bangla news

দক্ষিণ সিটিতে ৯০ শতাংশ কোরবানি বর্জ্য অপসারণ

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-০৮-২৩ ৪:৪৮:১৫ এএম
বর্জ্য ব্যবস্থাপনা নিয়ে ব্রিফিং করছেন মেয়র সাঈদ খোকন। ছবি: বাংলানিউজ

বর্জ্য ব্যবস্থাপনা নিয়ে ব্রিফিং করছেন মেয়র সাঈদ খোকন। ছবি: বাংলানিউজ

ঢাকা: ঘোষিত ২৪ ঘণ্টার মধ্যে দক্ষিণ সিটিতে ৯০ শতাংশ কোরবানির বর্জ্য অপসারণ সম্পন্ন হয়েছে বলে জানিয়েছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র সাঈদ খোকন।

তিনি বলেছেন, আমরা ঘোষণা দিয়েছিলাম ২৪ ঘণ্টার মধ্যে বর্জ্য অপসারণ করবো। সেই কাজ অনেকটাই সম্পন্ন হয়েছে। আজ এবং কালও কোরবানি হবে। তাই যতক্ষণ পর্যন্ত বর্জ্য থাকবে ততক্ষণ পরিচ্ছন্নকর্মী মাঠে থাকবেন। আমরা শতভাগ বর্জ্য অপসারণ করে নগরবাসীকে সুন্দর নগরী উপহার দেবো। 

বৃহস্পতিবার (২৩ আগস্ট) দুপুর দুইটার পর বর্জ্য অপসারণ পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে একথা বলেন মেয়র সাঈদ খোকন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন ডিএসসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা খান মোহাম্মদ বিলাল, সুশীল সমাজের প্রতিনিধি স্থপতি মোবাশ্বের হোসেন, কলামিস্ট সৈয়দ আবুল মকসুদ প্রমুখ।মেয়র সাঈদ খোকন বলেন, আমাদের লক্ষ্যমাত্রা ছিলো ২০ হাজার মেট্রিকটন কোরবানির বর্জ্য হবে। এরই মধ্যে ১৫ হাজার মেট্রিক টন বর্জ্য অপসারণ করা হয়েছে। আগামীকালও (বৃহস্পতিবার) কোরবানি হবে, তাই কাঙ্ক্ষিত ২০ হাজার মেট্রিক টন বর্জ্য অপসারণ করে আমরা শতভাগ পরিষ্কার করে নগরবাসীকে পরিচ্ছন্ন নগরী উপহার দেবো।

মেয়র বলেন, ঈদের আগে আমরা ২৪ ঘণ্টা সময় বেঁধে দিয়েছিলাম যে, ২৪ ঘণ্টার মধ্যে আমাদের শহরকে কোরবানির বর্জ্য অপসারণ করে পরিচ্ছন্ন শহর উপহার দেবো। গতকাল অর্থাৎ বুধবার দুপুর ২টা থেকে এই কার্যক্রম উদ্বোধন করা হয়, যা এখনো চলমান।

তিনি বলেন, আজ (বৃহস্পতিবার) বেলা ২টা পর্যন্ত ডিএসসিসি এলাকার ৯০ ভাগ কোরবানির বর্জ্য অপসারিত হয়েছে। এই কাজে ডিএসসিসি’র ৪০৫টি যানবাহন ও ভারী যন্ত্রপাতি ব্যবহার হয়েছে। এই ২৪ ঘণ্টায় কম বেশি ৩ হাজার ২০০ ট্রিপের মাধ্যমে মাতুয়াইল বর্জ্য স্টেশনে বর্জ্য ফেলা হয়েছে। আমাদের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ২০ হাজার মেট্রিক টন কোরবানির বর্জ্য উৎপন্ন হবে। এরইমধ্যে ১৫ হাজার মেট্রিক টন বর্জ্য অপসারিত হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার এবং কাল শুক্রবারও কিছু কোরবানি হবে। সেখান থেকে কমবেশি কিছু বর্জ্য উৎপন্ন হবে। কাজেই লক্ষ্যমাত্রা অনুযায়ী আমরা ২০ হাজার মেট্রিক টন বর্জ্য অপসারণ করে নগরবাসীকে পরিচ্ছন্ন শহর উপহার দেবো।

তিনি বলেন, যেহেতু আজ ও কাল কোরবানি হবে। তাই আমাদের কর্মকর্তা-পরিচ্ছন্নতাকর্মীরা মাঠে থাকবেন। যতক্ষণ না পর্যন্ত শতভাগ কোরবানি বর্জ্য অপসারিত হবে ততক্ষণ পর্যন্ত এই কার্যক্রম চলবে। আমরা শতভাগ বর্জ্য অপসারণ করতে চাই।
 
বাংলাদেশ সময়: ১৪৪২ ঘণ্টা, আগস্ট ২৩, ২০১৮/আপডেট: ১৭১০ ঘণ্টা
এসএম/এমএ/জেডএস

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   কোরবানির চামড়া
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2018-08-23 04:48:15