[x]
[x]
ঢাকা, শুক্রবার, ৬ আশ্বিন ১৪২৫, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮
bangla news

চিকিৎসার টাকা নেই, তাই শেকলেই 'সমাধান'

সোহাগ হায়দার, ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-০৩-০৮ ৮:১২:৩৮ এএম
বাসন্তী রাণী

বাসন্তী রাণী

পঞ্চগড়: চিকিৎসার অভাবে দীর্ঘ ১২ বছর ধরে পায়ে লোহার শিকলে বদ্ধ অবস্থায় জীবন কাটাচ্ছে বাসন্তী রাণী। তিনি পঞ্চগড়ের দেবীগঞ্জ উপজেলার লক্ষ্মীরহাট ডাঙ্গাপাড়া গ্রামের হরিপদ রায়ের মেয়ে। দুই বোন ও এক ভাইয়ের মধ্যে বাসন্তী দ্বিতীয়।

জানা যায়, ২০০৬ সাল থেকে শিকলবন্দি অবস্থায় জীবন কাটাচ্ছে বাসন্তী। গরীব বাবা হরিপদ মেয়েকে সুস্থ করার জন্য স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা করিয়েছিলেন। এতেও বাসন্তী সুস্থ না হওয়ায় তার পায়ে লোহার শিকল পরিয়ে গাছে বেঁধে রাখা হয়। বাসন্তীর বৌদি পবিত্রা রাণী খাবারসহ তার প্রয়োজনীয় সহায়তা করেন।

সরেজমিনে দেখা যায়, বাড়ির বাইরে আম গাছের সঙ্গে পায়ে শিকল দিয়ে বেঁধে রাখা হয়েছে বাসন্তীকে। স্বাভাবিকভাবে কথা বলছেন তিনি। প্রতিদিন সকালে বাড়ির কাজ করার পর তাকে পায়ে শিকল দিয়ে বেঁধে রাখা হয়। এরপর সন্ধ্যায় শিকলমুক্ত করে বাড়িতে নেওয়া হয়। তবে বাসন্তীর দাবি, তিনি পাগল নন।

এ বিষয়ে বাবা হরিপদ রায় বাংলানিউজকে বলেন, পেশায় কামার হলেও স্বপ্ন দেখতাম মেয়েকে উচ্চ শিক্ষিত করতে। মেয়ে স্কুলে বেশ ভালই পড়াশোনা করছিল। অষ্টম শ্রেণিতে পড়ার সময় বাসন্তীর আচরণ হঠাৎ পাল্টাতে থাকে। কখনও প্রলাপ বকতো। গ্রামে যার-তার বাড়িতে গিয়ে কাউকে কিছু না জানিয়ে জিনিসপত্র নিয়ে আসতো। এতে অনেকে মারধরও করতো। অনেককে দিতে হতো জরিমানা। এনিয়ে আমার কাছে প্রায়ই নালিশ করতো স্থানীয়রা।

ভাই রতন কুমার বাংলানিউজকে বলেন, অন্যের বাড়ি যাওয়ায় অনেকে বাসন্তীকে মারধর করে, কেউ অভিযোগ করে, আবার কখনও চুরির অপবাদে দিতে হতো জরিমানা। তাই আমরা তাকে বেঁধে রেখেছি।

তিনি আরো বলেন, সরকার ও সমাজের লোকজনের কাছে বাসন্তীর চিকিৎসার আবেদন জানানো হয়েছে। সঠিকভাবে চিকিৎসা করা হলে বাসন্তী আবারো স্বাভাবিক জীবন ফিরে পেতে পারে।

বাসন্তীকে বেঁধে রাখার বিষয়ে দেবীগঞ্জ উপজেলার দেবীডুবা ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান আব্দুর রাজ্জাক বাংলানিউজকে জানান, বাসন্তীকে শিকল দিয়ে বেঁধে রাখা এবং তাকে দিয়ে কাজ করিয়ে নেওয়াটা দুঃখজনক বিষয়। পরিবারের লোকের সঙ্গে কথা বলে তাকে শিকলমুক্ত রাখার ব্যবস্থা করবো। তার চিকিৎসার জন্য ইউনিয়ন পরিষদ থেকে প্রয়োজনীয় সহায়তা করা হবে।

বাংলাদেশ সময়: ১৮৫৭ ঘণ্টা, মার্চ ৮, ২০১৮
এনটি

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa