ঢাকা, শনিবার, ১৬ আশ্বিন ১৪২৯, ০১ অক্টোবর ২০২২, ০৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

জাতীয়

হুজি নেতার আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি

জেলা প্রতিনিধি | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৫৩২ ঘণ্টা, আগস্ট ২৩, ২০১১
হুজি নেতার আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি

কিশোরগঞ্জ: কিশোরগঞ্জে ৫ দিনের রিমান্ডে থাকা ২১ আগস্ট গ্রেনেড মামলার অন্যতম আসামি নিষিদ্ধ ঘোষিত হরকাতুল জিহাদের (হুজি) আমির মাওলানা ইয়াহিয়া উরফে বদ্দা ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন।

রিমান্ডের ৪র্থ দিনে মঙ্গলবার তাকে কিশোরগঞ্জের জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির করা হলে তিনি ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মাদ বিল্লাহ হোসাইনের কাছে স্বীকারোক্তিমূলক জবান বন্দি দেন।

আদালত তার স্বীকারোক্তি লিপিবদ্ধ করে তাকে কারাগারে পাঠিয়ে দেন।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা পুলিশের উপ-পরিদর্শক মো. জাহাঙ্গীর হোসেন বাংলানিউজকে জানান, নিষিদ্ধ ঘোষিত হরকাতুল জিহাদ (হুজি) আমির শায়েখ আব্দুর রহমান গ্রেপ্তার হওয়ার পর দলের দায়িত্ব নেন।

দলকে সংগঠিত করার জন্য তিনি বিভিন্ন দাওয়াতি কার্যক্রম পরিচালনা করতেন। এর আগে তিনি আফগানিস্তানে প্রশিক্ষণ নিয়ে বিভিন্ন যুদ্ধে অংশগ্রহণ করেন।

হুজি নেতা ইয়াহিয়া একে-৪৭ রাইফেল চালানো ও বোমা তৈরিতে অভিজ্ঞ। ২০০৫ সনের ১৭ অক্টোবর হরকাতুল জেহাদ নিষিদ্ধ ঘোষণার পর ইসলামী দাওয়াতে কাফেলা নামে সংগঠনের আড়ালে হুজি’র কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছিলেন তিনি।

এ ছাড়া অপর ২ আসামি মাওলানা বাহাউদ্দিন, মাওলানা ইয়ার মোহাম্মদ নিষিদ্ধ ঘোষিত হরকাতুল জিহাদের সদস্য। তাদের  বুধবার আদালতে হাজির করা হবে।

আদালতে ইয়াহিয়া কী বলেছেন জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‌‌‌‍তদন্তের স্বার্থে কোনো কিছুই বলা যাবে না। `



উল্লেখ্য, দীর্ঘদিন পলাতক থাকার পর গত ১৮ আগস্ট দিনগত রাত ২টা ৩০ মিনিটে সিলেটের সুনামগঞ্জ থেকে নাসিরাবাদ পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাসে করে কিশোরগঞ্জ আসার পথে হরকাতুল জিহাদ (হুজি) আমির মাওলানা ইয়াহিয়া ওরফে বদ্দা ভৈরব র‌্যাবের হাতে আটক হন।

আটকের পর পরই তাকে র‌্যাব সদর দপ্তরে নিয়ে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদের পর ভৈরব থানায় সোপর্দ করা হয়।

এ ঘটনায় র‌্যাবের ডিএডি মোশারফ হোসেন বাদী হয়ে ভৈরব থানায় ২০০৮ সালের সন্ত্রাসী বিরোধী আইনের ৮, ৯ (১), ১৩ ধারায় ভৈরব থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

আটক ২ সহযোগী মাওলানা বাহাউদ্দিন, মাওলানা ইয়ার মোহাম্মদকে গত ১৯ আগস্ট বিকেলে কিশোরগঞ্জ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির করে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ১০ দিনের রিমা-ের পরিপ্রেক্ষিতে জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. আয়েজ উদ্দিন প্রত্যেককে ৫ দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

নিষিদ্ধ ঘোষিত সংগঠন হরকাতুল জিহাদের বর্তমান নেতা মওলানা ইয়াহিয়া দলের প্রধান হিসেবে দীর্ঘদিন ধরে আত্মগোপনে থেকে ইসলামী দাওয়াতে কাফেলা নামে একটি সংগঠনের আড়ালে হুজির কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছিলেন।

পুলিশ জানায়, মাওলানা ইয়াহিয়া ২১ আগস্ট বোমা হামলা, রমনা বটমূলে বোমা হামলার পলাতক আসামি।

বাংলাদেশ সময়: ১৮২০ ঘণ্টা, আগস্ট ২৩, ২০১১

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa