bangla news

বাউফল থানা থেকে ‘সন্ত্রাসী’কে ছেড়ে দেওয়ার অভিযোগ

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১০-১২-৩০ ১০:০১:০৭ এএম

পটুয়াখালীর দশমিনা উপজেলায় বৃহস্পতিবার দুপুরে বসতবাড়ি ভাঙচুর এবং লুটপাটের ঘটনায় পুলিশ ‘সন্ত্রাসী’কে আটক করার পর ছেড়ে দিয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

বাউফল (পটুয়াখালী): পটুয়াখালীর দশমিনা উপজেলায় বৃহস্পতিবার দুপুরে বসতবাড়ি ভাঙচুর এবং লুটপাটের ঘটনায় পুলিশ ‘সন্ত্রাসী’কে আটক করার পর ছেড়ে দিয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।
উপজেলার চরহোসনাবাদ বাজার এলাকায় দুপুর ১টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, জমি দখলের উদ্দেশ্যে স্থানীয় জাকির হোসেন (২৮)-এর নেতৃত্বে কয়েকজন ‘সন্ত্রাসী’ দুপুরে জনৈক মোর্শেদা বেগমের বসতবাড়ি ভাঙচুর ও লুটপাট করে। এ ঘটনায় পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে জাকিরকে আটক করে থানায় নিয়ে যাওয়ার পর অজ্ঞাত কারণে ছেড়ে দেয়।

এবিষয়ে মোর্শেদা বেগম অভিযোগ করেন, কয়েক বছর আগে তার স্বামী আমির হোসেন পঙ্গু হয়ে যান। এরপর থেকে তাকেই সংসারের দেখভাল করতে হচ্ছে। তখন থেকে একই এলাকার জাকির, ইরান সিকদারসহ একটি সংঘবদ্ধদল তার জমি দখলের পাঁয়তারা করে আসছে।

এরপর বৃহস্পতিবার বেলা ১টার দিকে তারা দেশিয় অস্ত্র নিয়ে মোর্শেদা বেগমের বাড়িতে হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাঙচুর ও লুটপাট করে। বিষয়টি থানা পুলিশকে জানানো হলে পুলিশ জাকিরকে আটক করে থানায় নিয়ে যায় এবং কিছুক্ষণ পরে তাকে ছেড়েও দেয়।

 এ ব্যাপারে দশমিনা থানার ওসি মো. হাবিবুর রহমান-এর সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ‘স্থানীয়ভাবে বিষয়টি মীমাংসার জন্য জাকিরকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। যদিও এ ঘটনায় ৫ জনকে অভিযুক্ত করে মোর্শেদা বেগম দশমিনা থানায়  একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

এদিকে থানা থেকে ছাড়া পেয়ে অভিযোগ তুলে নেওয়ার হুমকি দেওয়া হচ্ছে বলে জানান মোর্শেদা বেগম।

বাংলাদেশ সময়: ২০৫০ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৩০, ২০১০

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2010-12-30 10:01:07