ঢাকা, শুক্রবার, ২৩ শ্রাবণ ১৪২৭, ০৭ আগস্ট ২০২০, ১৬ জিলহজ ১৪৪১

জাতীয়

বিক্ষুব্ধ ওয়াসা শ্রমিকদের শান্ত করলেন মন্ত্রী

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১৪৭ ঘণ্টা, জানুয়ারী ২৪, ২০১৯
বিক্ষুব্ধ ওয়াসা শ্রমিকদের শান্ত করলেন মন্ত্রী শ্রমিকদের শান্ত করছেন মন্ত্রী-ছবি-শাকিল আহমেদ

ঢাকা: ওভার টাইমের টাকা কম দেয়া, চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ বন্ধসহ নানা দুর্নীতির অভিযোগ এনে ওয়াসার ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) তাকসিম এ খানের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ করেন ক্ষুব্ধ শ্রমিকরা। এসময় তারা তার পদত্যাগ দাবি করেন। সকাল ৮টা থেকে তারা ওয়াসা ভবনের সামনে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন। 

একই সময় ওয়াসা ভবনে প্রতিষ্ঠানটির কর্মকর্তাদের নিয়ে মতবিনিময় সভা করছিলেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় (এলজিআরডি) মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম।  

সভায় মন্ত্রী এ আন্দোলনের বিষয়ে জানতে চাইলে কর্মকর্তারা বিষয়টি এড়িয়ে যান।

শেষে নিজে গিয়ে বিক্ষোভ পালন করা শ্রমিকদের সঙ্গে কথা বলেন। তাদের ন্যায্য তারা পাবেন বলে আশ্বাস দেন। একইসঙ্গে সব দুর্নীতি দূর করা হবে বলে ঘোষণা দেন। পরে মন্ত্রীর আশ্বাসে বিক্ষোভ কর্মসূচি স্থগিত করেন বিক্ষুব্ধ শ্রমিকরা।  

মন্ত্রী চলে যাওয়ার পর পরই তারা এমডির ওপর চড়াও হন। এমডির পদত্যাগ দাবি করে স্লোগান দিতে থাকেন। শ্রমিকদের তোপের মুখে পড়ে এমডি দ্রুত ওয়াসা ভবন থেকে চলে যান।  

বৃহস্পতিবার (২৪ জানুয়ারি) রাজধানীর কারওয়ান বাজারে ওয়াসা ভবনের সামনে এসব ঘটনা ঘটে।

এর আগে সাংবাদিকদের দাওয়াত দিয়ে ওয়াসা ভবনে ঢুকতে না দেওয়ায় এলজিআরডি মন্ত্রীর তোপের মুখে পড়তে হয় ওয়াসার ব্যবস্থাপনা পরিচালককে। মন্ত্রী ওয়াসা এমডিকে প্রশ্ন করেন, কেন গণমাধ্যমকে দাওয়াত দেওয়ার পর এখানে আসতে দেননি। আমরা সবাইকে সঙ্গে নিয়ে চলতে চাই, দেশটাকে এগিয়ে নিতে চাই। আপনি এ ধরনের আচরণ করতে পারেন না।

সোহেল নামে এক ওয়াসা শ্রমিক বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু যখন দেশের প্রধান হন, তখন থেকে ওভার টাইম দ্বিগুণ ছিলো। এমডি বোর্ড মিটিং করে এখন অর্ধেকে এনেছেন। আমাদের শূন্য পদে এক হাজার জনকে নিয়োগ দেওয়ার কথা থাকলেও তিনি এখন চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ দিচ্ছেন। যাকে ইচ্ছা রাখছেন, যাকে ইচ্ছা বাদ দিচ্ছেন। টাকার বিনিময়ে দেওয়া এসব নিয়োগ বাণিজ্য আমরা মানি না। এটা একদিনের আন্দোলন না। ’

পরে শ্রমিকদের যৌক্তিক সমাধানের আশ্বাস দেন এলজিআরডি মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম। তিনি বলেন, আমরা শ্রমিক পক্ষের লোক। শ্রম রাজনীতি করেই সরকারে এসেছি। আমরা কোনো দুর্নীতিকে আশ্রয়-প্রশ্রয় দেবো না। আমার সঙ্গে আপনারা কয়েকজন চলেন। আমরা আপনাদের কথা শুনতে চাই। দুর্নীতি যেই করুক, তাকে ছাড় দেওয়া হবে না। সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে সমাধান করা হবে।  

বাংলাদেশ সময়: ১৬৪৩ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২৪, ২০১৯ 
ইএআর/আরবি/

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa