থায়ীকরণ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের (ইউজিসি) অনুমোদনের উপর নির্ভর করছে। ইউজিসি অনুমোদন দিলেই তাদের চাকরি স্থায়ী হবে। তাছাড়া বিশ্ববিদ্যালয়ের আর্থিক অবস্থার ওপরও তা নির্ভর করছে।

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা যায়, ভোজনালয় শ্রমিকরা চাকরি স্থায়ী করার দাবিতে দীর্ঘদিন ধরে দাবি জানিয়ে আসছেন। তাদের অব্যাহত দাবির পরিপ্রেক্ষিতে ২০১০ সালে বিশ্ববিদ্যালয়ের ৪৩০তম সিন্ডিকেট সভায় ১৩ নম্বর সিদ্ধান্তে ভোজনালয় ইউনিয়নের দাবি বিবেচনা করার জন্য ইতিহাস বিভাগের অধ্যাপক চিত্তরঞ্জন মিশ্রকে আহ্বায়ক করে পাঁচ সদস্যের একটি কমিটি গঠন করা হয়। 

কমিটি ভোজনালয় শ্রমিকদের চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারীদের প্রচলিত বেতন স্কেলে চাকরিবিধি প্রণয়ন, জ্যেষ্ঠতার ভিত্তিতে নিয়োগ ও নিয়োগের ক্ষেত্রে কোটা সংরক্ষণের জন্য সুপারিশ করা হয়। কিন্তু সুপারিশের কোনোটাই বাস্তবায়ন হয়নি।

জানতে চাইলে অধ্যাপক চিত্তরঞ্জন মিশ্র বাংলানিউজকে বলেন, শ্রমিকদের দাবিগুলো যাচাই-বাছাই করে সার্বিক দিক বিবেচনায় সুপারিশ করা হয়েছিলো। কিন্তু এর বাস্তবায়ন ইউজিসির অনুমোদন ও বিশ্ববিদ্যালয়ের আর্থিক অবস্থার উপর নির্ভর করছে। তাই বাস্তবায়নে বিলম্ব হচ্ছে।

গত বুধবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) ভোজনালয় শ্রমিক ইউনিয়ন চাকরি স্থায়ীকরণের দাবি বাস্তবায়ন না হওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করে বিজ্ঞপ্তি দিয়েছেন। এ দাবিতে তারা বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন বরাবর লিখিত আবেদনও জমা দিয়েছেন।

জানতে চাইলে ভোজনালয় শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি হকসাদ আলি বলেন, আমাদের দাবিগুলো প্রশাসনের কাছে অনেক আগে উত্থাপন করেছি। দাবিগুলো সুপারিশ করা হলেও তার বাস্তবায়ন এখনও হয়নি। আমরা দাবিগুলো পুনরায় বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কাছে লিখিতভাবে দিয়েছি। শিগগিরই এর বাস্তবায়ন চাই।

দৃষ্টিআকর্ষণ করা হলে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক আনন্দ কুমার সাহা বলেন, তাদের দাবিগুলো লিখিত আকারে উপাচার্য দফতরে দিয়েছে বলে শুনেছি। এখন বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন তাদের দাবি বিবেচনা করবে।

বাংলাদেশ সময়: ১৭৪৭ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২২, ২০১৯ 
এসএস/এএ

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
db