[x]
[x]
ঢাকা, বুধবার, ২ কার্তিক ১৪২৫, ১৭ অক্টোবর ২০১৮
bangla news

চার দশকে ফিল্ম আর্কাইভ, দিনভর আয়োজন

ফিচার রিপোর্টার | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-০৫-১৭ ১০:১২:৪০ এএম

ঢাকা: প্রতিষ্ঠার চার দশকে পা দিয়েছে বাংলাদেশ ফিল্ম আর্কাইভ। প্রতিবছর এ দিনটিকে প্রতিষ্ঠান উদ্যাপন করে আসছে ‘জাতীয় ফিল্ম আর্কাইভ দিবস’ হিসেবে। সে ধারাবাহিকতায় এবারও দেশের চলচ্চিত্রের তথ্যভাণ্ডার হিসেবে পরিচিত এ প্রতিষ্ঠানটি আয়োজন করে দিনব্যাপী নানা আয়োজনের।

বৃহস্পতিবার (১৭ মে) সকাল থেকে আয়োজনে ছিল ধ্রুপদী চলচ্চিত্র প্রদর্শনী এবং বিকেলে ছিল আলোচনাসহ নানা আয়োজন। আর সব বর্ণিল আয়োজনের মধ্যে দিয়ে প্রতিষ্ঠানটি উদযাপন করলো  তার এবারের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর আগারগাঁওয়ে প্রতিষ্ঠানটির নবনির্মিত ভবনের অডিটরিয়ামে দিনব্যাপী এসব আয়োজন অনুষ্ঠিত হয়। 

সকালে এ প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেন আয়োজনের প্রধান অতিথি তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু। এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন তথ্য প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম ও তথ্যসচিব আবদুল মালেক। সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ ফিল্ম আর্কাইভের মহাপরিচালক শচীন্দ্র নাথ হালদার।

প্রতিষ্ঠার চার দশক পূর্তিতে ধ্রুপদি চলচ্চিত্র প্রদর্শনীর এ আয়োজনে প্রদর্শিত হয় প্রমথেশ বড়ুয়া পরিচালনায় ১৯৩৫ সালে নির্মিত সর্বভারতীয় চলচ্চিত্র ‘দেবদাস’ ও ১৯৬২ সালে নির্মিত রবার্ট এনরিকো পরিচালিত ফরাসি স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ‘ইনসিডেন্ট এট আউল ক্রিক’। এছাড়া জহির রায়হানের অসমাপ্ত চলচ্চিত্র ‘লেট দিয়ার বি লাইট’ এর নির্বাচিত ফুটেজ প্রদর্শন করা হয়; যা সবার জন্য উন্মুক্ত ছিল।

এরপর বাংলাদেশ ফিল্ম আর্কাইভের আয়োজনে অনুষ্ঠিত দিনব্যাপী আয়োজনের অংশ হিসেবে বিকেলে অনুষ্ঠিত হয় ‘বাংলাদেশ ফিল্ম আর্কাইভ: ৪০ বছরের অগ্রযাত্রা’ শীর্ষক সেমিনার।

এতে মূলপ্রবন্ধ উপস্থাপন করেন চলচ্চিত্র বিষয়ক লেখক, গবেষক ও শিক্ষক অনুপম হায়াৎ। সৈয়দ হাসান ইমামের সভাপতিত্বে এতে আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চলচ্চিত্র পরিচালক আমজাদ হোসেন, মোরশেদুল ইসলাম ও ড. মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর হোসেন।

আলোচকরা জানান, পৃথিবীতে প্রথম ফিল্ম আর্কাইভ স্থাপন হয় ফ্রান্সে। অঁরি ল্যাংলোয়া ১৯৩৬ সালে ‘লা সিনেমাথেক ফ্রঁসেজ’ নামে ফিল্ম আর্কাইভ স্থাপন করেন। এ নজিরকে সামনে রেখে পরবর্তী সময়ে যুক্তরাষ্ট্র, রাশিয়াসহ শতাধিক দেশ নিজস্ব ফিল্ম আর্কাইভ গড়ে তোলে। সদ্য স্বাধীন বাংলাদেশের চলচ্চিত্রকর্মীরাও আর্কাইভের গুরুত্ব অনুধাবন করেছিলেন। 

বিশেষ করে চলচ্চিত্র সংসদ আন্দোলনের কর্মীরা ফিল্ম আর্কাইভ প্রতিষ্ঠার জন্য ১৯৭৫ সাল থেকে টানা আড়াই বছর আন্দোলন করেছিলেন। মূলত সে আন্দোলনের ফসল আজকের ফিল্ম আর্কাইভ। তাদের দাবির মুখে ১৯৭৮ সালে এক সরকারি ঘোষণায় তথ্য মন্ত্রণালয়ের অধীনে ‘বাংলাদেশ ফিল্ম ইনস্টিটিউট অ্যান্ড আর্কাইভ’ গঠিত হয়। পরবর্তী সময়ে ১৯৮৪ সালে এনাম কমিটির সুপারিশের পরিপ্রেক্ষিতে ‘বাংলাদেশ ফিল্ম আর্কাইভ’ নামে নতুন করে পথচলা শুরু হয়।

তারা জানান, দীর্ঘ উদ্বাস্তু জীবনে যতি টেনে প্রায় ৮৭ কোটি টাকা ব্যয়ে আগারগাঁওয়ে ১.১২ একর জমির ওপর আধুনিক সুযোগ-সুবিধাসংবলিত ফিল্ম আর্কাইভের নিজস্ব ভবন নির্মিত হয়েছে গত বছরের ৩০ জুন।

বাংলাদেশ ফিল্ম আর্কাইভের পরিচালক ইয়াকুব আলী জানান, চলচ্চিত্রের জন্য প্রতিষ্ঠানটি বিরাট তথ্যভাণ্ডার। প্রতিষ্ঠার চার দশক পূর্তির পাশাপাশি মুভিপ্রেমীদের মধ্যে এ তথ্যটা পৌঁছে দিতেই এবারের এ আয়োজন। তিনি আরো বলেন, এর বাইরে নিয়মিত এখানে প্রতি সপ্তাহে একটা করে পুরনো চলচ্চিত্র প্রদর্শনীর ব্যবস্থা করা হয়। প্রতি বৃহস্পতিবার দুপুর ২টার ওই প্রদর্শনীও মুভিপ্রেমীদের জন্য উন্মুক্ত থাকে।

প্রতিষ্ঠার পর থেকে ১৯৮৭ সালের মে পর্যন্ত ফিল্ম আর্কাইভের সংগ্রহ ছিল ১০৫টি পূর্ণদৈর্ঘ্য ছবি, ২৫টি নেগেটিভ, ১৫২টি সংবাদচিত্র, ৫৪০টি প্রামাণ্যচিত্র, ২১টি নেগেটিভ, ১৯টি ডিউপ নেগেটিভ, ১১৫৬টি অন্যান্য। এছাড়া স্থিরচিত্র ৬,৭০০, বই ২,১৯৮, চিত্রনাট্য ৬৬০, পোস্টার ১,৬৫০, কাহিনী ও গানের বই ৯০০, পত্রপত্রিকা ৪,৪৯০, উৎসবসংক্রান্ত ৩২ ও বিবিধ ১,৫৫০টি। এগুলোসহ পরের ৩০ বছরের সংগ্রহ যোগ করে বর্তমান তালিকা দাঁড়িয়েছে ৩,১৯৬টি দেশি-বিদেশি চলচ্চিত্র পূর্ণদৈর্ঘ্য, স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র, প্রামাণ্যচিত্র, তথ্যচিত্র ও সংবাদচিত্রের প্রিন্ট, নেগেটিভ ও ডিউপ নেগেটিভ।

বর্তমানে পাঠাগারে প্রায় ৬৫ হাজার ৪০৯টি ডকুমেন্ট সংরক্ষিত আছে। এসবের মধ্যে রয়েছে চলচ্চিত্র সংক্রান্ত ৫,০৪৩টি বই, ৯,৪০১টি স্থিরচিত্র, ২,৬১৭টি ফটোসেট, ৭,০০৩টি পোস্টার, ২,৫১৫টি চিত্রনাট্য, ২৮৭টি গানের বই, ১,৩৬৫টি চলচ্চিত্রের সংক্ষিপ্ত কাহিনীচিত্র, ৮৮৫টি চলচ্চিত্র উৎসব সংক্রান্ত ডকুমেন্টস, ২২,৭৪৯টি চলচ্চিত্র সংক্রান্ত সংবাদ ক্লিপিংস, ১২,২৯৯টি সাময়িকী এবং ১,৩৩৬টি অন্যান্য ডকুমেন্টস। 

এছাড়া ৩,৬৩৬টি বিভিন্ন চলচ্চিত্রের সিডি/ডিভিডি রয়েছে। অন্যদিকে এখান থেকে নিয়মিত চলচ্চিত্র বিষয়ে গবেষণা ও প্রকাশনী বের হয়। এ পর্যন্ত চলচ্চিত্রের ওপর ৬০টি গবেষণা কার্যক্রম সম্পন্ন হয়েছে ও চলতি অর্থবছরে ১৪টি গবেষণাকর্ম চলমান আছে। এছাড়া ৪৫টি চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট গবেষণাকর্ম পুস্তক আকারে মুদ্রিত হয়েছে। প্রতিষ্ঠানটি এ পর্যন্ত ১৩টি জার্নালও প্রকাশ করেছে।

বাংলাদেশ সময়: ২০০৭ ঘণ্টা, মে ১৭, ২০১৮
এইচএমএস/এসএইচ

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa