ঢাকা, শনিবার, ৭ বৈশাখ ১৪২৬, ২০ এপ্রিল ২০১৯
bangla news

প্রধানমন্ত্রীর সই নকল করে কোটি টাকা আত্মসাৎ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০১-১৫ ৫:১৭:৫৯ পিএম
জালিয়াত চক্রের গ্রেফতার তিন সদস্য। ছবি: বাংলানিউজ

জালিয়াত চক্রের গ্রেফতার তিন সদস্য। ছবি: বাংলানিউজ

ঢাকা: কম্পিউটারের দোকানে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের লোগোযুক্ত চিঠি প্রিন্ট করতেন হেলালউদ্দিন নামে জালিয়াত চক্রের এক সদস্য। আর ওই চিঠিতে প্রধানমন্ত্রীর সই নকল করে কোটি টাকা আত্মসাৎ করেছেন তিনি। প্রধানমন্ত্রী ছাড়াও রাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের সই নকল করে এ ধরনের অপকর্ম করেছে চক্রটির সদস্যরা। 

মঙ্গলবার (১৫ জানুয়ারি) দুপুরে রাজধানীর মালিবাগের সিআইডি কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে সিআইডির বিশেষ পুলিশ সুপার (সিরিয়াস অ্যান্ড হোমিসাইডাল স্কোয়াড) সৈয়দা জান্নাত আরা এসব তথ্য জানান। 

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, গতবছরের ২৯ নভেম্বর অভিযান চালিয়ে প্রধানমন্ত্রীসহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তির স্বাক্ষর জালিয়াতি চক্রের তিন সদস্যকে গ্রেফতার সিআইডির হোমিসাইডাল স্কোয়াড। পরে তাদের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে ও সোমবার (১৪ জানুয়ারি) দিনরাতে অভিযান চালিয়ে চক্রটির আরও তিনজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। 

২৯ নভেম্বর গ্রেফতাররা হলেন- মো. হেলালউদ্দিন (৫৫), মো. এনামুল হক (৪৮) ও নাজমুল হাবিব (৫৪)। তাদের বিরুদ্ধে ওইদিনই পল্লবী থানায় একটি মামলা করা হয়েছে। তবে তদন্তের স্বার্থে সোমবার রাতে গ্রেফতার আসামিদের নাম প্রকাশ করা হয়নি।

সিআইডির বিশেষ পুলিশ সুপার সৈয়দা জান্নাত আরা জানান, গ্রেফতারের সময় আসামিদের কাছ থেকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জাল স্বাক্ষরসহ বাংলাদেশ ব্যাংকের গর্ভনর, দুদক চেয়ারম্যান, এনবিআরের চেযারম্যান, এনএসআই প্রধানের স্বাক্ষর জাল এবং প্যাড, বাংলাদেশ ব্যাংকের ভুয়া ৫৪ হাজার কোটি টাকা যাচাই কপি, প্রধানমন্ত্রীকে জড়িয়ে হেলালের বিভিন্ন মানহানিকর কথাবার্তার ভিডিও ক্লিপ ও প্রতারণার কাজে ব্যবহৃত পাঁচটি মোবাইল জব্দ করা হয়েছে।

তিনি বলেন, জিজ্ঞাসাবাদে জালিয়াত চক্রটি বাংলাদেশ ব্যাংকের ভুয়া যাচাই কপি তৈরি করার বিষয়টি স্বীকার করেছেন। তারা বলেছেন- নানা কৌশলে করে জনমনে বিশ্বাস স্থাপন করতো তারা। তারা  ৫৪ হাজার কোটি টাকা বাংলাদেশ ব্যাংকে কথিত ফরিদুজ্জামান সেলিমের অ্যাকাউন্টে আছে বলে জানায়। তিনি ফ্রান্সের এল সি এল ব্যাংক থেকে বাংলাদেশ ব্যাংকে টাকা পাঠান। যা পুরোটাই ভুয়া।

‘চক্রটি সরকারের বিভিন্ন প্রকল্পের উন্নয়নের কথা বলে টাগের্ট মানুষকে নানা ধরনের প্রলোভন দিতেন। প্রয়োজন অনুসারে তারা প্রধানমন্ত্রীর স্বাক্ষরসহ কার্যালয়ের প্যাডে ওই প্রকল্পের কাজের আদেশনামাও দেখাতেন। এভাবে বিভিন্ন ব্যক্তির কাছ থেকে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন তারা। এ পর্যন্ত ৪২ লাখ টাকা আত্মসাতের প্রমাণ পাওয়া গেছে।’

সিআইডির এই কর্মকর্তা বলেন, গ্রেফতারদের মধ্যে অন্যতম হেলালউদ্দিন জাল স্বাক্ষর চক্রের মূল হোতা। তিনি প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের লোগোসহ চিঠি এক কম্পিউটারের দোকান থেকে মাত্র ৫০০ টাকার বিনিময়ে প্রিন্ট করতেন। প্রয়োজনানুসারে সেসব প্যাডে প্রধানমস্ত্রীর স্বাক্ষর নকল করে ব্যবহার করে অপকর্ম করে আসছিলেন তারা। চক্রটি প্রধানমন্ত্রীর ভাবমূর্তি নষ্ট করার লক্ষ্যে ষড়যন্ত্রমূলকভাবে পরিকল্পনা করে জালিয়াতি করে আসছিলো।

ব্যাংকে রাখা ‘কথিত’ টাকার মালিক ফরিদুজ্জামান সেলিমকে গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত আছে বলেও জানান সিআইডির এই বিশেষ পুলিশ সুপার।

বাংলাদেশ সময়: ১৭১৩ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১৫, ২০১৮
পিএম/এমএ

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14