bangla news
নিমতলী ট্রাজেডির তদন্ত প্রতিবেদন

রান্নাঘরের চুলা থেকেই আগুনের উৎপত্তি

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১০-০৬-১৪ ৭:৫৯:১৯ পিএম

পুরান ঢাকার নিমতলীতে স্মরণকালের ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের তদন্ত প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে সরকার। প্রতিবেদনে রান্নার চুলা থেকে আগুনের উৎপত্তি হয় বলে উল্লেখ করা হয়েছে। অবৈধভাবে কেমিক্যাল গুদামজাতকারী ও ভাড়া দানকারীদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়াসহ বেশ কিছু সুপারিশ করা হয়েছে। ওই ঘটনায় সরকার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব ইকবাল খান চৌধুরীকে প্রধান করে ৫ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করেছিল।

ঢাকা: পুরান ঢাকার নিমতলীতে স্মরণকালের ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের তদন্ত প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে সরকার। প্রতিবেদনে রান্নার চুলা থেকে আগুনের উৎপত্তি হয় বলে উল্লেখ করা হয়েছে। অবৈধভাবে কেমিক্যাল গুদামজাতকারী ও ভাড়া দানকারীদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়াসহ বেশ কিছু সুপারিশ করা হয়েছে। ওই ঘটনায় সরকার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব ইকবাল খান চৌধুরীকে প্রধান করে ৫ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করেছিল।

গত ৩ জুন নিমতলীতে লাগা ওই ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে এ পর্যন্ত ১২১ জনের মৃত্যু হয়েছে। আহত হন শতাধিক।

আজ মঙ্গলবার দুপুরে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে সাংবাদিকদের সামনে প্রতিবেদনটি তুলে ধরেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুন।

এসময় স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট শামসুল হক টুকু, মন্ত্রণালয়ের সচিব আবদুস সোবহান শিকদার, তদন্ত কমিটির প্রধান ইকবাল খান চৌধুরী, ফায়ার সার্ভিসেস ও সিভিল ডিফেন্স অধিদফতরের মহাপরিচালক আবু নাইম মোহাম্মদ শহীদুল্লাহ উপস্থিত ছিলেন।

প্রতিবেদনে বলা হয়, প্রত্যক্ষদর্শীদের বর্ণনা, বিশেষজ্ঞদের মতামত ও ঘটনার পারিপার্শ্বিকতা পর্যালোচনায় প্রতীয়মান হয়, রাসায়নিক বিক্রিয়া অথবা সিঁড়ি কোঠায় একাধিক বড় ধরণের ডেকে দীর্ঘক্ষণ ধরে রান্নার কাজ চলার কারণে গুদামজাত কেমিক্যালে তাপজনিত রাসায়নিক বিক্রিয়া হয়। আর গুদামে রক্ষিত অতি দাহ্য রাসায়নিকের বিক্রিয়াজনিত কারণে বিস্ফোরণ হলে তা থেকে অগ্নিকাণ্ডের উৎপত্তি হয়। যা পরে লাভার মতো ছড়িয়ে পড়ে। আঠালো কেমিক্যালে আগুন লেগে তা চারপাশে দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে।

কেমিক্যালের আগুন ট্রান্সফরমারের নীচে থাকা মোটর সাইকেলে লাগলে সঙ্গে সঙ্গে আগুন ধরে যায়। একপর্যায়ে গ্যাসের চুলায় লাগলে আগুন ভয়াবহ রূপ নেয়। মুহুর্তের মধ্যে আগুন ওপরের ট্রান্সফরমারে ধরে গেলে তা বিস্ফোরিত হয়। ওই এলাকা বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে। এতে অনেকের প্রাণহানির ঘটনা ঘটে। অগ্নিদগ্ধ হয়ে পড়ে অনেক মানুষ।

বাংলাদেশের স্থানীয় সময়: ১৫১০ঘণ্টা, জুন ১৪’ ২০১০
ইউবি/এনএস/জেএম

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
db 2010-06-14 19:59:19