ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৭ শ্রাবণ ১৪২৭, ১১ আগস্ট ২০২০, ২০ জিলহজ ১৪৪১

জাতীয়

সংরক্ষিত নারী আসন থাকবে আরো ২৫ বছর

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৮১৯ ঘণ্টা, জানুয়ারী ২৯, ২০১৮
সংরক্ষিত নারী আসন থাকবে আরো ২৫ বছর

ঢাকা: জাতীয় সংসদে সংরক্ষিত নারী আসনের মেয়াদ বাড়াতে ‘সংবিধান (সপ্তদশ সংশোধন) আইন, ২০১৮’ এর খসড়ার অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা।
 

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে সোমবার (২৯ জানুয়ারি) মন্ত্রিসভার নিয়মিত বৈঠকে আইনটির অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন।


 
বৈঠক শেষে সচিবালয়ে ব্রিফিংয়ে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।
 
সংশোধনের ফলে সংসদে ৫০টি নারী আসন সংরক্ষণের মেয়াদ আরো ২৫ বছর বৃদ্ধি হলো বলে জানিয়েছেন শফিউল আলম।

সচিব বলেন, সংবিধানে সংরক্ষিত নারী আসনের সংখ্যা কম ছিলো, সেটি বাড়িয়ে ২০১১ সালে ৫০ করা হয়। সংরক্ষিত নারী আসনের মেয়াদ শেষ হয়ে যাচ্ছে বলে আবার নতুনভাবে মেয়াদ কার্যকর করার জন্য প্রস্তাব আনা হয়েছে। এই ৫০টি আসন আগামী ২৫ বছরের জন্য আবার সংরক্ষিত থাকবে।  

তিনি বলেন, এটি এমনভাবে হবে যেনো পরবর্তী সংসদের প্রথম অধিবেশন থেকে শুরু করে আগামী ২৫ বছর পর্যন্ত সংসদ না ভেঙে যাওয়া পর্যন্ত এ ৫০টি আসন সংরক্ষিত থাকবে।  

এর আগে তিন দফায় ৩৫ বছর বেড়েছে সংসদে সংরক্ষিত নারী আসনের মেয়াদ। ২০০৪ সালে সংবিধানের চতুর্দশ সংশোধনে নারী আসন ৩০ থেকে বাড়িয়ে ৪৫ করা হয়। ২০০৯ সালে ৪৫ থেকে তা ৫০ করা হয়েছে। আগামী বছরের ২৪ জানুয়ারি শেষ হবে নারী আসনের ১০ বছর মেয়াদ।

২০১১ সালে সংবিধানের পঞ্চদশ সংশোধনের মাধ্যমে সংরক্ষিত নারী সদস্যদের সংখ্যা ৪৫ থেকে বাড়িয়ে ৫০ করা হয়। তবে ওই সময় আর মেয়াদ বাড়ানো হয়নি।

বাংলাদেশ সময়: ১৪১৮ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২৯, ২০১৮
এমআইএইচ/জেডএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa