bangla news

আসছে ৪০ রেলইঞ্জিন, ১১২৫ ওয়াগন-লাগেজ ভ্যান

মফিজুল সাদিক, সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৭-০৮-১৫ ৫:০৩:১৭ পিএম
আসছে রেলইঞ্জিন ও ওয়াগন-লাগেজ ভ্যান- ফাইল ফটো

আসছে রেলইঞ্জিন ও ওয়াগন-লাগেজ ভ্যান- ফাইল ফটো

ঢাকা: রেলের ভাড়া ৭ দশমিক ২৩ শতাংশ থেকে ১৫ শতাংশ (দূরত্ব অনুসারে) ভাড়া বাড়ানো হয়েছে। ২০১২ সালের ০১ অক্টোবরও ৫০ শতাংশ থেকে ১১০ শতাংশ (দূরত্ব অনুসারে) ভাড়া বাড়িয়েছিল সরকার। এতে যাত্রীদের ওপর চাপ বাড়লেও রেলে কমছে না লোকসান।

যাত্রীদের ওপর চাপ কমানো এবং লোকসানি রেলখাতকে লাভবান করতে ১ হাজার ১২৫টি লাগেজ ভ্যান, বগি কভার্ড ও ওয়াগন কেনার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রেলপথ মন্ত্রণালয়। এগুলোকে টানতে ৪০টি ব্রডগেজ ডিজেল ইলেকট্রিক লোকোমোটিভও (ইঞ্জিন) সংগ্রহ করা হবে।

মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, আন্তঃনগর ও মেইল ট্রেনগুলোয় পণ্য পরিবহনের তেমন সুযোগ নেই। ট্রেনে কৃষিপণ্য পরিবহনে আগ্রহ থাকলেও সুবিধা পাচ্ছেন না ব্যবসায়ীরা। কারণ,  ইচ্ছেমতো পণ্য লোড-আনলোডের সুবিধা নেই। এতে পণ্য পরিবহনেও পিছিয়ে পড়ছে রেল।

তবে ভারত থেকে আমদানিকৃত পণ্যের একটি বড় অংশ পরিবহন করা হচ্ছে ট্রেনে। এ খাতে রাজস্ব আয়ের সিংহভাগই আসছে আমদানি পণ্য পরিবহনে। এ উদ্যোগ আরও বড় পরিসরে নিতে চায় সরকার।  এমনকি অদূর ভবিষ্যতে ভারতের সঙ্গে সরাসরি বগি কভার্ড ভ্যান পরিচালনারও পরিকল্পনা রয়েছে।

সূত্র জানায়, দেশের মেগা প্রকল্প বাস্তবায়নের মালামালও বগি কভার্ড ভ্যানের মাধ্যমে ভারত থেকে দেশে পরিবহন করা হবে।
 
রেল মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, ৪০০টি মিটারগেজ ও ৩০০টি ব্রডগেজ বগি কভার্ড ভ্যান এবং ১৮০টি মিটারগেজ ও ১২০টি ব্রডগেজ বগি ওপেন ওয়াগন কেনা হবে। এ খাতে মোট ব্যয় করা হবে ১ হাজার ৫৫ কোটি টাকা। এর মধ্যে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি) ৮১৭ কোটি টাকা ঋণ দেবে।
 
এগুলোর সুষ্ঠু পরিচালনায় জন্য ১ হাজার ৬১০ কোটি টাকা ব্যয়ে কেনা হবে ৪০টি ব্রডগেজ ডিজেল ইলেকট্রিক লোকোমোটিভ (ইঞ্জিন)।

বাড়তি বগি যোগ করে প্রতিটি একক পণ্য ও যাত্রী পরিবহনের খরচ কমানো, অপচয়-দুর্নীতি ও অব্যবস্থাপনার সমাধানে বাংলাদেশ রেলওয়ের জন্য ৭৫টি মিটারগেজ ও ৫০টি ব্রডগেজ লাগেজ ভ্যানও সংগ্রহ করা হবে। এতে ব্যয় করা হবে ৪৭৬ কোটি টাকা।  

সব মিলিয়ে চলতি সময় থেকে ২০২১ সালের জুন মেয়াদে ৩ হাজার ৪১ কোটি টাকা ব্যয়ে এসব রেলইঞ্জিন, বগি কাভার্ড ভ্যান ও লাগেজ ভ্যান কেনা হবে। 

রেলপথ মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব মোফাজ্জেল হোসেন বাংলানউজকে বলেন, ‘রেলকে লাভবান করতে হলে শুধু যাত্রী পরিবহন করলে চলবে না। বিভিন্ন ধরনের পণ্যও পরিবহন করতে হবে। ভারত থেকে সরাসরি ওয়াগন পরিচালনারও পরিকল্পনা রয়েছে। বড় বড় প্রকল্প বাস্তবায়নে ভারত থেকে অনেক মালামাল পরিবহন করা হবে। এ লক্ষ্যেই লাগেজ ভ্যান ও বগি কভার্ড ওয়াগন পরিচালনায় ৪০টি ব্রডগেজ ডিজেল ইলেকট্রিক লোকোমোটিভ কিনবো’। 

বাংলাদেশ রেলওয়ে সূত্র জানায়, ওপেন টেন্ডারের মাধ্যমে রেলইঞ্জিন লাগেজ ভ্যান ও বগি কভার্ড ওয়াগন কেনা হবে। আশা করা হচ্ছে, ওপেন টেন্ডারে ভারত, দক্ষিণ কোরিয়া, ইন্দোনেশিয়া ও চীন অংশ নেবে। প্রতিযোগিতামূলক নিন্মদরের ভিত্তিতে নির্বাচিত দেশ থেকে সেগুলো সংগ্রহ করা হবে।

বাংলাদেশ সময়: ০২৫৬ ঘণ্টা, আগস্ট ১৬, ২০১৭।
এমআইএস/এএসআর

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   ট্রেন সার্ভিস
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
db 2017-08-15 17:03:17