[x]
[x]
ঢাকা, রবিবার, ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ১৮ নভেম্বর ২০১৮
bangla news

গাজীপুরে বজ্রপাতে তিনজনের মৃত্যু

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-০৯-২৫ ১:৪৪:৩১ পিএম
প্রতীকী ছবি।

প্রতীকী ছবি।

গাজীপুরের কালীগঞ্জ উপজেলার জাঙ্গালিয়া ইউনিয়নের পুনশই ও সদর উপজেলার বাড়িয়া ইউনিয়নের নাসারান এলাকায় বজ্রপাতে ৩ জনের মৃত্যু হয়েছে।

মঙ্গলবার (২৫ সেপ্টেম্বর) ভোরে পুনশই এলাকায় বেলাই বিলে দু’জন এবং নাসারান এলাকায় একই সময় একজন নিহত হয়। পরে স্থানীয়রা সকালে মরদেহ উদ্ধার করে। 

নিহতরা হলেন- গাজীপুরের কালীগঞ্জ উপজেলার জাঙ্গালিয়া ইউনিয়নের পুনশই এলাকার তাজুল ইসলাম (৫০) ও একই এলাকার হান্নান শেখের ছেলে মামুন শেখ (৩০) এবং গাজীপুর সদর উপজেলার বাড়িয়া ইউনিয়নের নাসারান এলাকার রখিন্দ্রনাথ (৪২)।  
জাঙ্গালিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান গাজী সারোয়ার হোসেন বাংলানিউজকে জানান, সোমবার রাতে পুনশই এলাকায় বেলাই বিলে নৌকায় করে বরশি এবং টেটা দিয়ে মাছ ধরতে যায় তাজুল ইসলাম ও মামুন শেখ। ভোরে বজ্রপাতের সময় তারা নৌকা থেকে পানিতে পড়ে ডুবে যায়। এ সময় আশপাশে মাছ ধরতে যাওয়া অন্য লোকজন তাদের নৌকায় দেখতে না পেয়ে এগিয়ে যায়। পরে নিহতদের পরিবার ও এলাকবাসীকে খবর দেয়া হয়। খবর পেয়ে তাদের পরিবারের লোকজন এবং এলাকাবাসী ঘটনাস্থলে গিয়ে পানির নিচ থেকে তাজুল ইসলাম ও মামুন শেখের মরদেহ উদ্ধার করে। 

কালীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবু বকর মিয়া বাংলানিউজকে জানান, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মরদেহের সুরতহাল করা হয়েছে। নিহতদের নাক ও কান দিয়ে রক্ত বের হচ্ছিল এবং তাদের শরীর ঝলসে গেছে। 

এদিকে বাড়িয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আক্তারুজ্জামান শক্কুর জানান, গাজীপুর সদর উপজেলার বাড়িয়া ইউনিয়নের নাসারান এলাকায় একটি বিলে রখিন্দ্রনাথসহ ৪/৫ জন নৌকা নিয়ে মাছ ধরতে যায়। ওই সময় বজ্রপাতের ঘটনা ঘটলে রখিন্দ্রনাথ ঘটনাস্থলে মারা যান। 

জয়দেবপুর থানার বাড়িয়া পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ উপ পরিদর্শক (এসআই) সাইফুল আলম বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, বজ্রপাতে রখিন্দ্রনাথ ঘটনাস্থলেই মারা যায়। পরে পরিবারের লোকজন মরদেহ নিয়ে যায়। 

বাংলাদেশ সময়: ১৩৪০ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৫, ২০১৮। 
আরএস/এএটি/এসএইচ

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   গাজীপুর বজ্রপাতে মৃত্যু 
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache