bangla news

ড্যাপ বাস্তবায়ন হলে পরিবেশগত নিরাপত্তা নিশ্চিত হবে: গণপূর্তমন্ত্রী

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১১-০৬-০৫ ১২:১০:৩১ পিএম

গৃহায়ন ও গণপূর্ত প্রতিমন্ত্রী আবদুল মান্নান খান বলেছেন, ‘ডিটেইলড এরিয়া প্ল্যান (ড্যাপ) বাস্তবায়িত হলে সংশ্লিষ্ট এলাকার সড়ক সংযোগ, পানি সরবরাহ ও পয়ঃনিষ্কাশন, বন্যা নিয়ন্ত্রণ, বিদ্যুৎ, গ্যাস সরবরাহ নিশ্চিত হবে।

ঢাকা: গৃহায়ন ও গণপূর্ত প্রতিমন্ত্রী আবদুল মান্নান খান বলেছেন, ‘ডিটেইলড এরিয়া প্ল্যান (ড্যাপ) বাস্তবায়িত হলে সংশ্লিষ্ট এলাকার সড়ক সংযোগ, পানি সরবরাহ ও পয়ঃনিষ্কাশন, বন্যা নিয়ন্ত্রণ, বিদ্যুৎ, গ্যাস সরবরাহ নিশ্চিত হবে। ফলে ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য সার্বিক পরিবেশগত নিরাপত্তাসহ আবাসস্থল নিশ্চিত করা সম্ভব হবে।’

রোববার জাতীয় সংসদের প্রশ্নোত্তর পর্বে মোশতাক আহমেদ রুহীর প্রশ্নের জবাবে তিনি  এ কথা বলেন।

মন্ত্রী জানান, ঢাকা শহরে প্রস্তাবিত ড্যাপ-এর আলোকে উন্নয়ন কার্যক্রম গ্রহণ করার জন্য সরকারি বিভিন্ন সহযোগী সংস্থার কাছে রাজউক চিঠি পাঠিয়েছে। চট্টগ্রাম উন্নয়ন কতৃপক্ষ ড্যাপ বাস্তবায়নের জন্য সংশ্লিষ্ট এলাকায় পরিকল্পনা সংক্রান্ত কার্যক্রম গ্রহণ করা হয়েছে।

তিনি আরো জানান, ২০১২ সালে খুলনা উন্নয়ন কতৃপক্ষ ড্যাপ বাস্তবায়নের কাজ শেষ করবে।
 
এম. আবদুল লতিফের প্রশ্নের জবাবে প্রতিমন্ত্রী জানান, আলাদাভাবে কক্সবাজার উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ গঠনের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। এ লক্ষ্যে গঠিত কমিটি কক্সবাজার উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ আইন প্রণয়নের খসড়া প্রস্তুত করেছে। অর্থ ও জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় থেকে মতামত পাওয়া গেছে। কক্সবাজার উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ আইনরে খসড়া চূড়ান্ত সারসংক্ষেপ আকারে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের প্রশাসনিক উন্নয়ন সংক্রান্ত সচিব কমিটিতে প্রেরণের বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।
 
নাছিমুল আলম চৌধুরীর প্রশ্নের জবাবে তিনি জানান, রাজউক যেসব পরিকল্পিত আবাসিক প্রকল্প গড়ে তোলার উদ্যোগ গ্রহণ করেছে তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে পূর্বাচল নিউ টাউন, উত্তরা তৃতীয় পর্ব ও ঝিলমিল আবসিক প্রকল্প। এসব প্রকল্পে স্বল্প ও মধ্যবিত্ত মানুষের জন্য বিভিন্ন আয়তনের অ্যাপার্টমেন্ট নির্মাণের জায়গা সংস্থানের ব্যবস্থা রয়েছে। মধ্যবিত্ত ও নিম্নবিত্তদের জন্য উত্তরা তৃতীয় পর্বে কমবেশি সাড়ে ২২ হাজার, পূর্বাচলে সাড়ে ২১ হাজার এবং ঝিলমিলে ১০ হাজার ফ্ল্যাট নির্মাণ করা হবে। এরই মধ্যে উত্তরা তৃতীয় পর্বে ফ্ল্যাট নির্মাণের কার্যক্রম শুরু করা হয়েছে। অন্যান্যগুলো পর্যায়ক্রমে বাস্তবায়ন করা হবে। এছাড়াও জাতীয় গৃহায়ন কর্তৃপক্ষ বিভিন্ন জেলা ও উপজেলায় পর্যায়ক্রমে ফ্ল্যাট নির্মাণ করার প্রকল্প গ্রহণ করেছে।

মমতাজ বেগমের প্রশ্নের জবাবে প্রতিমন্ত্রী জানান, মানিকগঞ্জের সিংগাইর উপজেলায় ধলেশ্বরী-সিঙ্গাইর স্যাটেলাইট সিটি নির্মাণ করার জন্য জাতীয় গৃহায়ন কর্তৃপক্ষ একটি প্রকল্প প্রণয়ন করেছে। বর্তমানে প্রকল্পটি বাস্তবায়নে বেসরকারি বিনিয়োগকারী নির্বাচনের বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। বিনিয়োগকারী নির্বাচিত হওয়ার পর বাস্তবায়ন কাজ শুরু হবে।

 এবিএম আনোয়ারুল হকের প্রশ্নের জবাবে তিনি জানান, সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ে তোলার জন্য ঢাকা মহানগরসহ অন্যান্য মহানগর ও শহরগুলোর অবকাঠমো উন্নয়নে মহাপরিকল্পনা (মাস্টার প্ল্যান) প্রণয়নে সরকারের উদ্যোগ রয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ২০২৭ঘণ্টা, জুন ৫, ২০১১

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2011-06-05 12:10:31