ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৩ আশ্বিন ১৪২৭, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১০ সফর ১৪৪২

জাতীয়

মনমোহনের অপেক্ষায় সাভার

জাহিদুর রহমান, সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১১৪১ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ৬, ২০১১
মনমোহনের অপেক্ষায় সাভার

ঢাকা: ঢাকা-আরিচা মহাসড়ক। ২০ থেকে ৩০ গজ দূরে দূরে পুলিশের প্রহরা।

সেতুগুলোর ওপরে নিচেও পুলিশ। রাস্তাঘাট অনেকটা ফাঁকা। এর মাঝে তীব্র শব্দে সাইরেন বাজিয়ে চলছে পুলিশের গাড়ি। একটি নয়, একসারিতে অনেকগুলো। চলছে পুলিশ এসকর্টের মহড়া।

কিছু সময় পড় এ মহাসড়ক ধরেই সাভারের জাতীয় স্মৃতিসৌধে যাবেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী ড. মনমোহন সিং। তার যাতায়াত নির্বিঘœ করতেই এত আয়োজন। বলতে গেলে পাল্টে গেছে সাভারের চিরচেনা দৃশ্যপট। সাভার বাজার বাসস্ট্যান্ডের পরিচিত যানজট উধাও। নেই পথচারীদের পথ দখল করে গড়ে ওঠা দোকান পাট, টং ঘর।

ভোরে অচেনা এ দৃশ্য দেখেই হতবাক পথচারীদের অনেকে। মনমোহনের সফর বলে কথা। ক্লিন সাভার ইমেজ দেখাতেই গত কয়েকদিন ধরেই ঘুম নেই পৌর ও পুলিশ প্রশাসনের। রাতদিন সড়ক ও জনপথের লোডার দিয়ে উচ্ছেদ করা হয়েছে সড়কের ওপর জমে থাকা ময়লা আর্বজনার স্তুপ। সড়কের দু’পাশ থেকে উধাও টং ঘরের মতো কয়েক’শ স্থাপনা।

‘আহা! মাঝে মাঝে এভাবে যদি মনমোহনের মতো রাষ্ট্রীয় অতিথিরা আসতেন, তবেই না এই শহরে হাঁটা-চলা কতটা স্বাচ্ছন্দ আর নিরাপদ হতো’ -অচেনা দৃশ্যপট দেখে এভাবেই বাংলানিউজকে নিজের অভিব্যক্তির কথা জানালেন সাভারে গাড়ির জন্যে অপেক্ষমান রাজধানীর একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে কর্মরত জুলফিকার হায়দার নাঈম।

সঙ্গে আক্ষেপ জুড়ে দিলেন, ‘দেখবেন মনমোহন সিং যেতে না যেতেই মূহৃর্তেই ফিরে আসবে সড়কে ফেলে রাখা সেই আর্বজর্নার স্তুপ, যানজটসহ দুর্বিসহ চেহারা। কেন যেন আমরা ভালো কিছু ধরে রাখতে পারিনা। ’ এ কথা বলতে বলতেই বাসে উঠে গেলেন তিনি।

মনমোহন সাভারে অবস্থান করবেন মাত্র ২০ মিনিট। তার নিরাপত্তায় বিভিন্ন জেলা থেকে আনা হয়েছে ১৫শ’ পুলিশ সদস্য। সঙ্গে রয়েছে এসএসএফসহ বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যরা।

মনমোহনের জাতীয় স্মৃতিসৌধের পরিদর্শন কর্মসূচির সমন্বয়ে রয়েছে সেনাবাহিনীর নয় পদাতিক ডিভিশন। মনমোহন সিং স্মৃতিসৌধের যে কলমে পরিদর্শন বইতে স্বাক্ষর করবেন, সেটির নিরাপত্তা পরীক্ষা সম্পন্ন করেছে নিরাপত্তাকর্মীরা। চলছে ৩৮ ইঞ্চি ব্যাসার্ধ্যের ফুলের মালা ও কামরাঙা গাছের চারাটির পরীক্ষা।

সফরসূচি অনুযায়ী বেলা ১২টায় ঢাকায় হযরত শাহ জালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছবেন মনমোহন সিং। রাষ্ট্রীয় আনুষ্ঠানিকতা শেষে সেখানে থেকে সরাসরি তিনি সড়ক পথে রওনা হবেন সাভারের উদ্দেশে।

১২টা ৪০ মিনিটে স্মৃতিসৌধে পৌঁছবেন স্মৃতিসৌধে। মাত্র ২০ মিনিটের কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তানদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন, পরিদর্শন বইতে স্বাক্ষর ও বৃক্ষ রোপণ।

সেখানে তাকে স্বাগত জানাবেন, গণপূর্ত প্রতিন্ত্রী আব্দুল মান্নান ও মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী ক্যাপ্টেন (অব.) তাজুল ইসলাম। উপস্থিত থাকবেন স্থানীয় সংসদ সদস্য তালুদার মোহাম্মদ তৌহিদ জং মুরাদ।

গণপূর্ত বিভাগের সাভার উপ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী সাথী প্রিয় বড়–য়া বাংলানিউজকে জানান, স্মৃতিসৌধের আনুষ্ঠানিকতার সব প্রস্তুতি শেষ। মনমোহন সিং’র সফর শেষ হলেই প্রস্তুতির কারণে দর্শনার্থীদের জন্যে তিনদিন বন্ধ থাকা স্মৃতিসৌধের ফটক খুলে দেওয়া হবে। মনমোহনের সফরের আগে পরে কিছু সময়ের জন্যে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কে যানচলাচল বন্ধের কথা জানিয়েছে প্রশাসন।

ট্রাফিক বিভাগের একজন কর্মকর্তা বাংলানিউজকে জানান, রাজধানী অতিক্রম করে সাভারের সীমানায় পৌঁছানোর কিছু সময় আগে ও তার প্রস্তানের পরপর কিছু সময়ের জন্যে যান চলাচল নিয়ন্ত্রণ করা হবে।

ঢাকা জেলার পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান বাংলানিউজকে বলেছেন, ‘ভারতের প্রধানমন্ত্রীর সফরে আমাদের সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন। তাকে স্বাগত জানাতে এখন চলছে অপেক্ষার প্রহর। ’

বাংলাদেশ সময়: ১১৩৬ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ০৬, ২০১১

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa