[x]
[x]
ঢাকা, মঙ্গলবার, ১ কার্তিক ১৪২৫, ১৬ অক্টোবর ২০১৮
bangla news

সংসদে পাসের তালিকায় আলোচিত ৩ বিল

শাহজাহান মোল্লা, সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-০৯-১৯ ১:০৮:১৪ পিএম
জাতীয় সংসদ ভবন

জাতীয় সংসদ ভবন

ঢাকা: সরকারের মেয়াদের শেষ মুহুর্তে এসে বহুল আলোচিত তিনটি বিল সংসদে পাসের কার্যতালিকায় রাখা হয়েছে। নিরাপদ সড়ক নিয়ে শিক্ষার্থীদের দাবির প্রেক্ষিতে দ্রুততম সময়ের মধ্যে পাস হতে যাচ্ছে সড়ক পরিবহন বিল।

পাশাপাশি বহুল আলোচিত ডিজিটাল নিরাপত্তা বিল ও আল-হাইআতুল উলয়া লিল জামি’আতিল কওমিয়া বাংলাদেশের অধীনে কওমি মাদরাসাগুলোর দাওরায়ে হাদিস (তাকমীল) এর সনদকে মাস্টার্স ডিগ্রি (ইসলামিক স্টাডিজ ও আরবি) এর সমমান বিল পাসের তালিকায়।

বুধবার (১৯ সেপ্টেম্বর) দশম জাতীয় সংসদের ২২তম অধিবেশনে দিনের কার্যসূচিতে আলোচিত এই তিনটি বিল পাসের তালিকায় রাখা হয়েছে। কার্যসূচি অনুযায়ী বিকেল ৫টায় সংসদের অধিবেশন শুরু হবে।

এদিকে, গণমাধ্যমের আপত্তির মুখে ডিজিটাল নিরাপত্তা বিলে কয়েকটি ধারায় কিছুটা পরিবর্তন আনা হয়েছে। এক্ষেত্রে ওই আইনের অধীনে অপরাধের কিছু জায়গায় শাস্তি কমানোরও সুপারিশ করা হয়েছে।

এর আগে ১৭ সেপ্টেম্বর (সোমবার) সন্ধ্যায় সংসদীয় কমিটির সভাপতি ইমরান আহমেদ বিলের প্রতিবেদন সংসদে উপস্থাপন করেন।

এই বিলে গণমাধ্যম প্রতিনিধিদের অংশগ্রহণের প্রসঙ্গ এনে বিল উত্থাপনকালে সংসদে দেওয়া বক্তব্যে কমিটির সভাপতি ইমরান আহমেদ বলেন, গণমাধ্যম প্রতিনিধিদের বক্তব্য সন্নিবেশ করে প্রয়োজনীয় সংশোধনী আনা হয়েছে। এই বিলটি পাস হলে তা ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ায় ভূমিকা রাখবে।

এর বিপরীতে, সংসদে প্রতিবেদন উপস্থাপনের আগেই প্রতিবেদনের সুপারিশগুলো নিয়ে গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশিত হওয়ার পর সম্পাদক পরিষদ রোববার (১৬ সেপ্টেম্বর) এক বিবৃতি দিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে।

গত ২৯ জানুয়ারি ‘ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন-২০১৮’ এর খসড়ার চূড়ান্ত অনুমোদন দেয় মন্ত্রিসভা। আলোচিত এই আইনের খসড়া আইনসভার অনুমোদনের জন্য গত ৯ এপ্রিল সংসদে উত্থাপন করেন ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তফা জব্বার।

অন্যদিকে, ১৩ সেপ্টেম্বর জাতীয় সংসদে উত্থাপিত হয় আলোচিত ‘সড়ক পরিবহন বিল ২০১৮’। এতে বেপরোয়া মোটরযানের কবলে পড়ে দুর্ঘটনার ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ পাঁচ বছরের সাজার বিধান রাখা হয়েছে। সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বিলটি উত্থাপন করেন। পরে তা পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে সাত দিনের মধ্যে সংসদে প্রতিবেদন দেওয়ার জন্য সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটিতে পাঠানো হয়। গত ২৯ জুলাই রাজধানীতে সড়ক দুর্ঘটনায় শহীদ রমিজউদ্দিন ক্যান্টনমেন্ট কলেজের দুই শিক্ষার্থীর মৃত্যুর ঘটনাকে কেন্দ্র করে নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলনে নামেন শিক্ষার্থীরা। তাদের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে সরকার আইনটি দ্রুত প্রণয়নের উদ্যোগ নেয়।

এছাড়া সংসদের চলতি অধিবেশনেই উত্থাপিত হয় ‘কওমি মাদ্রাসাগুলোর দাওরায়ে হাদিসের সনদকে মাস্টার্স ডিগ্রি (ইসলামিক স্টাডিজ ও আরবি) সমমান বিল, ২০১৮’। এর আগে গত ১৩ আগস্ট প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মন্ত্রিসভা বৈঠকে কওমি সনদের স্বীকৃতি আইনের খসড়ার নীতিগত অনুমোদন দেওয়া হয়।

২০১৭ সালের ১১ এপ্রিল গণভবনে হেফাজতে ইসলামের আমির ও বেফাকুল মাদারিসিল আরাবিয়া বাংলাদেশের (বেফাক) সভাপতি আল্লামা শাহ আহমদ শফীসহ প্রায় ৩০০ জন আলেমের উপস্থিতিতে আনুষ্ঠানিকভাবে কওমি মাদ্রাসার সনদের স্বীকৃতির ঘোষণা দিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী। এরপর শিক্ষা মন্ত্রণালয় ১৩ এপ্রিল কওমি মাদ্রাসার দাওরায়ে হাদিসের সনদকে মাস্টার্স ইসলামিক স্টাডিজ এবং আরবি’র সমমান ঘোষণা করে গেজেট প্রকাশ করে। ওই গেজেটে আল্লামা শাহ আহমদ শফীকে চেয়ারম্যান করে ১৫ সদস্যের একটি বাস্তবায়ন কমিটি ঘোষণা করা হয়। এ কমিটির উদ্যোগে গঠিত হয় আল-হাইআতুল উলয়া লিল জামি’আতিল কওমিয়া বাংলাদেশ’ নামে নতুন সংস্থা। এর অধীনে ২০১৭ ও ২০১৮ সালে দেশের মাদ্রাসাগুলোয় দাওরায়ে হাদিস পরীক্ষাও অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৩০২ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ১৯, ২০১৮
এসএম/টিএ

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   সংসদ আইন
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa