[x]
[x]
ঢাকা, মঙ্গলবার, ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ২০ নভেম্বর ২০১৮
bangla news

এসিডে ঝলসে দেয়ার পর এবার প্রাণনাশের হুমকি!

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-০৬-১৩ ৫:৪৪:২৩ এএম
এসিড মামলার ভিকটিমের সংবাদ সম্মেলন

এসিড মামলার ভিকটিমের সংবাদ সম্মেলন

বাগেরহাট: বাগেরহাটে প্রতিবন্ধী মো. বেল্লাল মোল্লাকে (৩৭) এসিডে ঝলসে দেয়ার পর এবার প্রাণনাশের হুমকি ও মিথ্যা মামলায় ফাঁসানোর অভিযোগ উঠেছে।

বুধবার (১৩ জুন) দুপুরে বাগেরহাট প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে এসিড মামলার আসামিদের বিরুদ্ধে এ অভিযোগ করেন ভিকটিম বেল্লাল মোল্লা।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, ‘ফকিরহাট উপজেলার শুভদিয়া ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান বিএনপি নেতা আ. আউয়াল শেখ ও ইউপি সদস্য শেখ সাদি ২০০৪ সালে আমার বোনকে ধর্ষণ করে। এর প্রতিবাদ করায় তারা ওপর দিয়ে আমাকে ঝলসে দেয়া। পরে আমার বাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেয়। এসব ঘটনায় ধর্ষণ, এসিড, চাঁদাবাজি ও অগ্নি সংযোগের মামলা করি তাদের বিরুদ্ধে। মামলায় আসামিরা জেলও খেটেছেন। মামলাগুলো এখন বিচারাধীন রয়েছে।’

বেল্লাল মোল্লা বলেন, ‘মামলাগুলো উঠিয়ে নিতে এবং মামলার কোনো তদবির না করতে আউয়াল শেখ বিভিন্ন লোক দিয়ে আমাকে হত্যার হুমকি দিয়ে আসছেন। র‌্যাব পরিচয়েও এক ব্যক্তি আমাকে মাদক মামলায় দিয়ে ক্রসফায়ারের হুমকি দিচ্ছেন। এ অবস্থায় আমি ও আমার পরিবার নিয়ে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি। এ ব্যাপারে প্রশাসনের সুদৃষ্টি কামনা করছি।’

তিনি আরও বলেন, ‘মামলা থেকে বাঁচতে আসামিরা আমার বিরুদ্ধে একটি হত্যা মামলা দায়ের করে। ওই মামলায় আমি নির্দোষ প্রমাণিত হয়েছি। এরপরও আসামিরা আমার বিরুদ্ধে নানা রকম ষড়যন্ত্রমূলক কাজ করে আসছেন।’

সংবাদ সম্মেলন শেষে বেল্লাল মোল্লার মা আয়েশা বেগম কান্না জড়িত কন্ঠে বলেন, ‘আমার স্বামী মারা যাওয়ার পর একমাত্র ছেলে সংসার চালাচ্ছে। কিছুদিন ধরে র‌্যাব ও পুলিশ পরিচয়ে বিভিন্ন লোকজন আমার বাড়িতে আসে। তারা আমার ছেলেকে মাদক মামলায় ক্রসফায়ার দেওয়ার হুমকি দেয়।’

এ মামলার আসামিরা প্রশাসনকে ভুল তথ্য দিয়ে তার ছেলেকে হয়রানি করার চেষ্টা করছে বলে অভিযোগ করেন তিনি।

এ ব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে সাবেক চেয়ারম্যান আ. আউয়াল শেখ তার বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, আমিন আমার ব্যবসা-বাণিজ্য নিয়ে ব্যস্ত রয়েছে। এসব মামলা নিয়ে ভাবার সময় নেই।

বাংলাদেশ সময়: ১৫৪৪ ঘণ্টা, জুন ১৩, ২০১৮
জিপি

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache