bangla news

নানা আয়োজনে সারাদেশে বিজয় দিবস উদযাপন 

নিউজ ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-১২-১৬ ৩:৫৯:৪৫ পিএম
স্মৃতিস্তম্ভে ফুল দিয়ে শহীদদের শ্রদ্ধা জানানো হয়। ছবি: বাংলানিউজ

স্মৃতিস্তম্ভে ফুল দিয়ে শহীদদের শ্রদ্ধা জানানো হয়। ছবি: বাংলানিউজ

ঢাকা: কুচকাওয়াজ, র‌্যালি, শিক্ষার্থীদের শারীরিক কসরৎ ও ফুল দিয়ে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানানোসহ নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে সারাদেশে উদযাপিত হচ্ছে ৪৮তম বিজয়দিবস।

রোববার (১৬ ডিসেম্বর) বিজয় দিবসে বাংলানিউজের করেসপন্ডেন্টদের পাঠানো রিপোর্ট: 

জয়পুরহাট: যথাযোগ্য মর্যাদায় জয়পুরহাটে মহান বিজয় দিবস উদযাপন করা হয়েছে।

সকালে জয়পুরহাট জেলা স্টেডিয়ামে জাতীয় পতাকা উত্তোলন ও বেলুন উড়িয়ে দিনের কর্মসূচির উদ্বোধন করেন জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ জাকির হোসেন। 

এ সময় উপস্থিত ছিলেন পুলিশ সুপার রশীদুল হাসান, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আরিফুর রহমান রকেট, জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আমজাদ হোসেন প্রমুখ।

গোপালগঞ্জ: গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিতে শ্রদ্ধা নিবেদনের মধ্য দিয়ে মহান বিজয় দিবস পালন করা হয়েছে।

বিজয় দিবসের প্রথম প্রহর রাত ১২টা ১ মিনিটে টুঙ্গিপাড়ায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিতে প্রথমে শ্রদ্ধা জানান জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মোখলেসুর রহমান সরকার।

এরপর পুলিশ সুপার মুহাম্মদ সাইদুর রহমান খান, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর ড. মো. নাসির উদ্দিন, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান চৌধুরী ইমদাদুল হক, জেলা আওয়ামী লীগসহ বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতা-কর্মীরা শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

পটুয়াখালী: বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্য দিয়ে পটুয়াখালীতে মহান বিজয় দিবস উদযাপন করা হয়েছে। সূর্যোদয়ের আগে ৩১ বার তোপধ্বনি দিয়ে দিবসের শুভ সূচনা করা হয়।

সকাল সাড়ে ৬টায় স্মৃতিফলকে পুষ্পস্তবক অর্পণ, সাড়ে ৮টায় মরহুম আবুল কাশেম স্টেডিয়ামে কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠানের সালাম গ্রহণ করেন জেলা প্রশাসক মতিউল ইসলাম চৌধুরী। 

এসময় উপস্থিত ছিলেন- পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মইনুল হাসান।

এর আগে, পটুয়াখালী মরহুম আবুল কাসেম স্টেডিয়ামে জাতীয় পতাকা বেলুন, ফেস্টুন, শান্তির প্রতীক পায়রা উড়িয়ে কুচকাওয়াজের উদ্বোধন করেন জেলা প্রশাসক।

কিশোরগঞ্জ: নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে কিশোরগঞ্জে মহান বিজয় দিবস উদযাপন করা হয়েছে।

দিবসটি উপলক্ষে সকালে গুরুদয়াল সরকারি কলেজ মাঠের স্মৃতিসৌধে ফুল দিয়ে বীর শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানান জেলা প্রশাসক (ডিসি) মো. সারওয়ার মুর্শেদ চৌধুরী।

এসময় উপস্থিত ছিলেন- সংরক্ষিত নারী আসনের সংসদ সদস্য দিলারা বেগম আছমা, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট মো. জিল্লুর রহমান, স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-পরিচালক মো. জহিরুল ইসলাম, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) উপসচিব তরফদার মো. আক্তার জামীল, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) দুলাল চন্দ্র সূত্রধর, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ হাবিবুর রহমান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মো. আব্দুল্লাহ আল মাসউদ প্রমুখ।

লালমনিরহাট: নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে সীমান্তবর্তী জেলা লালমনিরহাটে পালন করা হয়েছে ৪৭তম মহান বিজয় দিবস। 

সূর্যোদয়ের সঙ্গে সঙ্গে মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতিসৌধে ৩১ বার তোপধ্বনির মধ্য দিয়ে দিবসের শুভ সূচনা হয়।

মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতিসৌধে শহীদের স্মরণে জেলা প্রশাসনের পক্ষে জেলা প্রশাসক শফিউল আরিফ, জেলা পুলিশ সুপার এসএম রশিদুল হক, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট মতিয়ার রহমান, পুস্পস্তবক অর্পণ করেন।

টাঙ্গাইল: নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে টাঙ্গাইলে মহান বিজয় দিবস পালন করা হয়েছে।

দিবসটি উপলক্ষে সরকারি-বেসরকারি ভবনে জাতীয় পতাকা উত্তোলন, তোপধ্বনি ও শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন, শোভাযাত্রা, আলোচনা সভা এবং কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।
 
সকাল ৬টা ৩৫ মিনিটে ৩১ বার তোপধ্বনির মধ্য দিয়ে কর্মসূচির শুরু হয়। শুরুতেই টাঙ্গাইলের জেলা প্রশাসক মো. শহীদুল ইসলাম ও পুলিশ সুপার সঞ্জিত কুমার রায় শহীদ স্মৃতি পৌর উদ্যানে স্মৃতিসৌধে পুস্পস্তবক অর্পণ করেন।

মধুপুর (টাঙ্গাইল): টাঙ্গাইলের মধুপুরে বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্য দিয়ে ৪৭তম বিজয় দিবস পালন করা হয়েছে। 

সকাল ৭টার পর থেকে বংশাই নদীর ধারের শহীদ মিনারে স্থানীয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক, শিক্ষার্থী, মধুপুর প্রেসক্লাব, টিআইবি-সনাক, ইয়েস গ্রুপ, দুপ্রক, রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠনের পক্ষ থেকে ফুল দিয়ে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানান।

এরপর মধুপুর রাণী ভবানী সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে বিজয় দিবসের কর্মসূচি পালনের শুরুতে জাতীয় সংগীতের সঙ্গে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) রমেন্দ্র নাথ বিশ্বাস কর্মসূচি উদ্বাধন করেন।

মাগুরা: মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে মাগুরায় বিজয় দিবস উদযাপন করা হয়েছে।

সকালে মাগুরা শহরে বিজয় র‌্যালি বের করে জেলা আওয়ামী লীগ। র‌্যালিতে আওয়ামী লীগের হাজার-হাজার নেতাকর্মী অংশ নেয়।

এরপর সকাল সাড়ে ১১টায় মাগুরা নোমানী ময়দান থেকে বিজয় র‌্যালির আয়োজন করে জেলা আওয়ামী লীগ। র‌্যালিটি শহরের প্রধান প্রধান সড়ক ঘুরে আবার একই স্থানে এসে শেষ হয়। 

এসময় জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান পংকজ কুন্ডু, জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি সৈয়দ শরিফুল ইসলাম র‌্যালির নেতৃত্ব দেন।

নরসিংদী: নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে নরসিংদীতে মহান বিজয় দিবস পালন করা হয়েছে।

দিবসটি উপলক্ষে জেলা প্রশাসনসহ বিভিন্ন সামাজিক সাংস্কৃতিক সংগঠন বিভিন্ন কর্মসূচির আয়োজন করে।

সকালে মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতিফলকে নরসিংদী জেলা প্রশাসক সৈয়দা ফারহানা কাউনাইন জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান।

মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে নরসিংদী জেলা আওয়ামী লীগ, মাধবদী শহর আওয়ামী লীগ পৃথক বিজয় র‌্যালি বের করে। জেলা আওয়ামী লীগের র‌্যালিটি শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে পুনরায় আওয়ামী লীগের কার্যালয়ের সামনে এসে শেষ হয়।

বাগেরহাট: নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে বাগেরহাটে মহান বিজয় দিবস উদযাপন করা হয়েছে।

দিবসটির প্রথম প্রহরে ৩১ বার তোপধ্বনির পর শহরের দশানীস্থ শহীদ মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতিস্তম্ভে পুস্পস্তবক অর্পণের মধ্য দিয়ে বিজয় দিবসের কর্মসূচি শুরু হয়।

সকালে বাগেরহাট জেলা প্রশাসন, পুলিশ সুপারের কার্যালয়, জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, বাগেরহাট জেলা আওয়ামী লীগ, জেলা বিএনপি, বাগেরহাট প্রেসক্লাব, সদর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, দৈনিক বাস্তবতা, বাগেরহাট সড়ক ও জনপথ বিভাগ, জাতীয় সংবাদিক সংস্থা বাগেরহাট শাখা, বাগেরহাটে ইয়ুথ জার্নালিস্টস ফোরাম বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন পুষ্পমাল্য অর্পণ করে।

পঞ্চগড়: ৩১বার তোপধ্বনি ও জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মধ্য দিয়ে পঞ্চগড়ে স্বরণ করা হয়েছে বীর শহীদদের। 

দিবসটি উপলক্ষে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে নানা কর্মসূচির আয়োজন করা হয়।

সূর্যোদয়ের সঙ্গে সঙ্গে কালেক্টরেট চত্ত্বরে ৩১বার তোপধ্বনি ও জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মধ্য দিয়ে দিবসের শুভ সূচনা করা হয়। 

এরপর জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে শহীদ মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতিফলকে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়। এসময় বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীসহ এলাকাবাসী অংশ নেয়।

কুষ্টিয়া: নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে মহান বিজয় দিবস পালন করা হয়েছে। 

ভোরে ৩১ বার তোপধ্বনির মধ্য দিয়ে দিবসটির শুভ সূচনা হয় ও ৬টা ৪৫ মিনিটে কুষ্টিয়া কালেক্টরেট চত্ত্বরে কেন্দ্রীয় স্মৃতিস্তম্ভে এবং ৭টায় মজমপুর গেট সংলগ্ন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের এর প্রতিকৃতিতে পুস্পস্তবক অর্পণ করেন জেলা প্রশাসন, জেলা পুলিশ, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন। 

এছাড়াও সকাল ৯টায় জেলা স্টেডিয়ামে জেলা প্রশাসনের আয়োজনে কুচকাওয়াজ ও শরীরচর্চা প্রদর্শনী সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও আলোচনা সভার মধ্য দিয়ে দিবসটি পালন করা হয়।

বাংলাদেশ সময়: ১৫৫০ ঘণ্টা, ডিসম্বের ১৬, ২০১৮
এনটি

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2018-12-16 15:59:45