ঢাকা, বুধবার, ২১ শ্রাবণ ১৪২৭, ০৫ আগস্ট ২০২০, ১৪ জিলহজ ১৪৪১

জাতীয়

বাসাইলে পাওনা টাকা চাওয়ায় গৃহবধূকে মাটিচাপা

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-১০-২৯ ০৬:১৮:০৯ পিএম
বাসাইলে পাওনা টাকা চাওয়ায় গৃহবধূকে মাটিচাপা পাওনা টাকা চাওয়ায় গৃহবধূকে মাটিচাপা। ছবি: বাংলানিউজ

টাঙ্গাইল: টাঙ্গাইলের বাসাইলে পাওনা টাকা চাওয়ায় ঝর্ণা রানী দাস (৪৮) নামে এক গৃহবধূকে শ্বাসরোধে হত্যার পর মরদেহ মাটিচাপা দিয়ে রাখা হয়। এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে দু’জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

রোববার (২৮ অক্টোবর) সকালে উপজেলার পূর্ব বেপারী পাড়ায় এ ঘটনা ঘটে। এদিন দিবাগত রাতে মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

 

সোমবার (২৯ অক্টোবর) সকালে পুলিশ মরদেহটি ময়নাতদন্তের জন্য টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে।  

বাসাইল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আনিচুর রহমান বাংলানিউজকে জানান, বাসাইল সদরের রায় বাড়ির সুনিল দাসের স্ত্রী ঝর্ণা রানী দাস রোববার সকালে পূর্ব বেপারী পাড়ার সাহাদতের স্ত্রী মনোয়ারা বেগমের বাড়িতে পাওনা দুই হাজার ৬০০ টাকা চাইতে যান। এ সময় টাকা না দিয়ে তাকে শ্বাসরোধে হত্যার পর নিজ ঘরেই মাটিচাপা দিয়ে রাখেন মনোয়ারা ও তার আত্মীয় উজ্জল ইসলাম। ঝর্ণা বাড়িতে ফিরে না আসায় তার পরিবারের সদস্যরা মনোয়ারার বাড়িতে খবর নিলে তাদের জানানো হয় তিনি ওই বাড়িতে আসেননি। পরে ঝর্ণার পরিবার বিষয়টি থানায় জানায়। পুলিশ রোববার দিনগত রাতে মনোয়ারার ঘরের মাটি খুঁড়ে ঝর্ণার মরদেহ উদ্ধার করে।  

ওসি আরও জানান, সোমবার সকালে মরদেহটি ময়নাতদন্তের জন্য টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে পুলিশ মনোয়ারা ও উজ্জলকে গ্রেফতার করেছে।  

এ ব্যাপারে নিহতের স্বামী সুনিল বাদী হয়ে ওই দু’জনকে আসামি করে থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেছেন বলেও জানান ওসি আনিচুর রহমান।

বাংলাদেশ সময়: ১৪১৫ ঘণ্টা, অক্টোবর ২৯, ২০১৮
এসআরএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa