[x]
[x]
ঢাকা, সোমবার, ৭ কার্তিক ১৪২৫, ২২ অক্টোবর ২০১৮
bangla news

প্রেমের ফাঁদে ফেলে ডেকে এনে কিশোরীকে হত্যা

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-০৯-১৯ ৫:১৪:৩৬ পিএম
পুলিশের হাতে গ্রেফতার শফিক মিয়া । ছবি: বাংলানিউজ

পুলিশের হাতে গ্রেফতার শফিক মিয়া । ছবি: বাংলানিউজ

সিলেট: প্রেমের ফাঁদে ফেলে টাঙ্গাইল থেকে রুমি আক্তার (১৬) নামের এক কিশোরীকে সিলেটের বিশ্বনাথে ডেকে এনে হত্যার অভিযোগ উঠেছে শফিক মিয়া (৩২) নামের এক যুবকের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় মঙ্গলবার (১৮ সেপ্টেম্বর) রাতে শফিক মিয়া গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

বুধবার (১৯ সেপ্টেম্বর) দুপুরে জেলা পুলিশের কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান পুলিশ সুপার (এসপি) মনিরুজ্জামান।

জেলা পুলিশ সুপার জানান, গত ১০ সেপ্টেম্বর বিশ্বনাথের রামপাশা ইউনিয়নে রাস্তার পাশে একটি বাড়ি থেকে অজ্ঞাতনামা এক কিশোরীর মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। পরে ওই কিশোরীর সঙ্গে থাকা মোবাইল ফোন নম্বরের সূত্র ধরে এ হত্যা রহস্য উদঘাটন করা হয়। তথ্য-প্রযুক্তির সহায়তায় মঙ্গলবার টাঙ্গাইলের নাছির গ্লাস ফ্যাক্টরি থেকে শফিককে গ্রেফতার করে বিশ্বনাথ থানা পুলিশ। শফিক বিশ্বনাথের রামচন্দ্রপুর গ্রামের শফিক মিয়ার ছেলে।

তিনি বলেন, গত ৯ সেপ্টেম্বর টাঙ্গাইলের কুমুদিনী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলো জেলার মির্জাপুর থানার আতাউর রহমানের মেয়ে রুমি আক্তার। একই হাসপাতালে শফিকের শাশুড়িও চিকিৎসাধীন ছিলেন। সেখানেই তাদের পরিচয় হয়। পরিচয়ের সূত্রে প্রেমের অভিনয় করে রুমিকে সিলেট নিয়ে আসে শফিক। এরপর তাকে ধর্ষণের পর হত্যা করে।

এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় শফিকসহ ১৪ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে শফিক হত্যাকাণ্ডের কথা স্বীকার করেছেন। শফিক বিশ্বনাথ থানায় দায়ের করা একটি গণধর্ষণ মামলার পলাতক আসামি।

বৃহস্পতিবার (২০ সেপ্টেম্বর) তাকে আদালতে হাজির করে রিমান্ড আবেদন করা হবে বলেও জানান এসপি মনিরুজ্জামান।

বাংলাদেশ সময়: ১৭০৪ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ১৯, ২০১৮
এনইউ/ওএইচ/

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   ধর্ষণ সিলেট হত্যা
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache