[x]
[x]
ঢাকা, শনিবার, ৭ আশ্বিন ১৪২৫, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮
bangla news

‘কার্লাইলের কাজটা অসৌজন্যমূলক’

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-০৭-১২ ১২:০৩:৪৬ পিএম
ব্রিটিশ আইনজীবী লর্ড আলেকজান্ডার কার্লাইল/ছবি: সংগৃহীত

ব্রিটিশ আইনজীবী লর্ড আলেকজান্ডার কার্লাইল/ছবি: সংগৃহীত

ঢাকা: বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার ব্রিটিশ আইনজীবী লর্ড আলেকজান্ডার কার্লাইল যে কাজটা করতে যাচ্ছিলেন, সে কাজটা অত্যন্ত অসৌজন্যমূলক বলে মন্তব্য করেছেন দুর্নীতি দমন কমিশনের আইনজীবী খুরশীদ আলম খান।

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলার আপিল শুনানি চলাকালে এ মামলা নিয়ে যে কোন দেশে তিনি যদি সংবাদ সম্মেলন করেন, তা আদালতের নজরে আনা হবে বলেও জানিয়েছেন এ আইনজীবী।   
 
বৃহস্পতিবার সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ মন্তব্য করেন। 
 
বুধবার (১১ জুলাই) রাতে কার্লাইল ভারতে দিল্লি বিমানবন্দরে এসে পৌঁছালে ইমিগ্রেশন কর্মকর্তারা তাকে লন্ডন ফেরত পাঠিয়ে দেন। 
 
এক প্রশ্নের জবাবে খুরশীদ আলম খান বলেন, ‘তিনি (কার্লাইল) একজন হাইপ্রোফাইল ল’ইয়ার, ব্যারিস্টার। কিন্তু তিনি যে কাজটা করতে যাচ্ছিলেন, সে কাজটা অত্যন্ত অসৌজন্যমূলক। কারণ তিনি ভারতবর্ষে গিয়ে একটি স্বাধীন রাষ্ট্রের (বাংলাদেশের) বিচার ব্যবস্থা নিয়ে মন্তব্য করবেন, সমালোচনা করবেন, এটা কোনো সুস্থ-বিবেকবান মানুষ অ্যালাউ করবে না। আমরা এটার তীব্র প্রতিবাদ জানাই। তিনি ভারতে যেতেই পারেন। এটা ওনার ব্যাপার। কিন্তু একটি স্বাধীন সার্বভৌম দেশের বিরুদ্ধে আরেকটি দেশে গিয়ে মন্তব্য করবেন, এটা তার পক্ষ থেকে আমরা আশা করিনি। 
 
জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলার বিষয়ে খুরশীদ আলম খান বলেন, আপিলের রায়ে কী হবে, সেটা আমরাও জানি না। খালেদা জিয়ার আইনজীবীরাও জানেন না। বিচারাধীন একটি মামলা নিয়ে আমরা কোনো মন্তব্য করি না। এখানে রায়ে কী হবে, না হবে, তা তো আমরা জানি না। মাত্র (বৃহস্পতিবার) এ মামলার আপিল শুনানি শুরু হলো। একজন সাধারণ মানুষ ভুল করতে পারেন। কিন্তু একজন আইনজ্ঞ হয়ে তার তো এটা ভুল হওয়ার কথা নয়।’
 
আরেক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, যদি লর্ড কার্লাইল জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট সংক্রান্ত আপিল চল‍াকাল‍ীন বিষয়ে কোনো দেশে যদি কেনো মন্তব্য করেন এবং সংবাদ মাধ্যমে সেটি আমাদের দৃষ্টিগোচর হয় অবশ্যই আদালতের নজরে নিয়ে আসবো।
 
ব্রিটিশ পার্লামেন্টের হাউস অব কমন্সের সদস্য কার্লাইল খালেদার আইনজীবী হিসেবে দিল্লিতে বৃহস্পতিবার (১২ জুলাই) সংবাদ সম্মেলন করবেন বলে জানিয়েছিলেন। কিন্তু দিল্লি আসার জন্য তার উপযুক্ত ভিসা ছিল না বলে তা বাতিল করেছে ভারত। ভারতীয় সংবাদ মাধ্যমে এমনটাই জানিয়েছে।

খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলা ‘সাজানো’ এবং ‘রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে প্রণোদিত’ বলে মনে করেন ব্রিটিশ এ আইনজীবী। একই সঙ্গে এটাও মনে করেন খালেদা জিয়ার মামলায় যে সাক্ষ্যপ্রমাণ আদালতে পেশ করা হয়েছে সেগুলোও গ্রহণযোগ্য নয়। আর এ বিষয়গুলোই সংবাদ সম্মেলনে ব্যাখ্যা করতে চেয়েছিলেন তিনি।

বাংলাদেশ সময়: ২১৫৫ ঘণ্টা, জুলাই ১২, ২০১৮
ইএস/এসএইচ

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   রাজনীতি বিএনপি আদালত
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa