bangla news

বিশ্বকাপ প্রস্তুতি ॥ কাজের মান বজায় রাখতে প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিবের নির্দেশ

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১১-০২-০৫ ৬:৫৫:০২ এএম

বিশ্বকাপ ক্রিকেটের প্রস্তুতিতে সর্বোচ্চ গুণগত মান বজায় রাখতে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনসহ সংশ্লিষ্ট সব সংস্থাকে নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব মো. আব্দুল করিম।

চট্টগ্রাম: বিশ্বকাপ ক্রিকেটের প্রস্তুতিতে সর্বোচ্চ গুণগত মান বজায় রাখতে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনসহ সংশ্লিষ্ট সব সংস্থাকে নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব মো. আব্দুল করিম।

শনিবার চট্টগ্রাম সার্কিট হাউসে আইসিসি বিশ্বকাপ ক্রিকেট ২০১১ এর অগ্রগতি নিয়ে আয়োজিত সর্বশেষ পর্যালোচনা সভায় মুখ্য সচিব এ নির্দেশ দেন।

সভায় চট্টগ্রাম বন্দরের চেয়ারম্যান কমোডর আর ইউ আহমেদ না আসায় তীব্র ােভ প্রকাশ করেন মুখ্য সচিব।

এসময় তিনি সিটি কর্পোরেশনের কর্মকর্তাদের উদ্দেশ্যে বলেন, ‘বিভিন্ন জায়গায় আইল্যান্ডগুলোতে দেখেছি আপনারা তাড়াহুড়ো করে ইটের উপর ইট দিয়ে সিমেণ্ট লাগিয়ে রং করে দিচ্ছেন। এতে কাজের মান ঠিক থাকছে না। আপনারা যষি ঠিক সময়ে কাজ শুরু করতেন তাহলে এখন তাড়াহুড়ো করতে হতো না।’

এসময় তিনি বিশ্বকাপ উপলে সিটি কর্পোরেশনের নিজস্ব বাজেট সম্পর্কে জানতে চাইলে প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মঞ্জুর ই ইলাহী প্রথমে ‘কোনো বাজেট নেই’ এবং পরবর্তীতে ‘চার কোটি টাকা’ বলে তাকে অবহিত করেন।

মুখ্য সচিব এতে অসন্তোষ প্রকাশ করে বলেন, ‘বিশ্বকাপের মতো একটি আয়োজনের জন্য চট্টগ্রামের মতো একটি বড় শহরে যে পরিমাণ কাজ করা দরকার তাতে ৫০ কোটি টাকা বাজেট করলেও কম হত।’

তবে সভার শুরুতে মুখ্য সচিব কাজের অগ্রগতির জন্য চসিকের মেয়র এম মনজুর আলমকে ধন্যবাদ জানান।

নগরীর মূল সড়কে দোকানপাট ও গার্মেন্ট ফ্যাক্টরিগুলো রং না করায় সভায় ােভ প্রকাশ করেন মুখ্য সচিব। তিনি এ কাজের অগ্রগতির জন্য নগরীর সব ওয়ার্ড কাউন্সিলরকে ডেকে প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দিতে চসিকের প্যানেল মেয়র চৌধুরী হাসান মাহমুদ হাসনীকে নির্দেশ দেন।

সভায় প্যানেল মেয়র জানান, বিশ্বকাপ খেলার সময় নালা-নর্দমার প্রয়োজনীয় সংস্কার ও পরিষ্কার করার জন্য তিন’শ কর্মী এবং সাতটি গাড়ির ব্যবস্থা করা হয়েছে।

সভায় সিডিএ চেয়ারম্যান আবদুচ ছালাম জানান, নগরীর সাগরিকা মোড় থেকে জহুর আহমদ চৌধুরী বিভাগীয় স্টেডিয়াম পর্যন্ত দেড় কিলোমিটার রাস্তার উন্নয়ন কাজের ৯০ শতাংশ শেষ হয়েছে। ১০ ফেব্র“য়ারির মধ্যে পুরো কাজ শেষ হবে।

বিশ্বকাপ উপলে আগত দর্শনার্থীদের জন্য যানবাহন এবং হেল্প ডেস্ক স্থাপন কাজের অগ্রগতি না হওয়ায় তোপের মুখে পড়েন পর্যটন কর্পোরেশনের চট্টগ্রামের এক কর্মকর্তা।

সভায় বিশ্বকাপ আয়োজনের সময় ‘ক্রাইসিস ম্যানেজমেন্ট’র জন্য সিএমপি পুরোপুরি প্রস্তুত বলে জানিয়েছেন পুলিশ কমিশনার মো.আবুল কাশেম।

এছাড়া সভায় সিএমপি’র উপ-কমিশনার (ট্রাফিক) ফারুক আহমেদ জানান, ১৫ ফেব্র“য়ারির মধ্যে নগরীতে চলাচলরত সব বাসে রং করার লক্ষে ট্রাফিক বিভাগ কাজ করছে।

এজন্য ট্রাফিক বিভাগ নিয়মিত অভিযান চালিয়ে বিভিন্ন যানবাহন মালিকের বিরুদ্ধে মামলা করছে বলেও তিনি জানান।

এসময় মুখ্য সচিব তাকে হয়রানি এড়িয়ে কাজ করার নির্দেশ দেন।

সভা শেষে উপস্থিত সাংবাদিকদের মুখ্য সচিব আব্দুল করিম বলেন, ‘বিশ্বকাপ উপলে কাজের অগ্রগতি ভাল হচ্ছে। কাজের গুণগত মানও অনেকাংশে ঠিক আছে। আর সব সংস্থার মধ্যে সমন্বয়ও ভাল।’

সভায় চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসন, পুলিশ, ওয়াসা, পিডিবি, গণপুর্ত বিভাগ, ক্রীড়া উন্নয়ন সংস্থা, বিসিবি, কাস্টমস, বন্দর, রেলওয়ে সহ বিভিন্ন সরকারী-বেসরকারী সংস্থার প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৭৫১ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ৫, ২০১১

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2011-02-05 06:55:02