ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৫ আষাঢ় ১৪২৭, ০৯ জুলাই ২০২০, ১৭ জিলকদ ১৪৪১

জাতীয়

শ্রমবাজার ধরে রাখতে বিদেশি শ্রম উইং শক্তিশালী করার উদ্যোগ

উবায়দুল্লাহ বাদল, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১০-১৪-১২ ০৯:২৩:৪৩ পিএম

ঢাকা: বিশ্বের বিভিন্ন দেশের শ্রমবাজার হারাচ্ছে বাংলাদেশ। তাই শ্রমবাজার ধরে রাখতে বিদেশে বাংলাদেশের শ্রম উইংগুলোর জনবল বাড়ানোর উদ্যোগ নিয়েছে সরকার।

এ লক্ষ্যে দেশীয় শ্রমিকের ব্যাপক চাহিদা রয়েছে এমন কয়েকটি দেশের শ্রম উইংয়ের জনবল কাঠামোতে নতুন পদ সৃষ্টি করা হচ্ছে।

এ সংক্রান্ত প্রস্তাবটি বুধবার সচিবালয়ে ‘প্রশাসনিক উন্নয়ন সংক্রান্ত সচিব কমিটি’র বৈঠকে উপস্থাপন করা হতে পারে। কমিটির অনুমোদন পাওয়া গেলে শিগগিরই শ্রম উইংগুলোতে জনবল নিয়োগ দেওয়া হবে বলে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে।

প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেন গত ৮ ডিসেম্বর সচিবালয়ে তার দপ্তরে সাংবাদিকদের বলেছিলেন, নানা কারণে বাংলাদেশ শ্রম বাজার হারাচ্ছে। সরকার শ্রমবাজার ধরে রাখতে বিভিন্ন উদ্যোগ নিচ্ছে। পাশাপাশি বিদেশে বাংলাদেশ মিশনগুলোর শ্রম উইংগুলো শক্তিশালী করা হবে।

প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান সূত্র জানায়, সৌদি আরব, মালয়শিয়া, কুয়েত, কাতার ও সংযুক্ত আরব আমিরাতসহ মধ্যপ্রাচ্য ও ইউরোপের বিভিন্ন দেশে কয়েক লাখ বাংলাদেশি শ্রমিক কাজ করছে। কিন্তু বাংলাদেশ দূতাবাসের শ্রম উইংগুলো শ্রমিকের কল্যাণে তেমন ভূমিকায় রাখতে পারছে না। বরং শ্রম ইউংগুলোর দুর্বলতার কারণে অনেক দেশে বাংলাদেশি শ্রমিকরা নানা হয়রানির শিকার হচ্ছেন বলে বিভিন্ন অভিযোগ রয়েছে। এসব অভিযোগ বিবেচনায় নিয়ে শ্রম উইংগুলোতে জনবল বাড়ানোর উদ্যোগ নিয়েছে সরকার।

সচিব কমিটি সূত্র জানায়, বুধবারের ‘প্রশাসনিক উন্নয়ন সংক্রান্ত সচিব কমিটি’র বৈঠকে মালয়শিয়ায় প্রথম সচিব (শ্রম) একটি ও সহায়ক জনবলের হিসেবে অফিস সহকারী কাম কম্পিউটার অপারেটরের একটি, ইতালিতে প্রথম সচিব (শ্রম) একটি ও অফিস সহকারী কাম কম্পিউটার অপারেটর একটি, জাপানে প্রথম সচিব (শ্রম) একটি ও  অফিস সহকারী কাম কম্পিউটার অপারেটর একটি, জর্ডানে প্রথম সচিব (শ্রম) একটি ও অফিস সহকারী কাম কম্পিউটার অপারেটর একটি এবং ড্রাইভার কাম-ম্যাসেঞ্জারের একটি, সৌদি আরব ও জেদ্দায় প্রথম সচিব (শ্রম) একটিও অফিস সহকারী কাম মুদ্রারিক একটি এবং অনুবাদক একটি, সংযুক্ত আরব আমিরাত ও আবুধাবিতে অনুবাদক একটি, দুবাইয়ে অনুবাদক একটি, কুয়েতে কাউন্সিলর (শ্রম) একটি অর্থাৎ বিদ্যমান প্রথম সচিবের পদটি কাউন্সিলর পদে উন্নীতকরণ ও অনুবাদক একটি, কাতার ও লিবিয়ায় পৃথকভাবে অনুবাদকের দুইটি এবং ওমানে দ্বিতীয় সচিব (শ্রম) একটি পদ সৃষ্টির প্রস্তাবনা উপস্থাপন করা হতে পারে।

বাংলাদেশ সময়: ২১২০ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ১৪, ২০১০

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa