[x]
[x]
ঢাকা, শুক্রবার, ৬ আশ্বিন ১৪২৫, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮
bangla news

হাসপাতালে আছেন প্লেন দুর্ঘটনায় আহত মুন্সীগঞ্জের রিপন

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-০৩-১৩ ৬:৪৭:৩২ এএম
নেপাল যাত্রার আগে দেয়া ফেসবুক স্ট্যাটাস

নেপাল যাত্রার আগে দেয়া ফেসবুক স্ট্যাটাস

মুন্সীগঞ্জ: ঢাকার মোহাম্মদপুর এলাকায় কসমেটিক্সের ব্যবসা করেন মুন্সীগঞ্জের টংগিবাড়ি উপজেলার ইয়াকুব আলী রিপন (৩৬)। ব্যবসার কাজে প্রায়ই বিদেশে যেতে হয়। 

সোমবার (১২ মার্চ) ব্যবসায়িক কাজে ঢাকা থেকে নেপালগামী ইউএস-বাংলার বিএস২১১ ফ্লাইটটিতে ছিলেন তিনিও। সঙ্গে ছিলেন তার ব্যবসায়িক পার্টনারও। বিমান বিধ্বস্তের ঘটনায় অল্পের জন্য প্রাণে বেঁচে গেছেন রিপন। বর্তমানে আছেন নেপালের কাঠমান্ডুর নরবিট হাসপাতালের ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিটে (আইসিউ)। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক নয় বলে জানিয়েছেন স্বজনরা। 

রিপন টংগিবাড়ি উপজেলার কামারখাড়া ইউনিয়নের বেশনাল গ্রামের ইউনুছ বেপারীর ছেলে। পাঁচ ভাইবোনের মধ্যে রিপন বড়। সাত বছরের মেয়ে ইয়ানুফ ও স্ত্রী আঁখি আক্তারকে নিয়ে থাকেন মোহাম্মদপুরের আদাবর এলাকার প্রপাল হাউজিং এর দুই নম্বর রোডের ৪২/সি নম্বর বাসায়। 

সোমবার বিকেলে দুর্ঘটনার খবর টেলিভিশনের দেখে দিশেহারা হয়ে পড়ে তার পরিবার।  মঙ্গলবার (১৩ মার্চ) দুপুরের দিকে তারা জানতে পারেন যে রিপন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

রিপনের ছোট ভাই শিপু বেপারী বাংলানিউজকে বলেন, আমার ভাই দীপু বেপারী সরকারি প্রতিনিধি দলের সঙ্গে নেপালে গেছেন রিপন ভাইকে আনতে। 

আহত রিপনের স্ত্রী আঁখি আক্তার বাংলানিউজকে বলেন, দুর্ঘটনার দিন সকাল সাড়ে ৭টার দিকে মুন্সীগঞ্জের বাসা থেকে বের হয় রিপন। ব্যবসায়িক কাজে কসমেটিক্স দেখতে নেপালে গিয়েছিল। 

বাংলাদেশ সময়: ১৬৪১ ঘণ্টা, মার্চ ১৩, ২০১৮
এসআই

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   বিএস২১১
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa