[x]
[x]
ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ১৫ নভেম্বর ২০১৮
bangla news

ছাদ থেকে ফেলে শিশুপুত্রকে হত্যার পর মায়ের আত্মহত্যা

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-১০-১৯ ১২:২০:৫৮ পিএম
হাসপাতালের নিচে পড়ে আছে সীমার মরদেহ। ছবি-বাংলানিউজ

হাসপাতালের নিচে পড়ে আছে সীমার মরদেহ। ছবি-বাংলানিউজ

ব্রাহ্মণবাড়িয়া: ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় একটি বেসরকারি হাসপাতালের ছয় তলার ছাদ থেকে ফেলে নিজের নবজাতক ছেলেকে হত্যার পর সীমা আক্তার (২৫) নামে এক নারী আত্মহত্যা করেছেন।

শুক্রবার (১৯ অক্টোবর) সকাল ৯টার দিকে শহরের পুরাতন জেলরোড এলাকার লাইফ কেয়ার হাসপাতালে এ দুর্ঘটনা ঘটে। সীমা সদর উপজেলার ঘাটিয়ার গ্রামের প্রবাসী মনির মিয়ার স্ত্রী।

পুলিশ ও পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, সীমাকে গত ১৬ অক্টোবর পরিবারের লোকজন বাচ্চা প্রসব করানোর জন্য শহরের লাইফ কেয়ার নামে একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করেন। তারপর তার একটি ছেলে হয়। তিনদিন ধরে মা-ছেলের চিকিৎসা চলছিল এ হাসপাতালে। শুক্রবার সকালে সীমার মা রেহেনা বেগম হাসপাতালের রুম থেকে নাস্তা আনার জন্য নিচে বের হন। এ সুযোগে সীমা ছেলেকে নিয়ে হাসপাতালের ছাদে উঠে প্রথমে ছেলেকে ফেলে দেন এবং পরে নিজেও লাফিয়ে পড়েন। এতে ঘটনাস্থলেই দু’জনের মৃত্যু হয়। সীমার নবজাতক সন্তানের মরদেহ। ছবি-বাংলানিউজ

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক সেলিম হোসেন জানান, প্রাথমিকভাবে ধারণা হচ্ছে, পারিবারিক কলহের জেরে এ ঘটনা ঘটেছে। 

তবে, একটি সূত্র জানায়, হাসপাতালের বিল পরিশোধের বিষয়টি নিয়ে সীমা অনেক মানসিক চাপের মধ্যে ছিলেন।  

বাংলাদেশ সময়: ১২১৬ ঘণ্টা, অক্টোবর ১৯, ২০১৮
এসআই

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
db