ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ২৩ মে ২০১৯
bangla news

কলেজছাত্রীদের গায়েও কালি মাখালো শ্রমিকরা

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-১০-২৮ ৩:৩৫:৩০ পিএম
গাড়ির চালকের মুখে কালি মাখাচ্ছেন এক পরিবহন শ্রমিক। পাশে গায়ে কালি মাখা এক ছাত্রী/ছবি: বাংলানিউজ

গাড়ির চালকের মুখে কালি মাখাচ্ছেন এক পরিবহন শ্রমিক। পাশে গায়ে কালি মাখা এক ছাত্রী/ছবি: বাংলানিউজ

নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জে সরকারি মহিলা কলেজের ছাত্রীদের বহন করা বাসেও হামলা চালিয়েছেন আন্দোলনরত পরিবহন শ্রমিকরা। এসময় তারা বাসচালক ও ছাত্রীদের গায়ে কালি লেপন করেছে। পাশাপাশি ভেঙেছে বাসের গ্লাস।

রোববার (২৮ অক্টোবর) দুপুরে ঢাকা নারায়ণগঞ্জ লিংক রোডের সাইনবোর্ড এলাকায় একটি পাম্পের কাছে এ ঘটনা ঘটায় শ্রমিকরা। পরে বাসটি সেখানে থামিয়ে দিয়ে আর যেতে দেয়নি। 

শিক্ষার্থীরা বাংলানিউজকে জানায়, দুপুর ১২টার দিকে সাইনবোর্ড এলাকা পার হওয়ার সময় হঠাৎ শ্রমিকরা বাসটি থামিয়ে চালককে মারধর করে ও তার মুখে শরীরে কালি লেপে দেন। পরে এ ঘটনার প্রতিবাদ করলে কয়েকজন ছাত্রীকেও কালি লেপে দেন শ্রমিকরা। অকথ্য ভাষায় গালিগালাজও শুরু করেন। পরে বাসের কয়েকটি গ্লাস ভাঙচুর করে বাস থেকে সবাইকে নামিয়ে দেওয়া হয়।

বাসটির চালক মজিবর বাংলানিউজকে বলেন, বাসটিতে ৩৮ জন ছাত্রী ছিল। তারা সবাই সরকারি মহিলা কলেজে অধ্যয়নরত। ছাত্রী বহনকারী বাসটি সাইনবোর্ড এলাকায় এলেই হামলা করে বাসের গ্লাস ভাঙচুর করে শ্রমিকরা। পরে ছাত্রীদের গায়েও কালি মাখিয়ে দেয়। 

নারায়ণগঞ্জ সরকারি মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ বেদৌরা বিনতে হাবিবা বলেন, আমাকে চালক জানিয়েছে ঘটনা। সেখানে শ্রমিকরা কয়েকটি গ্লাস ভাঙচুর করেছে এবং ছাত্রীদের সঙ্গে একটু সমস্যা হয়েছে। তাদের গায়ে কালিও দিয়েছে জানালো। বাসটি আপাতত একপাশে রাখা হয়েছে, কলেজে বাসটি ফিরলে বিস্তারিত জানতে পারবো। 

একই সময়ে সিদ্ধিরগঞ্জে একটি অ্যাম্বুলেন্সে রোগী না থাকায় কালি লেপে দেন শ্রমিকরা। 

অ্যাম্বুলেন্সের চালক আব্দুল্লাহ বাংলানিউজকে জানান, রোগী আনতেই তিনি যাচ্ছিলেন। রোগী আনতে গেলে তো খালিই যেতে হবে। তবে তার সেই কথা না শুনেই কালি ও পোড়া মবিল দিয়ে অ্যাম্বুলেন্সের বাইরের দিক ভরে ফেলেন শ্রমিকরা।

***গাড়ি নামানোয় আলকাতরা-মবিল মেখে দিলেন শ্রমিকরা

বাংলাদেশ সময়: ১৫২৯ ঘণ্টা, অক্টোবর ২৮, ২০১৮
এএ

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   নারায়ণগঞ্জ
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2018-10-28 15:35:30