[x]
[x]
ঢাকা, সোমবার, ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ১৯ নভেম্বর ২০১৮
bangla news

বাংলাদেশ এশিয়ার সফল দেশ হিসেবে স্বীকৃত

ডিপ্লোম্যাটিক করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-১১-১১ ৩:৪৫:৪৩ এএম
ফেকিতামোইলোয়া কাতোয়া উতোইকামানু

ফেকিতামোইলোয়া কাতোয়া উতোইকামানু

ঢাকা: জাতিসংঘের আন্ডার সেক্রেটারি জেনারেল এবং স্বল্পোন্নত, ভূ-বেষ্টিত স্বল্পোন্নত ও উন্নয়নশীল ক্ষুদ্র দ্বীপ রাষ্ট্রগুলোর দায়িত্বে নিযুক্ত উচ্চ প্রতিনিধি ফেকিতামোইলোয়া কাতোয়া উতোইকামানু বলেছেন, বাংলাদেশ এখন এশিয়ার মধ্যে সফলতার স্বাক্ষরবহনকারী উল্লেখযোগ্য একটি দেশ হিসেবে স্বীকৃত।

শুক্রবার (০৯ নভেম্বর) নিউইয়র্কে আয়োজিত উন্নয়ন মেলা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

জাতিসংঘে বাংলাদেশ স্থায়ী মিশন ও নিউইয়র্কে বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেলের যৌথ উদ্যোগে কনস্যুলেট জেনারেল অডিটোরিয়ামে বিপুল দর্শক সমাবেশের মধ্যে দিয়ে ‘বাংলাদেশ উন্নয়ন মেলা’ অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রবাসী বাঙালিদের পাশাপাশি বিদেশি অতিথিদেরও উপস্থিতি ছিল।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন ইউএনডিপি’র হিউম্যান ডেভেলপমেন্ট রিপোর্ট অফিসের পরিচালক ড. সেলিম জাহান ও নিউইয়র্কে ভারতের কনসাল জেনারেল অ্যাম্বাসেডর সন্দীপ চক্রবর্তী।

এছাড়া অতিথি ছিলেন জাতিসংঘের কমিটি ফর ডেভেলপমেন্ট পলিসি’র সিনিয়র ইকোনমিক অফিসার ম্যাথিয়াস ব্রুকনার, ইউনিসেফের হিউম্যানিট্যারিয়েন ফিল্ড সাপোর্টের প্রধান মিজ সারা বর্ডার এড্ডি, জাতিসংঘের ক্যাপিটাল ডেভেলপমেন্ট ফান্ডের প্রোগ্রাম ম্যানেজার জেফার ম্যাকানো, ইউএস-বাংলাদেশ গ্লোবাল চেম্বার অব কমার্সের চেয়াম্যান আজিজ আহমেদ ও সিনিয়র অ্যাডভাইজর স্যাভিও চ্যান, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি শামসুদ্দিন আজাদ, নিউইয়র্কের কুইন্স বোরো প্রেসিডেন্ট মেডিন্ডা কার্স্টের কমিউনিটি সমন্বয়ক হ্যাক এবং নিউইয়র্ক মেয়র অফিসের কমিউনিটি অ্যাসোসিয়েটস তাহিতুন মারিয়াম।

অনুষ্ঠানে ফেকিতামোইলোয়া কাতোয়া উতোইকামানু তার বক্তব্যে বাংলাদেশের টেকসই উন্নয়ন অভিযাত্রা এবং শেখ হাসিনা সরকারের বিভিন্ন অর্জনের উচ্চকিত প্রসংশা করেন। বিশেষ করে শক্তিশালী অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি, জাতীয় মালিকানা, নেতৃত্ব, পরিকল্পনা ও বাস্তবায়ন কৌশল, শক্তিশালী প্রতিষ্ঠান, দ্রুত শিল্পায়ন ও অর্থনৈতিক বৈচিত্র্য ইত্যাদি ক্ষেত্রে বাংলাদেশের সাফল্যমণ্ডিত অগ্রযাত্রার কথা তুলে ধরেন তিনি।

উন্নয়ন অভিযাত্রায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দূরদর্শী নেতৃত্বের কথা তুলে ধরে জাতিসংঘে নিযুক্ত বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি রাষ্ট্রদূত মাসুদ বিন মোমেন বলেন, রক্তক্ষয়ী মহান মুক্তিযুদ্ধের ধ্বংসস্তুপ থেকে বাংলাদেশের আজকের উত্থান যেনো ফনিক্স পাখির কল্পকথাকেও হার মানায়।

বাংলাদেশের উন্নয়ন গাঁথা আজ উন্নয়নশীল বিশ্বে শ্রেষ্ঠ একটি সফলতার কাহিনী। বাংলাদেশের এই স্বীকৃতি সম্ভব হয়েছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অদম্য নেতৃত্বে, যিনি বাংলাদেশকে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নের সোনার বাংলায় পরিণত করতে সামনে থেকে চেষ্টা করে যাচ্ছেন।

এসময় রাষ্ট্রদূত মাসুদ জাতিসংঘে বাংলাদেশের বিভিন্ন অর্জনের কথা উল্লেখ করেন। 

ইউএনডিপি’র হিউম্যান ডেভেলপমেন্ট রিপোর্ট অফিসের পরিচালক ড. সেলিম জাহান বাংলাদেশের উন্নয়নকে অভূতপূর্ব আখ্যা দেন এবং দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর সঙ্গে বাংলাদেশের উন্নয়নের তুলনামূলক চিত্র তুলে ধরেন।

বাংলাদেশকে গুরুত্বপূর্ণ উন্নয়ন অংশীদার এবং নিকটতম প্রতিবেশী উল্লেখ করে নিউইয়র্কে নিযুক্ত ভারতের কনসাল জেনারেল অ্যাম্বাসেডর সন্দীপ চক্রবর্তী বলেন, বাংলাদেশের উন্নয়নে ভারত সবসময়ই পাশে আছে। বাংলাদেশ শুধু দক্ষিণ এশিয়ায় নয়, গোটা বিশ্বেই উন্নয়নের উজ্জ্বল উদাহরণ। আর এটি সম্ভব হয়েছে প্রধানমন্ত্রীর শেখ হাসিনার দূরদর্শী ও যোগ্য নেতৃত্বে।

সকল বক্তারাই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কার্যকর ও গতিশীল নেতৃত্বে বাংলাদেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নের ভূয়সী প্রসংশা করেন।

বাংলাদেশ সময়: ০৩৪০ ঘণ্টা, নভেম্বর ১১, ২০১৮
টিআর/টিএ

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache