bangla news

সিরাজদিখানে টেঁটাযুদ্ধে আহত ৫, আটক ২০

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-১২-০১ ১:৫৪:২৭ পিএম
 বাম থেকে হামলায় ভাঙচুর হওয়া দোকান ও পুলিশের উপস্থিতি। ছবি: বাংলানিউজ

বাম থেকে হামলায় ভাঙচুর হওয়া দোকান ও পুলিশের উপস্থিতি। ছবি: বাংলানিউজ

মুন্সিগঞ্জ: মুন্সিগঞ্জের সিরাজদিখানে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে ফের দুই গ্রুপের মধ্যে টেঁটাযুদ্ধ হয়েছে। এ ঘটনায় টেঁটাবিদ্ধসহ আহত হয়েছেন পাঁচ জন। ঘটনাস্থল থেকে ২০ জনকে  আটক করেছে পুলিশ। 

দুপুর দেড়টার দিকে এ প্রতিবেদন লেখার সময়ও থেমে থেমে সংঘর্ষ চলছিল। 

এর আগে শনিবার (১ ডিসেম্বর) সকাল থেকেই বালুচর ইউনিয়নের মোল্লাকান্দি গ্রামে এ সংঘর্ষ শুরু হয়। তাৎক্ষণিকভাবে আহত ও আটকদের নাম পরিচয় জানা যায়নি। 

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, দীর্ঘদিন ধরেই নুরু বাউল গ্রুপ ও নাছির মোল্লা গ্রুপের মধ্যে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষ চলে আসছিল। সকাল থেকে দুই গ্রুপের মধ্যে আবারো সংঘর্ষ বেধে যায়। চার/পাঁচ গ্রামের মানুষ দুই গ্রুপে বিভক্ত হয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এসময় দেশীয় অস্ত্র নিয়ে একে অপরের ওপর হামলা ও বাড়িঘর, দোকানপাট ভাঙচুর করে। এসময় আহত হয় উভয় পক্ষের পাঁচ জন। তারা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছেন। 

সিরাজদিখান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. ফরিদ বলেন, সরকার, নুরু বাউল গ্রুপ ও নাছির মোল্লা গ্রুপের মধ্যে দীর্ঘ ৪০ বছর ধরেই বংশগতভাবে বিরোধ চলে আসছিল। এর আগেও তাদের মধ্যে কয়েক দফা সংঘর্ষ বাধে। সকাল থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত অভিযান চালিয়ে ২০ জনকে আটক এবং শতাধিক দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার করা হয়েছে। ঘটনাস্থলে এখনো পুলিশ অভিযান পরিচালনা করছে, অভিযান শেষে বিস্তারিত বলা যাবে বলে জানিয়েছেন তিনি। 

বাংলাদেশ সময় ১৩৪৮ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ০১, ২০১৮
আরএ

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   সংঘর্ষ মুন্সিগঞ্জ
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2018-12-01 13:54:27