[x]
[x]
ঢাকা, শুক্রবার, ৬ আশ্বিন ১৪২৫, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮
bangla news

সরকার কোনো ব্যাংককে মরতে দেবে না

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-০৩-০৮ ১২:২৯:২৭ পিএম
সরকার কোনো ব্যাংককে মরতে দেবে না, অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত প্রাক-বাজেট মতবিনিময় সভায় একথা বলেন

সরকার কোনো ব্যাংককে মরতে দেবে না, অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত প্রাক-বাজেট মতবিনিময় সভায় একথা বলেন

ঢাকা: সরকার কোনো ব্যাংককে মরতে দেবে না। সরকার পারলে মরতে বসা ব্যাংকের শেয়ার কিনে নিয়ে ব্যাংক বাঁচাবে। এমনকি মুমূর্ষু ব্যাংকটির ৬০ শতাংশ শেয়ার বিক্রি করতে বাধ্য করা হবে।

অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বৃহস্পতিবার (৮ মার্চ) রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় প্রাক-বাজেট নিয়ে মতবিনিময় সভায় এসব কথা বলেন। 

তিনি বলেন, আজকের সভা থেকেই প্রাক-বাজেট আলোচনা শুরু হলো।

বেসরকারি খাতের ফারমার্স ব্যাংক বন্ধ করে দেওয়া উচিত বলে মনে করেন আজকের অনেক আলোচক। কিন্তু আমি তা মনে করি না। যারা এ ব্যাংকের এ হাল করেছে তাদের বের করে দেওয়া হবে। ৬০ শতাংশ শেয়ার বিক্রি করতে বাধ্য করা হবে, যা কিনে নেবে সরকারি ব্যাংকগুলো।

প্রসঙ্গত ২০১২ সালে অনুমোদন পায় ফারমার্স ব্যাংক। ২০১৩ সালে আনুষ্ঠানিকভাবে কার্যক্রম শুরুর পর বছর না ঘুরতেই ঋণের অনিয়মে জড়িয়ে পড়ে এ ব্যাংক।

বাংলাদেশ অর্থনীতি সমিতি ২০১৮-১৯ অর্থবছরের বাজেট প্রণয়নে নীতিগত বিষয়ে প্রস্তাবনা রাখে।
বাংলাদেশ অর্থনীতি সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. আবুল বারাকাত, সাধারণ সম্পাদক ড. জামালউদ্দিন আহমেদ এফসিএ ছাড়া অন্যান্য সদস্য উপস্থিত ছিলেন।

সমিতির প্রস্তাবনায় বক্তারা প্রাক-বাজেট বিষয়ে বিভিন্ন বক্তব্য রাখেন।

তারা বলেন, জাতীয় বাজেট উন্নয়ন দিক-নির্দেশক দলিল। রাষ্ট্রীয় সরকারি উন্নয়ন কর্মকাণ্ডে জনগণের স্বতঃস্ফূর্ত সক্রিয় অংশগ্রহণ থাকবে।

সরকারি ব্যয় বাড়লে তার প্রভাব মূদ্রাস্ফীতিতে পড়তে পারে। মূদ্রাস্ফীতি কম রাখার চেষ্ঠা করতে হবে। মূদ্রাস্ফীতি ৭.৫ শতাংশের নীচে নামিয়ে আনার প্রস্তাব আসবে যা বাস্তবায়ন একটি চ্যালেঞ্জ।

বাজেটে বড় চ্যালেঞ্জ সময়মতো বাস্তবায়ন। এদিকে নজর দিতে হবে। ৭.৫ প্রবৃদ্ধি অর্জন সম্ভব যদি রাজনৈতিক পরিস্থিতি স্থিতিশীল থাকে। সব মন্ত্রণালয় ও সংশ্লিষ্ট বিভাগকে তাদের আর্থিক বিবরণী প্রস্তুত করা প্রয়োজন।

দেশের সব পৌরসভার আর্থিক বিবরণী প্রস্তুত করতে ফাইন্যানসিয়াল রিপোর্টিং মডেল প্রণয়ন করা প্রয়োজন।

সরকারের আয়-ব্যয় সংশ্লিষ্ট ‘ফিসক্যাল কর্মকর্তাদের’ স্বেচ্ছাচারী ক্ষমতা খর্ব করে ঘুষ-নীতি বিলুপ্তের প্রস্তাব করে সমিতি।

বাংলাদেশ সময়: ২৩২৮ ঘণ্টা, মার্চ ০৮, ২০১৮
কেজেড/এমএইউ/

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa