ঢাকা, বুধবার, ৮ আশ্বিন ১৪২৭, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৪ সফর ১৪৪২

জাতীয়

মরা গাঙে আনন্দের জোয়ার

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৫৩৩ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৪, ২০১৮
মরা গাঙে আনন্দের জোয়ার নৌকাবাইচ প্রতিযোগিতা। ছবি: বাংলানিউজ

মাদারীপুর: মাদারীপুর জেলার শিবচর উপজেলার বাঁশকান্দি ইউনিয়ন। বর্ষাকালে এ ইউনিয়নসহ আশ-পাশের এলাকা প্লাবিত হয় পানিতে। বিস্তৃত ফসলের ক্ষেত, বিল বা বাড়ির আঙিনায় পানি থাকবেই। ছোট নৌকায় করে চলে যাতায়াত। এক সময় এ এলাকার সবার ঘরেই ছিল অন্তত একটি করে নৌকা।

প্রয়োজনীয় কাজ ছাড়াও বিকেলের অবসর সময়টা দিগন্ত বিস্তৃত জলাশয়ে ঘুরে বেড়ানো ছিল অবসর সময় কাটানোর একমাত্র বিনোদন।  

এসব এলাকাতে বর্ষা এলেই নৌকাবাইচ হতো।

নৌকাবাইচ উপলক্ষে আত্মীয়-স্বজনেরাও বেড়াতে আসতো এ এলাকায়। চারদিকে পানি থাকায় গ্রামে গ্রামেই অনুষ্ঠিত হতো নৌকাবাইচ প্রতিযোগিতা। তবে সময় বদলে গেছে। বর্তমানে এসব এলাকাও অনেকটা পানি শূন্য। জলাশয় ভরাট, পানি প্রবাহের পথে বাধাসৃষ্টিসহ বিভিন্ন কারণেই এসব এলাকায় আগের মতোন আর পানি নেই। যে এলাকায় নৌকাবাইচ ছিল অন্যতম ঐতিহ্য সেখানে নৌকাবাইচ ভুলতে বসেছে বর্তমান প্রজন্ম। নৌকাবাইচ প্রতিযোগিতা।  ছবি: বাংলানিউজবাঁশকান্দি ইউনিয়নের শেখপুর এলাকার একমাত্র নদী বিলপদ্মা। শুধুমাত্র বর্ষায় প্রাণ ফিরে পাওয়া এ নদীতে আয়োজন ছিল নৌকা বাইচের।

রোববার (২৩ সেপ্টেম্বর) দুপুরের সূর্য একটু পশ্চিমে হেলে পরতেই দূর-দুরান্ত থেকে ছোট ছোট নৌকায় করে আসতে শুরু করে দর্শকেরা। প্রায় হারিয়ে যেতে থাকা ঐতিহ্য ‘নৌকাবাইচ’ দেখতে নারী-পুরুষের সঙ্গে শিশুরাও জড়ো হতে থাকে নদীর পাড়ে। ছোট ছোট নৌকা নদীর দু'পাড়জুড়ে সারিবদ্ধভাবে রেখে অপেক্ষায় থাকেন দর্শকেরা।

নৌকাবাইচকে ঘিরে কয়েক গ্রামের মানুষের এক মিল মেলায় পরিণত হয় নদীর চারপাশজুড়ে। যেন ‌‌‌'মরা গাঙে বইতে থাকে আনন্দের জোয়ার'।

বিকেল পাঁচটার দিকে শুরু হয় নৌকাবাইচ প্রতিযোগিতা। মূর্হুমুহু করতালি ও আনন্দ ধ্বনিতে প্রাণচাঞ্চল্য ফিরে আসে বিলপদ্মায়!

আয়োজকরা জানান, বর্ষা মৌসুমে বিভিন্ন এলাকায় গ্রাম বাংলার ঐতিহ্যবাহী নৌকাবাইচের আয়োজন করতো এলাকাবাসী। সময়ের বিবর্তনে নৌকা বাইচ নিয়ে প্রতিযোগিতা অনেকটাই হারিয়ে যেতে বসেছে।   এক সময় এ এলাকায় জনপ্রিয় ছিল নৌকাবাইচ। সেই নৌকা বাইচের ধারাবাহিকতা মানুষের মধ্যে তুলে ধরতে মানুষের মনে আনন্দ উদ্দীপনা জাগ্রত করে তুলতে এই ব্যতিক্রমী আয়োজন করা হয়। নৌকাবাইচ প্রতিযোগিতা।  ছবি: বাংলানিউজপ্রতিযোগিতায় বাঁশকান্দি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবুল বাশার মুন্সীর নৌকা প্রথমস্থান, নূর আলম খানের নৌকা দ্বিতীয়স্থান ও ছোহরাব তায়ানী এবং ইউসুব খান যৌথভাবে তৃতীয় স্থান অর্জন করে।  

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শিবচর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ইমরান আহমেদ। পরে সন্ধ্যায় প্রতিযোগিতা শেষে বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন শিবচর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ডা. মো. সেলিম মিয়া।

এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন বাশকান্দি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ নুর মোহাম্মদ মল্লিকি, শিবচর থানা আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদক ও শিবচর প্রেসক্লাবের সভাপতি একে এম নাসিরুল হক, বাশকান্দি ইউপি চেয়ারম্যান আবুল বাশাার মুন্সী, বাশকান্দি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাইফুল আলম রিপনসহ অন্যরা।

বাংলাদেশ সময়: ১২২৯ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৪, ২০১৮
এএটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa