ঢাকা, রবিবার, ২৫ শ্রাবণ ১৪২৭, ০৯ আগস্ট ২০২০, ১৮ জিলহজ ১৪৪১

জাতীয়

বাগেরহাটে যুদ্ধাপরাধের মামলা

জেলা প্রতিনিধি | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৯১৭ ঘণ্টা, জুলাই ৩, ২০১০

বাগেরহাট: বাগেরহাটের শরণখোলায় স্বাধীনতার প্রায় ৪০ বছর পর আরও একটি যুদ্ধাপরাধের মামলা দায়ের করা হয়েছে। বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর সিনিয়র নায়েবে আমীর এবং তৎকালিন পাকিস্তান সরকারের শিক্ষা ও রাজস্বমন্ত্রী মাওলানা একেএম ইউসুফসহ এ মামলায় ১২ জনকে আসামি করা হয়েছে।



উপজেলার চাল রায়েন্দা গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা হিংগুল খানকে হত্যার অভিযোগ করে তার ছেলে আঃ রহিম খান বাদী হয়ে শুক্রবার রাতে জেলার শরণখোলা থানায় মামলাটি দায়ের করেন।

এতে জামায়াতের কেন্দ্রীয় নেতা মাওলানা একেএম ইউসুফসহ স্থানীয় আঃ আজিজ হাওলাদার, আ. হাকিম খান, আ. রব হাওলাদার, ইসমাইল খান, আলতাফ খান, নজির মৃধা, মোসলেম আকন, সুলতান মৃধা, আবুল হারেজ খান, আ. হক আকন ও নূর ইসলামকে আসামি করা হয়।

মামলার এজাহারে বলা হয়, ‘আসামিরা ১৯৭১ সালের ১৫ নভেম্বর বিকেল সাড়ে ৩টায় উপজেলার চাল রায়েন্দা এলাকায় মুক্তিযোদ্ধা হিংগুল খানকে হত্যা করে। মুিক্তযুদ্ধকালে তারা রাজাকার হিসেবে পাকিস্তানি বাহিনীকে সহায়তাও করে। ’

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা শরণখোলা থানার উপ পরিদর্শক(এসআই) ইকবাল বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম.বিডি-কে জানান, আদালতের নির্দেশে ৩০২/৩৪ ধারায় মামলাটি রেকর্ড করা হয়েছে। যুদ্ধাপরাধের অভিযোগে এ পর্যন্ত শরনখোলা  থানায় ৫টি মামলা দায়ের হয়েছে বলে তিনি জানান।

এদিকে আসামিদের একজন বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম.বিডি-কে বলেন, বাদীর পরিবারের সঙ্গে জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধ থাকায় উদ্দেশ্যমূলকভাবে মামলাটি করা হয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৭১৫ঘণ্টা, জুলাই ০৩, ২০১০


বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa