[x]
[x]
ঢাকা, শনিবার, ৪ কার্তিক ১৪২৫, ২০ অক্টোবর ২০১৮
bangla news

ঝালকাঠিতে বসুন্ধরা খাতা-কালের কণ্ঠ স্কুল বিতর্ক

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-০৫-১৬ ৮:০৪:৪৩ এএম
বসুন্ধরা খাতা-কালের কণ্ঠ স্কুল বিতর্ক প্রতিযোগিতায় অতিথিরা। ছবি: বাংলানিউজ

বসুন্ধরা খাতা-কালের কণ্ঠ স্কুল বিতর্ক প্রতিযোগিতায় অতিথিরা। ছবি: বাংলানিউজ

ঝালকাঠি: ঝালকাঠিতে বসুন্ধরা খাতা-কালের কণ্ঠ জাতীয় স্কুল বিতর্ক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বুধবার (১৬ মে) ঝালকাঠি হরচন্দ্র বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় মিলনায়তনে এ প্রতিযোগিতা হয়। বসুন্ধরা খাতার পৃষ্ঠপোষকতায় কালের কণ্ঠ শুভসংঘ আয়োজিত প্রতিযোগিতাটিতে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে ঝালকাঠি সরকারি হরচন্দ্র বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়।

এ প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করেন প্রধান অতিথি ঝালকাঠি সরকারি মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ মো. জাহাঙ্গীর খান।

এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন- সচেতন নাগরিক কমিটির সহ সভাপতি হেমায়েত উদ্দিন হিমু, ঝালকাঠি হরচন্দ্র বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক তৌহিদ হোসেন খান, ঝালকাঠি প্রেস ক্লাবের সভাপতি কাজী খলিলুর রহমান, সহ সভাপতি অ্যাডভোকেট আক্কাস সিকদার, ঝালকাঠি সরকারি কলেজের শিক্ষক মো. মাসুম বিল্লাহ, সরকারি টেকনিক্যাল স্কুল অ্যান্ড কলেজের শিক্ষক ড. ইমদাদুল হক মামুন, ঝালকাঠি হরচন্দ্র বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক নার্গিস আক্তার ও প্রতীক নাট্যগোষ্ঠীর সাধারণ সম্পাদক শফিউল ইসলাম সৈকত।

অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন- কালের কণ্ঠের জেলা প্রতিনিধি কেএম সবুজ ও শুভসংঘের সাধারণ সম্পাদক তাসিন অনিক মৃধা।

প্রতিযোগিতায় জেলা সদরের চারটি স্কুল অংশ নেয়। প্রথম সেমিফাইনালে ঝালকাঠি সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়কে হারিয়ে ফাইনালে ওঠে ঝালকাঠি হরচন্দ্র বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়। দ্বিতীয় সেমিফাইনালে পৌর আদর্শ মাধ্যমিক বিদ্যালয়কে হারিয়ে ফাইনালে ওঠে উদ্বোধন মাধ্যমিক বিদ্যালয়। ফাইনালে উদ্বোধন মাধ্যমিক বিদ্যালয়কে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয় ঝালকাঠি সরকারি হরচন্দ্র বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়। এসময় বিভিন্ন বিদ্যালয়ের শতাধিক শিক্ষার্থী বিতর্ক প্রতিযোগিতা উপভোগ করে।

পরে অংশগ্রহণকারী দলের মধ্যে সনদপত্র ও ক্রেস্ট বিতরণ করেন অতিথিরা।

বাংলাদেশ সময়: ১৮০১ ঘণ্টা, মে ১৬, ২০১৮
এমএস/টিএ

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache