[x]
[x]
ঢাকা, মঙ্গলবার, ১ কার্তিক ১৪২৫, ১৬ অক্টোবর ২০১৮
bangla news

খুলনার পার্লারগুলো জমজমাট

মাহবুবুর রহমান মুন্না, ব্যুরো এডিটর | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-০৬-১৪ ৬:২৪:৫৪ এএম
বিউটি পার্লারে আসা সৌন্দর্য্য পিপাসুরা। ছবি: বাংলানিউজ

বিউটি পার্লারে আসা সৌন্দর্য্য পিপাসুরা। ছবি: বাংলানিউজ

খুলনা: ঈদের আগে রূপ সচেতন নারীদের ভিড় এখন পার্লারগুলোতে। হেয়ারকাট, ফেশিয়ালের পাশাপাশি ঈদ উৎসবকে রাঙিয়ে তুলতে বেশকিছু নতুন হেয়ার কালারও যুক্ত করেছে পার্লারগুলো। আর দু'দিন পরেই ঈদ।

তাই শেষ মুহূর্তে এখন চলছে সাজসজ্জার পালা। তরুণীদের উপচেপড়া ভিড়ে জমজমাট হয়ে উঠেছে খুলনার প্রতিটি বিউটি পার্লার।

বিউটিশিয়ানরা জানান, মেহেদি লাগানো, চুল কাটা, চুলের ট্রিটমেন্ট, ফেসিয়াল, মেনিকিউর, পেডিকিউর করাতে নারীরা ভিড় করছেন পার্লারগুলোতে।

বৃহস্পতিবার (১৪ জুন) সরেজমিনে কয়েকটি পার্লারঘুরে দেখা গেছে, ছাত্রী থেকে শুরু করে নানা বয়সী নারী চেহারার সঙ্গে মানানসই নিত্যনতুন ডিজাইনে চুল কাটা, রঙ করা, ফেসিয়াল, রিবন্ডিং, হ্যান্ড অ্যান্ড ফুট কেয়ার, ব্লিচ, স্কিন পলিশ, মেহেদি লাগাতে ভিড় করছেন।

তারা আরও জানান, চুল স্ট্রেট করানো, চুলে কালার লাগানোর বিষয়ে তরুণীদের আগ্রহ বেশি। বিউটি পার্লারগুলোতে স্টেপ, শর্ট স্টেপ, ফেদার কাট, ইউ কাটসহ নানা রকম চুলের কাটিং করানো হচ্ছে।

যার মূল্য ১০০ টাকা থেকে ৬শ টাকা। চুলে কালার করাতে নেওয়া হচ্ছে ৩শ’ থেকে ১ হাজার টাকা। ফেসিয়ল করাতে তিনশ’ টাকা থেকে দুই হাজার টাকা। আর চুলে মেহেদি লাগাতে নেওয়া হচ্ছে ৩শ’ থেকে ৫শ’ টাকা। হাত মেহেদিতে রাঙাতে নেওয়া হচ্ছে ৫০ টাকা থেকে ৩শ’ টাকা।

ঈদ উপলক্ষে অলিগলি থেকে শুরু করে অভিজাত এলাকার পার্লারগুলোতে কোনো বিরতি নেই। ঘণ্টা পর ঘণ্টা অপেক্ষা করে বসে থেকে তরুণীরা কাজ করাতে পারছেন।

হোটেল ক্যাসল সালামের তানিয়া বিউটি পার্লারের মালিক বিউটিশিয়ান ও মেকাপ আর্টিস্ট তানিয়া বাংলানিউজকে বলেন, সকাল ৭টা থেকে সৌন্দর্য্য পিপাসুরা আসতে শুরু করেছেন। পার্লারে তিল ধারণের ঠাঁই নেই।

তরুণীরা কি কি কাজ করছেন জানতে চাইলে তিনি বলেন, কেউ হেয়ার স্টাইল পরিবর্তন করছেন, কেউ ফেসিয়াল করছেন, কেউ করছেন ভ্রু প্লাগ, বা মেনিকিউর-পেডিকিউর, কেউ আবার দু’হাত মেহেদির রঙে রাঙাচ্ছেন মনের মতো করে।

তানিয়া বিউটি পার্লারে আসা সৌন্দর্য্য পিপাসু নুসরক জানান, ফেসিয়াল ও চুল কালার করতে এসেছেন। নতুন পোশাকে সাজার পাশাপাশি চেহারা সৌন্দর্য বিকাশে আনন্দ বেশি বাড়ে।ভ্রু-প্লাগ করছেন একজন বিউটিশিয়ান। ছবি: বাংলানিউজএক্সক্লুসিভ কানিজ হেয়ার অ্যান্ড বিউটি পার্লারের মালিক বিউটিশিয়ান কানিজ সুলতানা বাংলানিউজকে বলেন, কাজের চাপে নিঃশ্বাস ফেলার সময় নেই। অনেকেই দীর্ঘ সিরিয়ালে অপেক্ষায় করেছেন। আমরা ত্বকের ধরন বুঝে ফেসিয়াল করে থাকি। তবে হারবাল বা ভেষজ উপাদানের ফেসিয়ালটা চলে খুব বেশি। এছাড়া আধুনিক সব ধরনের হেয়ার স্টাইলের চুল কাট ও কালারের কাজটা বেশ চলছে। 

তিনি জানান, কর্মব্যস্ততায় মলিন ও রোদে পোড়া ত্বক ঈদের আগে উজ্জ্বল করে নিচ্ছেন অনেকে। রূপ সচেতন তরুণীদের পদচারণায় গভীর রাত পর্যন্ত মুখরিত থাকে পার্লার।

শুধু তানিয়া বিউপি পার্লার ও এক্সক্লুসিভ কানিজ হেয়ার অ্যান্ড বিউটি পার্লারই নয় মহানগরীর প্রায় অর্ধশত ছোট বড় পালার্রে কেনাকাটার পাট চুকিয়ে রমণীরা এখন ঈদের দিনের রূপচর্চার জন্য ছুটছেন। একমাস সিয়াম সাধনা আর ঈদের জন্য কেনাকাটা করতে যে ক্লান্তির ছাপ তাদের চেহারায় পড়েছে, তা কাটিয়ে উঠতে তারা রূপ বিউটিশিয়ানের শরণাপন্ন হচ্ছেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৬২৩ ঘণ্টা, জুন ১৪, ২০১৮
এমআরএম/এএটি

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa