[x]
[x]
ঢাকা, শুক্রবার, ৫ মাঘ ১৪২৫, ১৮ জানুয়ারি ২০১৯
bangla news

শাজাহান খানকে ধন্যবাদ দিয়ে খালিদের শুরু

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০১-১০ ১:৪১:৩০ পিএম
মন্ত্রণালয়ে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময়কালে প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী

মন্ত্রণালয়ে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময়কালে প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী

ঢাকা: যে দেশপ্রেম নিয়ে সাবেক মন্ত্রী শাজাহান খান নৌ পরিবহন মন্ত্রণালয়ে নেতৃত্ব দিয়েছেন সেই দৃষ্টিভঙ্গি নিয়ে মন্ত্রণালয়কে এগিয়ে নিতে চান শেখ হাসিনার মন্ত্রিসভায় স্থান পাওয়া প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী।

দায়িত্ব পাওয়ার পরে প্রথমবার সচিবালয়ে মন্ত্রণালয়ে এসে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময়কালে একথা জানিয়েছেন তরুণ এ প্রতিমন্ত্রী।

সেই সঙ্গে আওয়ামী লীগের নির্বাচনী ইশতেহারে এই মন্ত্রণালয়ের কাজগুলো বাস্তবায়ন করা হবে বলেও জানিয়েছেন খালিদ মাহমুদ।

বৃহস্পতিবার (১০ জানুয়ারি) বেলা ১১টায় সচিবালয়ে সভাকক্ষে বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসের কথা স্মরণ করে তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু দেশে ফিরে আসার পরে এই মন্ত্রণালয়টি তার নিজের হাতে রেখেছেন, আমরা ধরে নিতে পারি এই মন্ত্রণালয়টি বঙ্গবন্ধুর মন্ত্রণালয়। প্রধানমন্ত্রীও এই মন্ত্রণালয়কে গুরুত্ব দিয়েছেন।

খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেন, আমরা যদি ভূ-রাজনীতির কথা চিন্তা করি, ভূ রাজনীতিতে এই বন্দরগুলোর ভূমিকা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। সচিব মহোদয় আংশিকভাবে কিছুটা উপস্থাপন করেছেন। নৌ মন্ত্রণালয় অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। দেশের সার্বিক অর্থনৈতিক উন্নয়নের ক্ষেত্রে এবং বাংলাদেশকে প্রধানমন্ত্রী যে উচ্চতা ও সম্মানের জায়গায় নিয়ে গেছেন, এই সম্মান ধরে রাখার ক্ষেত্রে এই মন্ত্রণালয় অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে বলে বিশ্বাস করি।

৩০ ডিসেম্বর নির্বাচনে দিনাজপুর-২ আসন থেকে নির্বাচিত হয়ে নৌ প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব পান।

খালিদ মাহমুদ বলেন, প্রধানমন্ত্রী আমাকে এই মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব দিয়েছেন, আমি তার প্রতি কৃতজ্ঞ। তিনি আমার প্রতি যে বিশ্বাস রেখেছেন আমি সেই বিশ্বাসের মর্যাদা দিতে চাই, এজন্য আপনাদের সার্বিক সহযোগিতা আমার প্রয়োজন।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, গত ১০ বছরে নৌ মন্ত্রণালয়সহ সারা বাংলাদেশের যে অগ্রগতি হয়েছে আমাদের এটা ধরে রাখতে হবে। ধরে রাখার জন্য দেশরত্ন শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করতে হবে। আমরা উদ্যমী একটা দল নিয়ে এই মন্ত্রণালয়কে সামনের দিকে এগিয়ে নিতে চাই।

সাবেক নৌমন্ত্রী শাজাহান খানকে স্মরণ করে নতুন প্রতিমন্ত্রী বলেন, আমি ধন্যবাদ না দিয়ে পারছি না, বিগত দুই সময়ে শাহজাহান খান এই মন্ত্রণালয়ের নেতৃত্বে দিয়েছেন। আমি দৃশ্যমান দেখতে পাচ্ছি তিনি এই মন্ত্রণালয়কে কতটুকু এগিয়ে নিয়ে গেছেন। আমাদের সেই ধারাটাকেই অব্যাহত রাখতে হবে। আমি তার প্রতিও কৃতজ্ঞতা জানাই, ধন্যবাদ জানাই, তিনি একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা; দীর্ঘ দিন জাতীয় সংসদে প্রতিনিধিত্ব করেছেন।

‘তিনি যে দেশপ্রেম নিয়ে, আন্তরিকতা নিয়ে এই মর্ত্রণালয়ের নেতৃত্ব দিয়েছেন, আমরাও সেই ধরণের দৃষ্টিভঙ্গি নিয়ে এই মন্ত্রণালয়েকে সামনের দিকে এগিয়ে নিতে চাই।’

কাজের পরিকল্পনার এক প্রশ্নে খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেন, আমার ব্যক্তিগত কোনো পরিকল্পনার বিষয় নয়, এখানে প্রধানমন্ত্রী নেতৃত্ব দিচ্ছেন মন্ত্রিপরিষদের। মন্ত্রিপরিষদ যে সিদ্ধান্ত দেবে সেটাই বাস্তবায়ন করতে হবে। আওয়ামী লীগের নির্বাচনী ইশতেহারে আমরা সুস্পস্টভাবে উল্লেখ করেছি আমরা এই মন্ত্রণালয়ে কী করতে চাই। সেগুলোকে বাস্তবান করাই আমাদের লক্ষ্য।

প্রধানমন্ত্রী মন্ত্রিসভার সদস্যদের পরফরমেন্স মূল্যায়ন করবেন- এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী সঠিক কথাই বলেছেন। তিনি মন্ত্রিসভার প্রধান, তার মন্ত্রিসভার সদস্যরা কীভাবে কাজ করছেন সেই দৃষ্টি তিনি রাখবেনই। যেখানে আমাদের দুর্বলতা আছে, সফলতা আছে সবকিছু তিনি চুলচেরা বিশ্লেষণ করবেন।

কাজের ক্ষেত্রে মন্ত্রণালয়ের চ্যালেঞ্জ সম্পর্কে খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেন, যেখানে দেশরত্ন আমাদের প্রধান সেখানে তো আমাদের অনেক সবকিছুই হালকা হয়ে যায়। আমার বিশ্বাস তিনি যেভাবে বাংলাদেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন আমরা তার সঙ্গে কাজ করতে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করব। তিনি যেভাবে বন্ধুত্বসুলভ দৃষ্টিভঙ্গি নিয়ে, দেশপ্রেম নিয়ে নেতৃত্ব দিচ্ছেন আশা করি আমরা সফল হবো।

‘প্রধানমন্ত্রী বার বার একটা কথাই বলেন যে আমার কোন চাওয়া-পাওয়া নাই। আমি কিছু চাই না আমি শুধু চাই মুক্তিযুদ্ধ ও বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন বাস্তবান করার জন্য। এদেশের মানুষ মাথা উঁচু করে দাঁড়াক, আমরা বীরের জাতিতে পরিণত হয়েছিলাম, সেই বীরের জাতিতে যেন থাকতে পারি। তার চাওয়া-পাওয়া এতটুকুই। সেই চাওয়া পাওয়ার জায়গায় আমাদের সহযোগিতা করার অনেক কিছু আছে। আমরা সবাই সহযোগিতা করি।’

বাংলাদেশ সময়: ১৩৩২ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১০, ২০১৯
এমআইএইচ/এমজেএফ

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14