bangla news

মায়ের সঙ্গেই ঈদ করবেন মাশরাফি

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-০৮-২০ ১২:০৩:০০ এএম
মাশরাফি ও তার মা

মাশরাফি ও তার মা

নড়াইল: সব কিছু ঠিক থাকলে মঙ্গলবার (২১ আগস্ট) ছেলে-মেয়ে ও স্ত্রীকে নিয়ে রাজধানী থেকে চিরচেনা নড়াইলে মায়ের কাছে আসবেন ওয়ানডে ক্রিকেটের সফল অধিনায়ক ‘নড়াইল এক্সপ্রেস’ খ্যাত সেরা বাঙালি মাশরাফি বিন মর্তুজা। আর নিজ জন্মস্থান নড়াইলে মাকে উপহার দেওয়া স্বপ্নের বড়িতেই (মর্তুজা কটেজ) পরিবার-পরিজন নিয়ে ঈদুল আজহা উদযাপন করবেন এই ক্রিকেট তারকা।

সোমবার (২০ আগস্ট) সকালে বাংলানিউজকে এসব তথ্য জানান মাশরাফি বিন মর্তুজার রত্নগর্ভা মা হামিদা মর্তুজা বলাকা।

তিনি জানান, মাশরাফি দেশে থাকলে প্রতিবারই ঈদে মাটি ও মানুষের টানে নড়াইলে ছুটে আসে। এ বছরও সে (মাশরাফি) নড়াইলে পরিবারের সঙ্গে ঈদ করবেন বলে তাকে (মাশরাফির মাকে) নিশ্চিত করেছেন।
ঈদের পরে মাশরাফি নড়াইলে কতদিন থাকবেন সে বিষয়ে মাশরাফি নড়াইলে এলেই জানা যাবে বলে জানিয়েছেন এই রত্মগর্ভা মা।  

উল্লেখ্য মায়ের স্বপ্ন পূরণ করতেই ‘মর্তুজা কটেজ’ নামে একটি স্বপ্নের বাড়ি তৈরি করেছেন বাংলাদেশ দলের ওয়ানডে ক্রিকেটের সফল অধিনায়ক ‘নড়াইল এক্সপ্রেস’ খ্যাত মাশরাফি বিন মর্তুজা। নড়াইল শহরে মহিষখোলা এলাকায় প্রায় ৩ কাঠা জমির ওপর নিজেদের পুরনো বাড়িতেই নতুন ডুপ্লেক্স বাড়ি নির্মাণ করছেন মাশরাফি। ডুপ্লেক্স দোতলা বাড়িটির প্রতিটি তলা ১২৫০ স্কয়ার ফিট। দ্বিতীয় তলায় আছে একটা মাস্টার বেডরুমসহ মোট ৪টি বেডরুম। প্রতিটি বেডরুমের সঙ্গে বাথরুম, প্রতিটি শোবার ঘরের সঙ্গেই বারান্দা। আরও আছে একটা ফ্যামিলি লিভিং রুম ও একটা ড্রাই কিচেন। বাড়ির নিচতলায় রয়েছে বড় ড্রইং (হল) রুম, একটি ডাইনিং রুম, একটা রান্নাঘর, একটি গেস্ট বেডরুম, একটি কমন বাথরুম, একটা সার্ভেন্ট বেডরুম আর তার সঙ্গে লাগোয়া একটা বাথরুম। এছাড়া রয়েছে দু’টি জিপ রাখার পার্কিং ব্যবস্থা। আর এই বাড়িতেই স্বজনদের সঙ্গে ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করবেন এই ক্রিকেট তারকা।

বাংলাদেশ সময়: ০৯৫১ ঘণ্টা, আগস্ট ২০, ২০১৮ 
আরএ

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   মাশরাফি বিন মর্তুজা নড়াইল
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
db 2018-08-20 00:03:00