bangla news

কিশোরগঞ্জে বার্ড-ফু: ৭ হাজার মুরগী নিধন

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১১-০২-০৩ ২:৫৭:১৩ এএম

কিশোরগঞ্জে এভিয়ান ইনফুয়েঞ্জা (বার্ড-ফু) রোগে আক্রান্ত একটি খামারের প্রায় সাত হাজার মুরগী নিধন করা হয়েছে।

কিশোরগঞ্জ: কিশোরগঞ্জে এভিয়ান ইনফুয়েঞ্জা (বার্ড-ফু) রোগে আক্রান্ত একটি খামারের প্রায় সাত হাজার মুরগী নিধন করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে কিশোরগঞ্জ সদরের মারিয়া ইউনিয়নের বগাদিয়া গ্রামের ভাই ভাই পোল্ট্রি ফার্মে এসব মুরগী নিধন করা হয়।
 
জানা গেছে, সদরের মারিয়া ইউনিয়নের বগাদিয়া গ্রামের ভাই ভাই পোল্ট্রি ফার্মের মালিক মোজাম্মেল হকের খামারে বেশ কয়েক দিন ধরেই অজ্ঞাত রোগে একের পর এক মুরগী মারা যাচ্ছিল। বিষয়টি প্রাণিসম্পদ হাসপাতালে জানানো হলে হাসপাতাল থেকে একটি দল সঙ্গে সঙ্গে খামারে চলে আসে।

জেলা প্রাণিসম্পদ অফিসের ভেটেরিনারি সার্জন ডা. বাহাদুর আলী বাংলানিউজকে জানান, ‘গত বুধবার মুরগী মারা যাবার খবর শুনে তাৎণিক খামারে চলে যাই। পরে সেখান থেকে কয়েকটি মুরগীর নমুনা সংগ্রহ করি এবং হাসপাতালে নিয়ে টেস্ট করিয়ে প্রাথমিকভাবে এভিয়ান ইনফুয়েঞ্জার বিষটি নিশ্চিত হই।’
 
উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. জালাল উদ্দিন জানান, জেলা প্রাণিসম্পদ অফিসের টেস্টে বার্ড-ফু’র বিষয়টি নিশ্চিত হওয়ার পর বুধবার দুপুরে মুরগীর স্যাম্পল নিয়ে ঢাকা কেন্দ্রীয় গবেষণাগারে পাঠানো হয়। সেখান থেকে ওইদিন রাত ১০ টার সময় রোগের বিষয়টি নিশ্চিত করে ফ্যাক্স আসে।

জেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. এএসএম নওশাদ হোসেন জানান, বুধবার রাত ১০টার দিকে এভিয়ান ইনফুয়েঞ্জা’র বিষয়টি নিশ্চিত করে ঢাকা হেড অফিস থেকে ফ্যাক্স পাঠানো হয়। ফ্যাক্স পাওয়ার পরপরই জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে মুরগী নিধন নিয়ে আলোচনা করা হয়। পরে বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টা থেকে প্রশাসন ও আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের উপস্থিতিতে মুরগী নিধন শুরু করা হয়।

দুপুর ২টা থেকে ৩টার মধ্যে নিধন কার্যক্রম শেষ হবে উল্লেখ করে তিনি জানান, নিধন করা মুরগীগুলো বড় গর্তের মধ্যে মাটি চাপা দেওয়া হবে।

খামারের মালিক মোজাম্মেল হক বলেন, ‘আমি উত্তরা হ্যাচারি থেকে সোনালি পোলেট জাতের এসব মুরগীর বাচ্চা কিনে আনি। বর্তমানে মুরগীর বয়স ৭৫ দিন। সব মিলিয়ে আমার ১২/১৪ লাখ টাকা তি হয়েছে। তবে সরকার নির্ধারিত মুরগী প্রতি ১৫০টাকা হারে ভর্তুকি দেওয়ার কথা রয়েছে। ভর্তুকি পেলে তি অনেকটাই সামলাতে পারব।’   

বাংলাদেশ সময়: ১৩৫০ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ০৩, ২০১১

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2011-02-03 02:57:13